1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
শ্রীপুরে বেতন বাড়ানোর দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ করে শ্রমিকদের বিক্ষোভ - দৈনিক শ্যামল বাংলা
বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৩১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
ফাঁসিয়াখালী-মেদাকচ্ছপিয়া পিপলস ফোরাম (পিএফ) সাধারণ কমিটির সভা সম্পন্ন চৌদ্দগ্রামে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উদযাপন চৌদ্দগ্রামে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা ফের ৩দিন ক্লাস বর্জনের ঘোষণা কুবি শিক্ষক সমিতির নবীনগরে পৃথক মোবাইল কোর্ট অভিযানে সাড়ে ৪ লাখ টাকা জরিমানা দৈনিক আমাদের চট্টগ্রামের সম্পাদক মিজানুর রহমান চৌধুরী উপর হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী ঠাকুরগাঁওয়ে রানীশংকৈলে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মাঠে নেমেছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা তিতাসে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা শেরপুরে আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে নিয়ে স্ত্রীর পলায়ন

শ্রীপুরে বেতন বাড়ানোর দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ করে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১ মার্চ, ২০২৪
  • ৪৮ বার

ফজলে মমিন,শ্রীপুর (গাজীপুর)

গাজীপুরের শ্রীপুরে বেতন বাড়ানো ও প্রতিমাসের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে বেতন পরিশোধের দাবিতে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক কয়েক দফা অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে শ্রমিকরা। এসময় কাঠ মহাসড়কে কাঠে আগুন ধরানো হয়।

এতে দুপাশে দীর্ঘ যানজটের তৈরি হয়। শুক্রবার (১মার্চ) দুপুরে আড়াইটার দিকে উপজেলার ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের মুলাইদ গ্রামের এমসি বাজার এলাকার তালহা স্পিনিং মিলস্ লিমিটেডের শ্রমিকরা এ অবরোধ করেন। পরে প্রায় ১ঘন্টা পর বেলা পৌনে তিনটার দিকে মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

তালহা স্পিনিং মিলের আন্দোলনরত শ্রমিকরা জানান, কারখানার শ্রমিকদের প্রতিমাসে ২০ তারিখে বেতন পরিশোধ করে কারখানা কর্তৃপক্ষ। আমরা বারবারই প্রতিমাসের ৭তারিখের মধ্যে বেতন পরিশোধের দাবি জানালেও কারখানা কর্তৃপক্ষ তাতে কর্ণপাত করছে না।

এছাড়াও গার্মেন্টস্ শ্রমিকদের বেসিক বেতন ১৪হাজার ৫০০ টাকা নির্ধারণ করলেও আমরা যারা টেক্সটাইল শ্রমিক হিসেবে আছি তাদের বেসিক বেতন ৭হাজার টাকাই রয়ে গেছে। আমরা এসব বিষয় কারখানা কর্তৃপক্ষের নজরে আনলেও তারা আশ্বাস দিয়েই যাচ্ছেন।

শ্রমিক মেহেদী হাসান, অনুপম ও রাব্বি জানান, আমরা এখানে রুম ভাড়া নিয়ে থাকি, পুরো মাসে মুদি দোকান থেকে বাকীতে দৈনন্দিন পণ্য কিনে, তা বেতন পেয়ে বিল পরিশোধ করি। কারখানা থেকে প্রতি মাসের প্রথম সপ্তাহে বেতন না দিলে আমরা ঘর ভাড়া, দোকান বাকী পরিশোধ করতে পারি না। এনিয়ে দোকান মালিক ও বাড়ির মালিকদের কথা শুনতে হয়। আমাদের এই দুর্ভোগের কথা কারখানা কর্তৃপক্ষকে একাধিকবার বললেও তারা তা সমাধানে কোন উদ্যোগ নিচ্ছেন না। তাই বাধ্য হয়ে আমরা আন্দোলনে নেমেছি। ঘটনার পরপরই শ্রীপুর থানা পুলিশ, শিল্প পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে কাজ করছে।

শিল্প পুলিশের শ্রীপুর ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই মোঃ মিনহাজ জানান, শ্রমিকদের বুঝিয়ে মহাসড়ক থেকে সরিয়ে নেয়া হলে পৌনে তিনটার দিকে মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়। কারখানার ভেতরে শ্রমিকদের আন্দোলনের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করা হচ্ছে। দ্রæতই শ্রমিকদের সমস্যা মিটে যাবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম