1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : naga5000 : naga5000 naga5000
ন্যাশনাল প্রোডাকটিভিটি এন্ড কোয়ালিটি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড পেলো বায়োফার্মা - দৈনিক শ্যামল বাংলা
বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ১২:১৬ অপরাহ্ন

ন্যাশনাল প্রোডাকটিভিটি এন্ড কোয়ালিটি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড পেলো বায়োফার্মা

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৮ জুন, ২০২৪
  • ২২ বার
  •  দেশের মাঝারি শিল্প প্রতিষ্ঠান ক্যাটাগরিতে সেরা ঔষধ শিল্প প্রতিষ্ঠান হিসাবে বায়োফার্মা লিমিটেড কোম্পানি উৎপাদনশীলতায় এবং পন্যের গুনগত মানোন্নয়নে গুরুত্বপূর্ন অবদানের জন্য গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিল্প মন্ত্রণালয়ের জুরি বোর্ডের বিবেচনায় প্রথমস্থান অর্জন করেছে। শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীন ন্যাশনাল প্রোডাক্টিভিটি অর্গানাইজেশন (এনপিও)-এর উদ্যোগে আয়োজিত ন্যাশনাল প্রোডাকটিভিটি এন্ড কোয়ালিটি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড ২০২২ এবং ইনস্টিউটিউশনাল এপ্রিসিয়েশন অ্যাওয়ার্ড ২০২২ এ অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে বায়োফার্মার ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডাঃ লকিয়ত উল্যাহ আজ ৮ জুন ২০২৪ শিল্প মন্ত্রনালয়ের মাননীয় মন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন এমপির-এর হাত থেকে ট্রফি ও সার্টিফিকেট গ্রহন করেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব জাকিয়া সুলতানা, সিনিয়র সচিব, শিল্প মন্ত্রনালয়, রাষ্ট্রদূত জনাব মাশ্‌ফী বিনতে শাম্‌স, রেক্টর ফরেন সার্ভিস একাডেমী এবং জনাব মাহবুবুল আলম, সভাপতি এফবিসিসিআই। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মোঃ মেজবাহুল আলম, মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব), ন্যাশনাল প্রোডাকটিভিটি অর্গানাইজেশন (এনপিও)। একটি দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন নির্ভর করে উৎপাদশীলতা বৃদ্ধির উপর । উৎপাদশীলতা স্বনির্ভর অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ও জীবন যাত্রার মান উন্নয়নে ইতিবাচক প্রভাব বিস্তার করে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উৎপাদনশীলতাকে জাতীয় আন্দোলন ঘোষণা করে এবং প্রতি বছর শ্রেষ্ঠ শিল্প প্রতিষ্ঠান ও উদ্যোক্তাদের মাঝে স্বীকৃতি স্বরূপ ন্যাশনাল প্রোডাকটিভিটি এন্ড কোয়ালিটি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড প্রবর্তন করেন। এ স্বীকৃতি শিল্প উদ্যোক্তাদের নিজ নিজ কারখানায় উৎপাদিত পণ্যের উৎকর্ষ সাধনে এবং উৎপাদনশীলতা বাড়াতে অনুপ্রাণিত করবে। ফলে নবীন শিল্প উদ্যোক্তারাও নিজেদের পণ্যের গুনগত মানোন্নয়নে এবং বিশ্বমানের শিল্প স্থাপনে উজ্জীবিত হবেন, ফলে দেশে গুণগত মান সম্পন্ন শিল্পায়নের ধারা বেগবান হবে। এ ধরনের ইতিবাচক পদক্ষেপ অব্যাহত থাকলে দেশ শিল্প সমৃদ্ধ হবে।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি শিল্প মন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন বলেন, জাতীয় প্রবৃদ্ধিতে শিল্প খাতের অবদান ক্রমবর্ধমান রাখতে শিল্প মন্ত্রনালয় কাজ করে যাচ্ছে। শিল্প মন্ত্রী বলেন দেশের শিল্প ও সেবা ক্ষেত্রে উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি ও উৎপাদিত পণ্যের উৎকর্ষতা সাধনের গুরুত্বপূর্ন অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ন্যাশনাল প্রোডাক্টিভিটি এন্ড কোয়ালিটি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড ২০২২ এবং ইনস্টিউটিউশনাল এপ্রিসিয়েশন অ্যাওয়ার্ড ২০২২ প্রদান করা হয়। নির্বাচিত উদ্যোক্তা ও শিল্প প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিদের উষ্ণ অভিনন্দন জানান এবং রাষ্ট্রীয় এ স্বীকৃতি উৎপাদনশিলতা বৃদ্ধি উৎকর্ষতা অর্জনে গুরুত্বপূর্ন অবদান রাখবে বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করেন। এবার ন্যাশনাল প্রোডাক্টিভিটি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড ২০২২ পেয়েছে ৬ ক্যাটাগরির খাত ও উপখাত ভিত্তিক ২১টি শিল্প ও সেবা প্রতিষ্ঠান ।
বায়োফার্মা ১৯৯৯ সালে কতিপয় খ্যাতনামা চিকিৎসকের পৃষ্ঠপোষকতায় এবং অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত হয়। পরবর্তীতে বায়োফার্মা লিমিটেড তার সেবা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে আরো ১০ টি সহযোগী প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করে বায়োগ্রুপ-এ পরিণত হয়।
প্রতিষ্ঠাকাল থেকে বায়োফার্মা লিমিটেড আদর্শ মান-নীতি ও সিজিএমপি গাইড লাইন অনুশীলন করে দেশ এবং বিদেশের রোগীদের জন্য উন্নতমানের ঔষধ সরবরাহ করে আসছে। ঔষধের গুণগত মানের যথার্থতা নিরূপনের লক্ষ্যে সম্প্রতি বায়োফার্মা ইউএস-এফডিএ অনুমোদিত বিখ্যাত কন্ট্রাক্ট রিসার্চ অর্গানাইজেশনের মাধ্যমে ১১ টি ঔষধ পণ্য উদ্ভাবক কোম্পানির ঔষধের সাথে তুলনা করে বায়োইকুভ্যালেন্ট স্টাডি সম্পন্ন

করেছে। এই বায়োইকুভ্যালেন্ট স্টাডি রিপোর্ট প্রমাণ করে যে, বায়োফার্মার সকল ঔষধ সহ অন্যান্য ঔষধ গুনগত মানের দিক থেকে পৃথিবীর বিখ্যাত কোম্পানির ঔষধের সমকক্ষ ও সমতুল্য , যার দরুণ এই সকল ঔষধের সুনাম দেশে ও বিদেশে ছড়িয়ে পড়েছে।
বায়োফার্মা লিমিটেড দেশীয় বাজারের ক্রমবর্ধমান চাহিদা মিটিয়ে ২০০৮ সাল থেকে এশিয়া, আফ্রিকা এবং দক্ষিণ আমেরিকার ২৫ টি দেশে গুনগত মা্নসম্পন্ন ঔষধ রপ্তানি করে আসছে। বায়োফার্মা তার উৎপাদিত পণ্য বহিঃবিশ্বে রপ্তানির মাধ্যমে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের পাশাপাশি দেশের অভ্যন্তরীণ শিল্পের বিকাশ এবং কর্মসংস্থান বৃদ্ধিতে অসামান্য ভূমিকা পালন করছে।
ঔষধ শিল্পের পথিকৃৎ ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. লকিয়ত উল্যাহ তার অসামান্য মেধা ও কর্মদক্ষতা এবং সফল নেতৃত্ব, পরিচালনা পর্ষদের অক্লান্ত পরিশ্রম এবং বায়োফার্মা অনুরাগী বিশ্বস্ত পেশাজীবী ডাক্তারদের সার্বিক সহযোগিতা অব্যাহত থাকলে আগামীতেও আরো অধিক সফলতা অর্জন সম্ভব হবে।
বায়োফার্মার ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. লকিয়ত উল্যাহ তার অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে ব্যবসাবান্ধব সরকারের মহতি উদ্যোগকে স্বাগত জানান এবং বায়োফার্মাকে সম্মানিত করার জন্য পরিচালনা পর্ষদের পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। মাননীয় প্রধান মন্ত্রী ব্যবসায়ীদের সর্বাত্বক সহযোগীতা করে আসছেন বলে উল্লেখ করেন এবং শিল্প মন্ত্রনালয়ের সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বক্তব্য শেষ করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম