1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
আবহাওয়ার অজুহাতে রাজস্ব কমানোর চেষ্টা অনিয়মের জ্বালে দুবলা শুটকি পল্লী! - দৈনিক শ্যামল বাংলা
বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৭:৫৪ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
নবীনগরে কোটাপদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল রাউজানে তিনদিন ব্যাপী বৃক্ষ মেলার উদ্বোধন রাউজানে ৬০ প্রজাতির ১ লাখ ৮০ হাজার ফলজ ও ঔষধি গাছের চারা রোপন কর্মসূচি উদ্বোধন মাগুরায় নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান শরিয়াতউল্লাহ হোসেন রাজনকে গণসংবর্ধনা প্রদান  *জরুরী রক্ত প্রয়োজন*রক্তের গ্রুপ: AB+ (এবি পজেটিভ) ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে চৌদ্দগ্রামে তিন ছাত্রলীগ নেতার পদত্যাগ কক্সবাজারে সাংবাদিকদের উপর আ’লীগ-ছাত্রলীগের হামলা সারাদেশে ছাত্রসমাজের উপর মর্মান্তিক হামলার প্রতিবাদ ও কোটা সংস্কারের এক দফা দাবিতে দোহাজারীতে বিক্ষোভ মিছিল  এমএসআর’র ১ কোটি ২৬ লক্ষ টাকা লুটপাট সমস্যায় জর্জরিত চট্টগ্রামের চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-অধিকাংশ চিকিৎসক অনুপস্থিত থাকেন নবীনগরে কুতুবিয়া দরবার শরীফে শাহাদাতে কারবালা মাহফিল অনুষ্ঠিত

আবহাওয়ার অজুহাতে রাজস্ব কমানোর চেষ্টা অনিয়মের জ্বালে দুবলা শুটকি পল্লী!

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
  • ১৫৩ বার

নইন আবু নাঈম বাগেরহাট ঃ
সুন্দরবনের দুবলার চরে চার মাস পুর্বে শুরু হয়েছে শুটকি মৌসুম । চলতি বছর জেলেদের জালে ধরা পড়ছে প্রচুর বিভিন্ন প্রজাতির মাছ। সে ক্ষেত্রে রাজস্ব ঘাটতির আশংকা নেই, বলে আশা প্রকাশ করেছেন বনবিভাগ ।
মাছ ধরা, বাছাই, গ্রেডিং সহ প্রক্রিয়াজাত করণে বর্তমানে অনেকটা ব্যস্ত সময় পার করছেন সংশ্লিষ্টরা । তবে, চর গুলোতে উন্নত পরিবেশ না থাকা সহ নানা অব্যবস্থাপনার কারনে মান সম্পন্ন শুঁটকি উৎপাদন সম্ভব হচ্ছে না। তবে, ব্যবসায়ীদের মতে ,উন্নত মানের শুঁটকি উৎপাদন করা গেলে সরকারি রাজস্ব আরো বাড়বে ।
অপরদিকে, রাজস্ব ফঁাকি দিতে বনের কিছু অসাধু কর্মকর্তা কর্মচারি সাগরে মাছ নেই, এমন অসত্য বিষয় বলে আসলেও চলতি বছরে তার চিত্র বিপরীত । এছাড়া বন বিভাগের রেকর্ড অনুসারে চলতি বছরে শুটকি পল্লীতে প্রায় ১৬ হাজার জেলের থাকার জন্য ৭১৭টি, মহাজনদের ৩৫টি বসতঘর ও মৎস আহরন কাজে ৮৫০ টি নৌকার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে । তবে, প্রতিটি ঘর ২৮ ফুট দৈঘর্য ও ১২ ফুট প্রস্থ অনুসারে তৈরীর নিয়ম থাকলেও বাস্থবে তার ভিন্নতা রয়েছে।
জানাগেছে, পূর্ব সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের আওতাধীন ও বঙ্গোপসাগরের মোহনায় দুবলার চর, মেহের আলীর চর, আলোরকোল, অফিসকিল্লা, মাঝেরকিল্লা, শেলার চর ও নারকেল বাড়িয়ার চর সহ ৮/১০ টি চরে গত চার দশক ধরে চলছে দুবলা শুঁটকি পল্লী। প্রতিবছর অক্টোবর থেকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত পাঁচ মাস চালু থাকে শুঁটকি তৈরীর এ মৌসুম। এতে উপকুলীয় এলাকার খুলনা, সাতক্ষীরা, শরণখোলা, বাগেরহাট, মোংলা, রামপাল, পটুয়াখালী, চট্টগ্রাম, কক্রবাজার, কুতুবদিয়া, বঁাশখালী সহ বিভিন্ন এলাকার হাজার হাজার জেলে ও ব্যবসায়ী দুবলায় শুঁটকি তৈরীতে ব্যস্ত হয়ে পড়ে । তবে,পরিচয় গোপন রাখার শর্তে, শুটকি পল্লীর কয়েক জন মহাজন ও জেলে বলেন, দুবলায় কর্মরত কতিপয় অসাধু বন কর্তা ও কর্মী সংশ্লিষ্টদের নিকট থেকে অনৈতিক সুবিধা গ্রহন করে অনিয়ম চালাচ্ছেন । শুটকি পরিমাপ ও নৌকার (বি.এল.সি) লাইসেন্স নবায়নের সহ নানা ক্ষেত্রে অনিয়ম করছেন তারা। এমনকি বনজ সম্পদ ব্যাবহারের নিয়ম না থাকলেও অস্থায়ী বসতি স্থাপনের ক্ষেত্রে তা ভঙ্গ করেছেন জেলে ও তাদের মহাজনরা । এছাড়া পল্লীতে অবস্থানরত কয়েক হাজার জেলে তাদের দৈনন্দিন কাজে সুন্দরবনের নানা প্রজাতির গাছ জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করছেন । যার ফলে প্রতিনিয়ত ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে সুন্দরবন। রাজস্ব ছাড়াও ব্যাবসার তহবিল অনুসারে ৩/৪ হাজার টাকা অতিরিক্ত গুনতে হয় ব্যাবসায়ীদের। এ সকল ক্ষেত্রে কোন রিসিপ দেন না বন বিভাগ । পাশাপাশি বৈরী আবহাওয়ার অজুহাত দেখিয়ে এ মৌসুমে রাজস্ব কম দেখানোর চেষ্টা করছেন দুবলায় কর্মরত বন বিভাগের কতিপয় অসাধু কর্তারা । এ ব্যাপারে, দুবলা টহলফাড়ীর ইনচার্জ অশিত কুমার রায়ের কাছে জানতে চাইলে, নানা অনিয়মের কথা অস্বীকার করে মুঠোফোনে তিনি বলেন, এখানে নিয়মের বাহিরে কোন কিছুই করা হচ্ছে না । তবে ,জ্বালানী ব্যবহার করতে পারবেন জেলেরা। এছাড়া আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে রাজস্ব ঘাটতি হবে না। অন্যদিকে , সুন্দরবনের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মো. বেলায়েত হোসেন জানান, অনিয়মের বিষয় গুলো আমার জানা নেই । খোঁজ খবর নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম