1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
খুটাখালীতে একদিনে পাগলা কুকুরের কামড়ে আহত-১০ - দৈনিক শ্যামল বাংলা
বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৫৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
ফাঁসিয়াখালী-মেদাকচ্ছপিয়া পিপলস ফোরাম (পিএফ) সাধারণ কমিটির সভা সম্পন্ন চৌদ্দগ্রামে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উদযাপন চৌদ্দগ্রামে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা ফের ৩দিন ক্লাস বর্জনের ঘোষণা কুবি শিক্ষক সমিতির নবীনগরে পৃথক মোবাইল কোর্ট অভিযানে সাড়ে ৪ লাখ টাকা জরিমানা দৈনিক আমাদের চট্টগ্রামের সম্পাদক মিজানুর রহমান চৌধুরী উপর হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী ঠাকুরগাঁওয়ে রানীশংকৈলে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মাঠে নেমেছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা তিতাসে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা শেরপুরে আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে নিয়ে স্ত্রীর পলায়ন

খুটাখালীতে একদিনে পাগলা কুকুরের কামড়ে আহত-১০

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১ জুলাই, ২০২০
  • ১১৩ বার

সেলিম উদ্দীন,কক্সবাজারঃ প্রবাদ আছে,ভাদ্র মাস এলে চতুষ্পদী জন্তু কুকুরের মধ্যে বয়স্ক কুকুর পাগল হয়ে যায়।আবার এই কুকুর অনেকেরই গৃহপালিত পশু।গ্রামের বাড়ীতে অন্ধকার রাতে চোরের উপদ্রব ঠেকাতে কুকুর গৃহভৃত্যের কাজ করে।

বর্তমানে বিশ্বব্যাপী অপরাধ ও অপরাধী সনাক্তকরণের জন্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কুকুর রাখতে দেখা যায়।
চলচ্চিত্রেও কাহিনী নির্মাণের প্রয়োজনে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কুকুরকে অভিনয় করতে দেখা যায়।

কথায় আছে- মানুষ মানুষের সাথে প্রতারণা করলেও কুকুর মনিবের স্বার্থ রক্ষা করেই চলে।

এই চতুষ্পদী জন্তুটির মধ্যে পাগল হয়ে যাওয়া কুকুর কাউকে কামড়ালে জলাতঙ্ক রোগ হয়।

এতে সময়মত অর্থ ও সুচিকিৎসার অভাবে মানুষের মৃত্যও হতে পারে।
অর্থাৎ কুকুর যেমন উপকারী তেমনি এর দ্বারা নিশ্চিত ভয়ংকর ক্ষতিও হতে পারে।
শস্য ফসলাদি পাহার দেয়া ও অপরাধী সনাক্ত করতে কুকুর পালন বৈধ হলেও ইসলাম ধর্মমতে কষ্টদায়ক ও পাগলা কুকুর মেরে ফেলতে নিষেধ নেই!

এই চতুষ্পদী জন্তুটির যত গুণই থাকুক না কেন পাগলা কুকুরের আতংক নিয়েই মানুষ রাস্তায় চলাফেরা করে।

চকরিয়া উপজেলার খুটাখালীর বিভিন্ন ওয়ার্ডে দেখা যায় দলবদ্ধভাবে কুকুরগুলো রাস্তায় দৌড়াদৌড়ি করে যেমন যানবাহনে দূর্ঘটনা ঘটায় তেমনি রাস্তার পথিকদেরও আতংকে থাকতে হয়।

বিশেষ করে রাস্তায় চলাচলের সময় নারী, কিশোরী ও ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা থাকে চরম আতংকে।

উপজেলার খুটাখালী বাজারের সর্বত্র বেওয়ারিশ কুকুরের এ দৃশ্য দেখা যায়।

তবে এই ইউনিয়নে একমাত্র পরিবার পরিকল্পনা হাসপাতালে কুকুর দ্বারা আক্রান্ত জলাতঙ্ক রোগীদের চিকিৎসার জন্য কোন ব্যবস্থা নেই।
বিভিন্ন ফার্মেসীতে চিকিৎসার ব্যবস্থা থাকলেও প্রায়ই ভ্যাকসিন সংকটের কথা শোনা যায়।

এলাকাবাসী মনে করে,বেওয়ারিশ ও পাগলা কুকুরের উৎপাত হতে আতঙ্কগ্রস্ত রাস্তার সকল বয়সের পথিকের নিরাপদ চলাচলে এ অবস্থার অবসান হওয়া উচিত। চকরিয়া উপজেলা প্রশাসন ও পশু সম্পদ কার্যালয় দ্রুত জনস্বার্থে এগিয়ে আসা প্রয়োজন।

১ জুলাই বুধবার সন্ধ্যায় ইউনিয়নের ৪,৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডে পাগলা কুকুরের কামড়ে একদিনে ১০ জন আহত হয়েছেন। তবে তাৎক্ষনিক আহতদের পরিচয় পাওয়া যায়নি। এদিন বিকাল থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা বাজারের বিভিন্ন চিকিৎসকের নিকট চিকিৎসা নিয়েছেন।

এদিকে এলাকায় বেওয়ারিশ কুকুরের উপদ্রব বেড়ে যাওয়ায় লোকজন আতঙ্কে রয়েছে।

ইউনিয়নের দক্ষিন পাড়ার বাসিন্দা একেএম জুলকারনাইন বলেন, বিকাল থেকে পাগলা কুকুরটি আমাদের গ্রামে আসে।
স্কুল বন্ধ থাকায় শিশুরা রাস্তায় খেলাধুলা করছে, আবার অনেকে বেড়াতে বের হয়।
ওই কুকুরটি কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই আমাদের এলাকার বেশ ক’জনকে কামড়ায়। এলাকার লোকজন ওই কুকুরটিকে ধাওয়া করছে মেরে ফেলার জন্য।

খুটাখালী বাজারের চিকিৎসক জহির আহমদ বলেন, বিকাল থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত কমপক্ষে ৮/১০জন চিকিৎসা নিতে আসে। আহতরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়িতে চলে গেছে। তবে অধিকাংশ কুকুরের কামড়ে আহতরা দরিদ্র হওয়ায় ভ্যাকসিন কিনে পুশ করতে বেগ পেতে হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম