1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়সহ ৪ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর! - দৈনিক শ্যামল বাংলা
রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০৮:২০ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
ঘূর্ণিঝড় রেমাল: ঝুঁকি এড়াতে প্রস্তুত বাঁশখালী উপজেলা প্রশাসন মাগুরায় নবনির্বাচিত শ্রীপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রাজনকে গণসংবর্ধনা প্রদান হোমনায় পরিবারতন্ত্র ভাঙতে চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়ে মাঠে নেমেছি-সিদ্দিকুর রহমান আবুল হাটহাজারীতে বাসচাপায় প্রাণ গেলো দুইজনের : চালক আটক আনোয়ারায় আনারস মার্কায় নিজে এবং আত্মীয়দের ভোট দিতে ও ভোট কেন্দ্র পাহারা দিতে বললেন কাজী মোজাম্মেল চন্দনাইশে এসে পৌঁছেছে নির্বাচনী সরঞ্জাম শিক্ষকদের দাবিতে দায়সারা প্রতিবেদনের অভিযোগ; অনাস্থা কুবি শিক্ষক সমিতির চন্দনাইশে অনুমোদনহীন মাছ বাজারে প্রশাসনের অভিযান ৬ মাছ ব্যবসায়ীকে ৯০ হাজার টাকা জরিমানা ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশের অভিযানে ৩ মাদক ব্যবসায়ি গ্রেফতার , মাদক উদ্ধার মিশ্র ফলের বাগান ও মৎস্য প্রকল্প করে সফল রাউজান পৌর কাউন্সিলর আজাদ  

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়সহ ৪ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর!

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৪ মার্চ, ২০২০
  • ১৩৭ বার

মোঃসাইফুল ইসলাম,কুমিল্লা :
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনসহ চার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে ১৫ লাখ ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর। অবৈধভাবে পাহাড় কাটায় গত বৃহস্পতিবার পরিবেশ অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম কার্যালয়ে শুনানি শেষে প্রতিষ্ঠানগুলোকে এ জরিমানা ধার্য করা হয়। রোববার পরিবেশ অধিদপ্তরের জরিমানার বিজ্ঞপ্তি থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

পরিবেশ অধিদপ্তরের এ সংক্রান্ত আদেশ সূত্রে জানা যায়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ব্যতীত পাহাড় কাটায় বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষণ আইন, ১৯৯৫ (সংশোধিত-২০১০)-এর ধারা-৭-এর পরিবেশ ও প্রতিবেশের ক্ষতিসাধনের জন্য কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়কে তিন লাখ পাঁচ হাজার টাকা, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স এ রহমান এন্টারপ্রাইজকে ৭৬ হাজার ২৫০ টাকা, স্টারলাইন সার্ভিসেস লিমিটেডকে তিন লাখ ৮১ হাজার ২৫০ টাকা, মেসার্স আব্দুর রাজ্জাককে তিন লাখ ৫ হাজার টাকা এবং জাকির এন্টারপ্রাইজ অ্যান্ড খোকন কনস্ট্রাকশনকে চার লাখ ৫৭ হাজার ৫০০ টাকা সাত কার্যদিবসের মধ্যে পরিশোধ করার জন্য বলা হয়। এছাড়া ভবিষ্যৎ উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের ক্ষেত্রে পরিবেশ অধিদপ্তরের পূর্বানুমতি গ্রহণ এবং এ ধরনের অপরাধ না করার জন্য অঙ্গীকারনামা দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হয়।

এর আগেও পরিবেশগত ছাড়পত্র না নিয়ে পাহাড় কাটায় কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়কে কারণ দর্শানোর নোটিস দিয়েছিল পরিবেশ অধিদপ্তর। আইনে পাহাড় বা টিলা কাটার জন্য ছাড়পত্রের বিধান থাকলেও তা না নিয়েই পাহাড়-টিলা কাটছিল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

উল্লেখ্য, গত ১৭ ফেব্রুয়ারী পরিবেশগত ছাড়পত্র না নিয়ে শিক্ষক ক্লাব কাম গেস্ট হাউস নির্মাণের জন্য পাহাড় কর্তন করায় কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয় পরিবেশ অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম কার্যালয়। এর আগেও একই কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তনের অনুষ্ঠানের প্যান্ডেল স্থাপনের জন্য পাহাড় কাটায় ৫ জানুয়ারী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয় পরিবেশ অধিদপ্তরের কুমিল্লা কার্যালয়। তারও আগে গত ০২ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের পশ্চিম পাশের পাহাড়ের একটি অংশ মেশিনের সাহায্যে কেটে ফেলা হয়। ওই মাটি দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে নির্মাণাধীন সড়কদ্বীপ ও ডরমিটরির নিচু স্থান ভরাট করে প্রশাসন। এসব বিষয়ে গত বছরের ৫ সেপ্টেম্বর এবং এ বছরের ৭ জানুয়ারি দৈনিক পত্রিকায় ‘ডরমিটরির বলি পাহাড়’ এবং ‘তবুও থেমে নেই পাহাড় কাটা’ শিরোনামে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

এবিষয়ে পরিবেশ অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম অঞ্চলের পরিচালক মোহাম্মদ মোয়াজ্জম হোসাইন বলেন, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে পাহাড় কর্তনের অভিযোগ এবং তদন্তের প্রেক্ষিতে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়সহ আরো চারটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে সর্বমোট পনের লক্ষ পচিশ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ প্রদানের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

জরিমানার বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. আবু তাহের বলেন, আমরা একটি চিঠি পেয়েছি। আপিল করবো। এছাড়া পাহাড়গুলোকে গার্ড ওয়াল দিয়ে এবং গাছ লাগিয়ে পাহাড়গুলো সংরক্ষণ করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম