1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. nrghor@gmail.com : Nr Gh : Nr Gh
  3. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
বুদ্ধিজীবী হত্যার ধারাবাহিকতা অব্যাহত আছে - দৈনিক শ্যামল বাংলা
সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২, ১০:৩৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:

বুদ্ধিজীবী হত্যার ধারাবাহিকতা অব্যাহত আছে

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ৭৪ বার

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের উদ্যোগে আজ শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে এক অালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় ।অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি বীর মুক্তিযুদ্ধা রুহুল আমীন গাজী বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের মহাসচিব এম আব্দুল্লাহ এবং সাবেক মহাসচিব এম এ আজিজ, সভাপতিত্ব করেন ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুল গণি
আরো উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম ও জনকল্যাণ সম্পাদক খন্দকার আলমগীর হোসেন সহ প্রবীণ নবীন সাংবাদিকগণ।
প্রধান অতিথির আলোচনায় জনাব রুহুল আমিন গাজী বলেন স্বাধীনতার পর শহীদ বুদ্ধিজীবীদের নির্মমভাবে যে হত্যা করা হয় তা যেন এই স্বাধীন বাংলাদেশে এখনো অব্যাহত আছে, বুদ্ধিজীবীদের উপর নির্যাতন নিপীড়ন এখন ও চলছে বিশেষ করে গতকাল শুক্রবার দৈনিক সংগ্রাম অফিসে যে ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে মুক্তিযোদ্ধা মঞ্চ নামক একটি সংগঠন তা ভাষায় প্রকাশ করার নয়, বয়োজ্যেষ্ঠ একজন প্রবীণ সাংবাদিক দৈনিক সংগ্রামের সম্পাদক জনাব আবুল আসাদে সাথে যে রূপ আচরন করা হয়েছে আমরা তার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাই, জনাব আবুল আসাদ একজন সাংবাদিক নন তিনি একজন বুদ্ধিজীবী ও বটে তারপর যে আক্রমণ হয়েছে তাহ ভাষায় প্রকাশ করার নয়। একজন সম্পাদককে কিভাবে কোন আইন ছাড়া নিয়ম ছাড়া ওয়ারেন্ট ছাড়া কিভাবে তাকে এরেস্ট করা হয় কিভাবে সরকারদলীয় লোকজন এসে তাকে নির্মম ভাবে লাঞ্চিত করে এ দেখে জাতি হতাশ !সাংবাদিকতার স্বাধীনতা গণমাধ্যমের স্বাধীনতা আজ হারিয়ে যাচ্ছে তিনি অনতিবিলম্বে দৈনিক সংগ্রামের সম্পাদক আবুল আসাদকে নিঃশর্ত মুক্তি এবং দলীয় কার্যালয়ে ভাঙচুরের ক্ষতিপূরণ ও অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। তিনি আরো বলেন যদি কোন গণমাধ্যম কোন বিষয়ে ভুল করে তাহার জন্য গণমাধ্যমে তার প্রতিবাদ ছাপানো এবং আইনের মাধ্যমে তার ফয়সালা করা কিন্তু নিজের হাতে নিয়ে গণমাধ্যমের অফিসে ভাঙচুর করে একজন সম্পাদককে লাঞ্ছিত করে লাঞ্ছিত করা এটা কোন সভ্য সমাজের কাজ নয়। কেউ আইন হাতে নিয়ে তা নিজের মত করে পেশিশক্তি দেখিয়ে তার বাস্তবায়ন করা তা কোনভাবেই কাম্য নয়
সভাপতির বক্তব্যে জনাব আব্দুল গনি বলেন শহীদ শব্দের জন্য তারা সংগ্রাম অফিসে আক্রমণ করে এবং সম্পাদক কে লাঞ্ছিত করে অথচ বিগত পাঁচ বছর যাবত তারা শহীদ আব্দুল কাদের মোল্লার নামের শুরুতে শব্দটি উল্লেখ করে আসছে কিন্তু গত 5 বছর যাবত কোন তাদের পক্ষ থেকে প্রতিবাদ করা হয়নি অথচ এবার কোন কথা ছাড়াই দৈনিক সংগ্রাম অফিসে তারা হামলা করে এবং সম্পাদক কে লাঞ্ছিত তিনি আরো বলেন
যেখানে আব্দুল কাদের মোল্লা জাতীয় প্রেস ক্লাবের সদস্য ছিলেন, তিনি একজন সাংবাদিক ছিলেন, ছাত্রজীবনে তিনি সাংবাদিক ইউনিয়নের নেতা ছিলেন এবং নিয়মিত কলাম লিখতেন একজন সাংবাদিককে শহীদ বলা যাবে না এটা বাংলাদেশের কোন আইনে আছে? তিনি আরো বলেন, শহীদ আব্দুল কাদের মোল্লাকে একটি জুডিশিয়াল ক্লিনের মাধ্যমে হত্যা করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম