1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. nrghor@gmail.com : Nr Gh : Nr Gh
  3. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
শ্রীনগরে কারখানায় নিন্ম মানের ও নকল পন্য প্যাকেট করে বিভিন্ন ব্রান্ডের নামে বাজারজাত - দৈনিক শ্যামল বাংলা
বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ ২০২৩, ১০:৫৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
ঠাকুরগাঁওয়ে সাব-রেজিস্ট্রার অফিসে টাকা ছাড়া কাজ হয় না ! ঠাকুরগাঁওয়ে মাটি চাপা পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু ! গুইমারাতে নানা আয়োজনে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন ঠাকুরগাঁওয়ে মথরাপুর পাবলিক হাই স্কুলেই ২০ জন যমজ ভাইবোন লেখাপড়া করেন। ঠাকুরগাঁওয়ে কয়েকদিনের বৃষ্টিতে কৃষকের স্বস্তি : বোরো ক্ষেতে পানি জমেছে। পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন-জাহাঙ্গীর কবির তাজুল ইসলাম মোল্লার মৃত্যুতে আ’লীগ নেতা ইঞ্জি. শফিকুলের শোক প্রকাশ নকলায় শরবত বিক্রেতাকে ভ্যানগাড়ী উপহার দিলেন ছাত্রলীগ নেতা কনক চৌদ্দগ্রামের শ্রীপুরে যশপুর প্রবাসী সমাজ কল্যাণ ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে ইফতার ও ঈদ সামগ্রী বিতরণ নকলায় পবিত্র রমজান মাসকে স্বাগত জানিয়ে র‌্যালি ও আলোচনা সভা

শ্রীনগরে কারখানায় নিন্ম মানের ও নকল পন্য প্যাকেট করে বিভিন্ন ব্রান্ডের নামে বাজারজাত

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ৯৯ বার

শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) সংবাদদাতাঃ শ্রীনগরে নিজস্ব কারখানায় নিন্ম মানের ও নকল পন্য প্যাকেটজাত করে বিভিন্ন ব্রান্ডের নামে বাজারজাত করছে একটি কোম্পানী।
শনিবার দুপুরে শ্রীনগর-নওপাড়া সড়কের পাশে পাটাভোগ এলাকার মেসার্স ভাই ভাই কনজুমার প্রোডাক্টসের কারখানায় সরজমিনে গিয়ে দেখা যায় সিটি কোম্পানীর প্যাকেটে ময়দা ও উৎসব কোম্পানীর চটের বস্তায় ১নং নাজিরশাইল চাউল সহ বিভিন্ন পন্য পেকেটজাত করা হচ্ছে। কারখানার বাইরে দুটি অটোরিক্সায় আটা ও চাউলের বস্তা ভরে বাজারজাত করার জন্য অন্যত্র নিয়ে যাচ্ছে বিক্রয় কর্মীরা।
অপরদিকে কারখানার ভেতরে অপরিষ্কার অপরিচ্ছন্ন ভাবে ভাঙ্গানো হচ্ছে নিম্ম মানের হলুদ, মরিচ, ধনিয়া সহ বিভিন্ন রকম মসলা। ভাঙ্গানো এসব মশনার গুড়ার সাথে মেশানো হচ্ছে কৃত্রিম রং ও কাঠের গুড়া।
পাশে প্লাস্টিকের বড় বড় পাত্রে রাখা এসকল মসলার উপর ছত্রাক পরে আছে। ছত্রাক সহ এসব ভেজাল মসলা প্লাস্টিকের জারে ভরে বিএসটিআইয়ের সীল সহ নাইওরী ব্রান্ডের মোড়ক লাগানো হচ্ছে। মোড়কে লেখা মেসার্স ভাই ভাই কনজুমার প্রোডাক্টস ফ্যাক্টরির ঠিকানাও ভুল উল্লেখ করা হয়েছে। তাছাড়া পন্যের গায়ে উৎপাদন ও মেয়াদ উর্ত্তীনের কোন তারিখ নেই। এসময় কারখানায় কর্তব্যরত কেউ ছাড়পত্র বা বৈধ কোন কাগজপত্র দেখাতে পারেননি। পরে জুয়েল নামে একলোক উপস্থিত হয়ে নিজেকে মালিক দাবী করেণ। এসময় তার কাছে নকল পন্য ব্রান্ডের নামে প্যাকেট করে কেন বাজারজাত করছেন জানতে চাইলে তিনি তার বাড়ি উপজেলার বেঁজগাও গ্রামের পরিচয় দিয়ে দম্ভ প্রকাশ করেন।
এব্যাপারে উপজেলা স্যানেটারি ইন্সপেকটর নাসরিন সুলতানা মিলি বলেন, কারখাটির বিষয়ে ভোক্তা অধিকার আইনে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য উদ্যোগ গ্রহন করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম