1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : naga5000 : naga5000 naga5000
আকর্ষণীয় অফার নিয়ে ৯৩ নং স্টলে রেসালাহ রোম কনসোর্টিয়াম - দৈনিক শ্যামল বাংলা
শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০৭:১২ অপরাহ্ন

আকর্ষণীয় অফার নিয়ে ৯৩ নং স্টলে রেসালাহ রোম কনসোর্টিয়াম

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ১৭৩ বার

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশে হাউজিং ব্যবসায়ীদের সংগঠন রিহ্যাব কর্তৃক আয়োজিত উইন্টার ফেয়ার শুরু হয়েছে গত ২৪ ডিসেম্বর ১৯ ইং তারিখে। সংগঠনটির প্রেসিডেন্ট আলমগীর সামছুল আলামীন এর সভাপতি উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী এডভোকেট স ম রেজাউল করিম।
আজ দ্বিতীয় দিনে বড় দিনের বন্ধ থাকায় দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভীড় পরিলক্ষিত হয়। ৯৩ নং স্টলটি রেসালাহ রোম কনসোর্টিয়াম এর। কনসোর্টিয়াম এর চেয়ারম্যান দিদারুল আলম মজুমদার উক্ত মেলা উপলক্ষে আমাদেরকে এক সাক্ষাৎকার প্রদান করেন।
শ্যামল বাংলা : আপনি রিহ্যাব সম্পর্কে একটু বলবেন কি?
দিদার মজুমদার:- রিয়েল এস্টেট এন্ড হাউজিং এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ হলো REHAB. ১৯৯২ সালে ১১ জন সদস্য নিয়ে এই সংগঠনের শুরু। এখন প্রায় ১০০০ সদস্য। এবার ২৭ তম বার্ষিকী ও মেলা চলছে ২৪ থেকে ২৮ ডিসেম্বর ২০১৯ তে ঢাকাস্থ বংগবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে।
শ্যামল বাংলা : আপনার কোম্পানী সম্পর্কে একটু বলবেন কি?
দিদার মজুমদার:- আমার কোম্পানী রেসালাহ প্রপার্টিজ এক যুগের বেশী ঢাকা চট্টগ্রাম ফেনী ও নোয়াখালীতে নিজে এবং রোম কর্পোরেশন মিলে মোট ১৪টি প্রজেক্ট হস্তান্তর করেছে। এখনো ১২টি প্রজেক্টের কাজ চলছে এবং বেশকিছু আপকামিং প্রজেক্ট হাতে রয়েছে। আমাদের রিহ্যাব সদস্য নং ৯৬২ ও এবারের মেলায় স্টল নং ৯৩।
শ্যামল বাংলা : রিহ্যাব এর কর্মসূচি কি কি?
দিদার মজুমদার:- রিহ্যাব হাউজিং সংক্রান্ত সরকারি সিদ্ধান্ত সমূহের আলোচনা পর্যালোচনা করে দাবী আদায় সংক্রান্ত কাজ করে থাকেন। এছাড়াও সদস্যদের স্বার্থ শর্ত অবহিতকরণ একত্রিত করণসহ ইত্যাদি কর্মসূচি পালন করে আসছে।
শ্যামল বাংলা : আপনার কোম্পানীর কি কি কর্মসূচি?
দিদার মজুমদার:- আমার কোম্পানী মধ্যবিত্ত ও নিম্নমধ্যবিত্তদের আবাসনের জন্য ফ্ল্যাট এর পাশাপাশি প্লটেরও কাজ করে যাচ্ছে। এই প্লটগুলোর মধ্যে ঢাকার বাড্ডায় রোম মডেল সিটি ও পাঁচগাছিয়ায় ফেনী গার্ডেন সিটি উল্লেখযোগ্য‌।
এছাড়াও সঠিক স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে মেডিকেল ইকুইপমেন্ট আমদানী করে হসপিটাল সমূহে সরবরাহ করছেন।
আবার নিরাপদ ভোগ্যপণ্য উৎপাদন ও সরবরাহে ফেনীর বিসিক শিল্পনগরীতে রোম ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ নিজস্ব ভবনে নিয়মিত কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।
সামাজিক কাজে অবদান রাখার ক্ষেত্রেও আমাদের কোম্পানী অনন্য ভূমিকা রেখে যাচ্ছেন।
শ্যামল বাংলা : হাউজিং ব্যবসায়ে কি সমস্যা আছে বলে আপনি মনে করেন?
দিদার মজুমদার:- ইউটিলিটি সংক্রান্ত সমস্যা প্রকট। হাউজিংয়ে কিছু ব্যবসা হওয়ার থাকলেও গ্যাস বিদ্যুৎ ও পানির কাজ সমাধান দিতে গিয়ে আর সে ব্যবসা থাকে না বললেই চলে। গ্যাস নতুন করে না পাওয়া, বিদ্যুৎ এর সাবস্টেশন বসাতে আকাশচুম্বী খরচ, পানির লাইনের জন্যও যে খরচ তাতে ডেভেলপার কোম্পানি গুলো হিমশিম খাচ্ছে।
ওয়ান ডিজিটের ঘোষনা থাকলেও ব্যাংক এবং লিজিং কোম্পানী গুলো সে আলোকে বিনিয়োগ না দেয়াতে ফ্ল্যাট ক্রেতাগণ নাগাল পাচ্ছেন না।
শ্যামল বাংলা : উদ্ধোক্তা হিসেবে আপনি হাউজিং ব্যবসায়ে সম্ভাবনা কি কি দেখছেন?
দিদার মজুমদার:- এই জনবহুল শহর ঢাকায় শতকরা আশি ভাগ মানুষ এখানে ভাড়াটিয়া। একটু মাথাগোঁজার ঠাঁই কে না চায়। সেই স্বপ্নের বাডীর চাহিদা মেটাতে একটি ফ্ল্যাট না হলে নয়।
গ্যাসেরও একটি ভালো ফায়সালা আসবে আশাকরি।
এছাড়াও সরকারের আন্তরিকতা এ সেক্টরকে গতিময় করবে বলে মনে হয়।
প্রধানমন্ত্রীর সঠিক নির্দেশনা পেয়ে এ সেক্টর অনেক অগ্রসর হবে আশাকরি। কালো টাকা সাদা করতে সুযোগ প্রদান,ওয়ান ডিজিটে বিনিয়োগ পাওয়া,গ্যাস এর লাইন সংযোগ এ সেক্টরকে সমৃদ্ধ এবং লাভজনক করে তুলবে।
মনে রাখতে হবে যে প্রথম রেজিষ্ট্রি খরচ নামমাত্র মূল্যে হতে হবে। পরের রেজিস্ট্রি খরচ বেশী নিতেই পারে। এতে একজন মানুষ তার তৃতীয় মৌলিক অধিকার পাওয়াটা নিশ্চিত হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম