1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
বাঘড়া ইউপি চেয়ারম্যানের হোম কোয়ারেন্টাইন কি গরীবের চাল চুরির রক্ষা কবচ? - দৈনিক শ্যামল বাংলা
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০১:১৯ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
নবীনগরে কোটাপদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল রাউজানে তিনদিন ব্যাপী বৃক্ষ মেলার উদ্বোধন রাউজানে ৬০ প্রজাতির ১ লাখ ৮০ হাজার ফলজ ও ঔষধি গাছের চারা রোপন কর্মসূচি উদ্বোধন মাগুরায় নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান শরিয়াতউল্লাহ হোসেন রাজনকে গণসংবর্ধনা প্রদান  *জরুরী রক্ত প্রয়োজন*রক্তের গ্রুপ: AB+ (এবি পজেটিভ) ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে চৌদ্দগ্রামে তিন ছাত্রলীগ নেতার পদত্যাগ কক্সবাজারে সাংবাদিকদের উপর আ’লীগ-ছাত্রলীগের হামলা সারাদেশে ছাত্রসমাজের উপর মর্মান্তিক হামলার প্রতিবাদ ও কোটা সংস্কারের এক দফা দাবিতে দোহাজারীতে বিক্ষোভ মিছিল  এমএসআর’র ১ কোটি ২৬ লক্ষ টাকা লুটপাট সমস্যায় জর্জরিত চট্টগ্রামের চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-অধিকাংশ চিকিৎসক অনুপস্থিত থাকেন নবীনগরে কুতুবিয়া দরবার শরীফে শাহাদাতে কারবালা মাহফিল অনুষ্ঠিত

বাঘড়া ইউপি চেয়ারম্যানের হোম কোয়ারেন্টাইন কি গরীবের চাল চুরির রক্ষা কবচ?

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৯ মার্চ, ২০২০
  • ১৬২ বার

শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ গত ২৯ মার্চ দৈনিক মুন্সীগঞ্জের খবর স্থানীয় পত্রিকায় শেষের পাতায় ”বাঘড়া ইউপি চেয়ারম্যান হোম কোয়ারেন্টাইনে” শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদটি শ্রীনগরের সুশীল সমাজসহ সচেতন মহলে হাস্যকর বিষয় হয়ে দাড়িয়েছে। সংবাদটি দেখে অনেকেই চোরের মার বড় গলা বলেও উল্লেখ করেছেন। সংবাদটির বিরুপ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন অনেকে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যক্তি বলেন, সদ্য বিদেশ ফেরত দাবীদার নুরুল ইসলাম চেয়ারম্যান গত ২৩ মার্চ ঢাকা থেকে এসে বাঘড়া বাজারে মাস্ক বিতরণ করলেন কি হোমকোয়ারেন্টাইন ভঙ্গ করে? নাকি হতদরিদ্রদের চাল বিতরণে অনিয়মের বিষয়টি প্রকাশ পাওয়ায়? এর মানি তিনি চাল বিতরণে অনিয়ম ও পরিমাপে কম দেওয়ার বিষয়টি ঢাকতে এখন রক্ষা কবচ হিসেবে নিজে হোম কোয়ারেন্টাইনের কথা উল্লেখ করছেন। বিষয়টি এখন শাক দিয়ে মাছ ঢাকার মত অবস্থা হয়েছে।
উল্লেখ্য যে, গত ২৬ মার্চ শুক্রবার বাঘড়া বাজারে ন্যাশনাল ব্যাংকের নীচে নূরুল ইসলাম চেয়ারম্যানের মার্কেটে হতদরিদ্রদের মাঝে সরকারি চাল বিতরণ করা হয়। ওই চাল বিতরণ কর্মসূচিতে ট্যাগ অফিসারের অনুপস্থিতে চেয়ারম্যান নুরুল ইসলামমের ছোট ভাই মুক্তি হোসেনের উপস্থিতিতে উপকারভোগীদের কাছ থেকে চালের ডিলার হোসেন আলী কার্ডধারীদের কাছ থেকে জনপ্রতি ৫০ টাকা করে আদায় করে। অন্যদিকে ওজনে চাল কম দেওয়া হয়। বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় নিউজ প্রকাশিত হয়। এলাকায় অভিযোগ রয়েছে ২০১৯ সালের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ২৪০ বস্তা চাল কালো বাজারে বিক্রির ঘটনা ঘটেছিল।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম