1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : naga5000 : naga5000 naga5000
করোনাভাইরাস নির্মূল ও প্রতিরোধক ঔষধী তৈল আবিষ্কারের দাবি সৈয়দ লিয়াকত আলীর - দৈনিক শ্যামল বাংলা
শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ০৩:০০ অপরাহ্ন

করোনাভাইরাস নির্মূল ও প্রতিরোধক ঔষধী তৈল আবিষ্কারের দাবি সৈয়দ লিয়াকত আলীর

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৭ এপ্রিল, ২০২০
  • ১১৩ বার

নিজস্ব প্রতিবেদক :
গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে ভাইরাল, ব্যাকটারাল, ফাংগালা ও ফ্লুয়েল জীবাণু সহ করোনা ভাইরাস নির্মূল ও প্রতিরোধক ২৭টি উপাদান দিয়ে ঔষধী তৈল আবিষ্কারের দাবী করছেন ভাটিয়াপাড়ার অভিজাত মার্কেটিং গ্রুপের চেয়ারম্যান সৈয়দ লিয়াকত আলী (পলাশ)।

অভিজাত মার্কেটিং গ্রুপ চেয়ারম্যান সৈয়দ লিয়াকত আলী (পলাশ) বলেন, দিনের পর দিন মানুষ ছুটে চলছে সৃষ্টির চেতনায়। যার ধারাবাহিকতায় সমাজ সংসার ও সংস্কৃতিতে যুক্ত হয়েছে হাজারো সৃষ্টিকর্ম। তেমনি আমিও গত ২০০০ সাল থেকে দেশের প্রচলিত তৈল বীজ ও ঔষধী গাছ গাছড়ার অতিত ইতিহাস নিয়ে কাজ করা শুরু করি। চিন্তা ছিল যে, কিভাবে আমাদের পূর্ববর্তীরা শরীরের রোগ চিকিৎসা করতো। প্রবীণ মানুষের সাথে আলাপ করে তাদের চিকিৎসা পদ্ধতির অদ্যপ্রান্ত থেকে আমি কিছু তথ্য উপাত্তের উপর নির্ভর করে শুরু করি পথ চলা। সৃষ্টির চেতনায় বিভোর থেকে আমার প্রথম আবিষ্কার আল-মদিনা কালো জিরার তৈল নিয়ে প্রায় ৩ বছর যাবৎ গ্রাম শহর পাড়া-মহল্লায় বিভিন্ন রোগাত্রুান্ত মানুষের মধ্যে মিশে কালোজিরার তৈলর চিকিৎসার পদ্ধতি প্রতিষ্ঠা করি। যে পদ্ধতি আজ শুধুমাত্র আমার কর্ম। এলাকায় নয় দেশ-বিদেশের মধ্যে শাস্ত্রিয় চিকিৎসা এনেছে। বৈল্পীবীক পরিবর্তন। বর্তমান দেশের ১৬টি জেলায় প্রায় তিন হাজার দোকানের মাধ্যমে আমার উদ্ভাবিত কালোজিরার তৈল ব্যবহার করেছেন প্রায় ১০ লাখ মানুষ, একই সাথে 30 টি পরিবারের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়েছে।

তিনি বলেন, বৈপ্লবিক সাড়া পেয়ে আমার পরবর্তী উদ্ভাবন অষ্টমঙ্গলা তৈল। আজ একই ভাবে বিভিন্ন রোগ চিকিৎসার চ্যালেঞ্জিং ঔষধ হিসেবে রাষ্টে প্রতিষ্ঠিত। আমার উদ্ভাবিত নিমের তৈল আজ রাষ্টের অহংকার রূপে আমার কর্ম এলাকায় প্রতিষ্ঠিত। খাঁটি সরিষার তৈল, তিলের তৈল ও মধু উৎপাদন এবং বাজারজাত করণে আমরা অঙ্গীকারবদ্ধ থেকে কর্ম এলাকায় সৃষ্টি করতে সক্ষম হয়েছি চাঞ্চলতা ও অর্জন করতে পেরেছি। বিস্বস্ততা। ঠিক এমন সময়ে চায়নার শুরু হয়েছে করোনা ভাইরাসের এর তান্ডব অগণিত মৃত্যুর মিছিল আজ চায়নার প্রান্তরে। অজস্র মানুষ এ রোগে আক্রান্ত। দিশেহারা হয়ে পড়েছে চায়নার সরকার, বসবাসকারী মানুষ। সমগ্র বিশ্বের মানুষের চরম আতংক গ্রস্থ হয়ে অসহায় দিনাতিপাত করছে। বিশ্বের ক্ষ্যতনামা প্রতিষ্ঠান ও বিজ্ঞানীরা উঠে পড়ে লেগেছেন করোনাভাইরাস প্রতিরোধ ও নির্মূলের কাজে। এই অবস্থার প্রেক্ষিতে আমি ও উদ্ভাবন করতে সক্ষম হয়েছি করোনা ভাইরাস নির্মূল ও ভাইরাস প্রতিরোধের ঔষধী তৈল। যা শুধুমাত্র শরীরের বাহ্যিক ব্যবহার করলে যে কোন ধরনের ভাইরাস নির্মূল ও প্রতিরোধ করা সম্ভব বলে আমি দাবি করছি। কেননা আমার আবিষ্কৃত এই ঔষধী তৈল ভাইরাল, ব্যাকটারাল, ফাংগাল ও ফ্লুয়েল জীবানু যুক্ত জ্বরকে (শুধুমাত্র বাহ্যিক) ব্যবহারের মাধ্যমে মাত্র ৩০ মিনিটে নির্মূল করা সম্ভব।

তিনি আরো বলেন, জ্বরের প্রকোপ থেকে মুক্তির পর গোসল করা শেষে রোগীর শরীরে আবার তৈলটি মালিশ করলে শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। যে কারণে কোনো প্রকার জীবাণু নতুন করে মানুষের শরীরে প্রবেশ করতে পারে না। একই সাথে শুকনো কাশি তরল হয়ে বেরিয়ে আসতে সাহায্য করে আমার এই ওষুধী তৈল। আমার বিশ্বাস এভাবেই করোনা ভাইরাস মুক্ত হবে সমগ্র বিশ্ব। আমি জানি যে আমার এই উদ্ভাবন মানুষের কোনো ক্ষতি করেনি বা করবে না। তবুও বিষয়টি হাতে-কলমে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে নিশ্চিত হওয়া গেলে আমার এই উদ্ভাবনই হবে বিশ্বের একটি ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া, ফাংগালা, ও ফ্লু নির্মূল এবং প্রতিরোধের একমাত্র ঝুঁকিমুক্ত ঔষধ। তাই আমার এই উদ্ভাবনিকে আলোকিত করতে সরকার বা সংশ্লিষ্ট সকল প্রতিষ্ঠানের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করছি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম