রামগড়ে ভূঁতুড়ে বৈদ্যুতিক বিল বন্ধের দাবিতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন - শ্যামল বাংলা ডট নেট

রামগড়ে ভূঁতুড়ে বৈদ্যুতিক বিল বন্ধের দাবিতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

রামগড় (খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধি:

শেয়ার করুন
  • 336
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    336
    Shares

জেলার রামগড় বিদ্যুৎ বিভাগের জন্য সরকারের সাফল্য ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ কর্মসূচি ভেস্তে যেতে বসেছে দাবী করে সচেতন এলাকাবাসীর ব্যানারে অতিরিক্ত বিদ্যুৎ বিল, কাল্পনিক বিদ্যুৎ বিল করায় ক্ষতিগ্রস্থ গ্রাহকরা মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে।

রবিবার বেলা ১২টায় রামগড় বাজারের মূল সড়কে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। মানববন্ধনে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, রামগড় বিদ্যুৎ অফিস কোনপ্রকার মিটার পর্যবেক্ষন না করে বছরের পর বছর বিদ্যুৎ বিল করে যাচ্ছে। যার ফলে বেশিরভাগ বিদ্যুৎ গ্রাহকদের মিটারের রিডিং থেকে বেশি রিডিংয়ে বিল দেয়া হচ্ছে। কোন কোন সময় ভুঁতুরে বিদ্যুৎ বিলও দেয়া হচ্ছে। প্রতিকারের জন্য বিদ্যুৎ অফিসে গেলেও এর সমাধান পাওয়া যায়না। বরং পরের মাসে আরো বিল বাঁড়িয়ে বিল দেয়া হচ্ছে।

উপজেলার ২নং পাতাছড়া ইউনিয়নের সাবিনা ইয়াছমিন নামে এক ক্ষুদ্র মহিলা উদ্ধোক্তা একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের সহায়তায় ছোট পরিসরে একটি মুরগি খামার গড়ে তুলেন। কিন্তু মাস শেষে মিটারের অতিরিক্ত বিল তাকে ধরিয়ে দেয়া হয়েছে। বিল দিতে অপরাগতা দেখালে তিনিসহ আরো প্রতিবেশী ৬টি পরিবারকে বিদ্যুতের মামলার হুমকি দিলে ভুক্তভোগীরা বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত অভিযোগ করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার উপজেলা সমবায় কর্মকর্তাকে অভিযোগটির তদন্তের দায়িত্ব দিলে তিনি তদন্তের পর ঘটনার সত্যতার প্রতিবেদন জমা দেন। একি অভিযোগ করেন ঐ এলাকার নুরুল আলম নামে আরেক ভুক্তভোগী পরিবার। এছাড়া পৌরসভার দারোগাপাড়া এলাকার ষাটউর্ধ বিধবা মহিলা উপজেলা নির্বাহী অফিসাররের কার্যালয়ে আরো একটি অভিযোগ করেন। অপর দিকে পূর্ব চৌধুরী পাড়া মসজিদ পরিচালনা কমিটি নিয়মিত বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করার পরও ১ লক্ষ ৬৩ হাজার ৩৭৫ টাকা কাল্পনিক ও হয়রানি মূলক বিদ্যুৎ বকেয়া বিল করার অভিযোগ করেন। ফিরাজা বেগম নামে এক দরিদ্র বয়স্ক মহিলা জানান, একবছর আগে যেখানে তার বিল আসতো ১৫০-২০০টাকা এখন সেখানে আসছে ১১০০-১২০০টাকা যা তার পক্ষে কখনও দেয়া সম্ভব নয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বিদ্যুৎ বিভাগকে অতিরিক্ত বিল ও ভূঁতুড়ে বিল বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানান অন্যথায় আগামীতে কঠোর কর্মসূচী দেয়ায় ঘোষণা দেন।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, মো. সহিদুল ইসলাম রিমন, এছাক মিয়া, ফিরোজা বেগম, মো. জাহাঙ্গির, মো. ফারুক, মো: রবিন ও মো. রায়হান প্রমুখ।


শেয়ার করুন
  • 336
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    336
    Shares
  •  
    336
    Shares
  • 336
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.