1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
লালমনিরহাটে লাম্ফি স্কিন ডিজিস রোগে আক্রান্ত হচ্ছে গরু - দৈনিক শ্যামল বাংলা
বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৫০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
বাঁশখালীতে মধ্যরাতে অগ্নিকান্ডে পুড়েছে চার দোকান ফাঁসিয়াখালী-মেদাকচ্ছপিয়া পিপলস ফোরাম (পিএফ) সাধারণ কমিটির সভা সম্পন্ন চৌদ্দগ্রামে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উদযাপন চৌদ্দগ্রামে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা ফের ৩দিন ক্লাস বর্জনের ঘোষণা কুবি শিক্ষক সমিতির নবীনগরে পৃথক মোবাইল কোর্ট অভিযানে সাড়ে ৪ লাখ টাকা জরিমানা দৈনিক আমাদের চট্টগ্রামের সম্পাদক মিজানুর রহমান চৌধুরী উপর হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী ঠাকুরগাঁওয়ে রানীশংকৈলে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মাঠে নেমেছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা তিতাসে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা শেরপুরে আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত

লালমনিরহাটে লাম্ফি স্কিন ডিজিস রোগে আক্রান্ত হচ্ছে গরু

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৭ জুন, ২০২০
  • ৯১ বার

ইব্রাহিম সাকিব, লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধি।।
লালমনিরহাট জেলার ৫টি উপজেলায় লাম্ফি স্কিন ডিজিস রোগে আক্রান্ত হচ্ছে গরু।

এদিকে কালীগঞ্জ উপজেলায় গত ১০দিনে ১শতাধিক গরু ও বাছুর আক্রান্ত হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে বলে জানা গেছে।

কালীগঞ্জ উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ের ভেটেনারি সার্জন ডাঃ ফেরদৌসুর রহমান জানান, কালীগঞ্জ উপজেলার প্রতিটি এলাকা থেকে এ রোগ সংক্রমণের সংবাদ আসছে। তিনি এ রোগের নাম লাম্ফি স্কিন ডিজিস বলে জানিয়েছেন। তবে মৃত্যুর ঝুঁকি কম বলে দাবি করেন তিনি।

এদিকে পবিত্র ঈদ উল আযহার আগে আকস্মিকভাবে লাম্ফি স্কিন ডিজিস রোগে হাজার হাজার গরু আক্রান্ত হয়ে পড়ায় গরু খামারীসহ কৃষকদের মাঝে চরম আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে, প্রথমে গরুর তীব্র মাত্রার জ্বর আসে এরপর আস্তে আস্তে সারা শরীরে চামড়ায় গোটা গোটা হয়ে যায়। গলাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে পানি নামে ফলে গরু ঘাস বা খর ও ভূষি কিছুই খেতে পারে না।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ে গিয়ে কোন প্রতিকার পাচ্ছে না গরু খামারীরা । ফলে পল্লী চিকিৎসকদের দ্বারস্থ হয়ে বিভিন্ন ধরনের ঔষধ ও ইনজেকশন দিলে কিছুটা উপকার হলেও তেমন কোন উল্লেখযোগ্য উপকার হচ্ছে না।

বিভাগীয় প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের তথ্যমতে, রংপুরের ৮টি জেলার প্রতিটি উপজেলায় এখন গরুর এই দূরারোগ্য ব্যাধি দেখা দিয়েছে। কোন প্রতিষেধক না থাকায় পালিত গরু নিয়ে দুশ্চিন্তায় দিন কাটাচ্ছেন এই অঞ্চলের মানুষ। অনেকে না বুঝেই পল্লী চিকিৎসককে মোটা অংকের টাকা দিয়ে হচ্ছেন ক্ষতিগ্রস্ত। তবে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর বলছে, একমাত্র সচেতন থাকাই এই রোগের প্রতিকার।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম