কিশোরগঞ্জ পৌর নির্বাচন: বিজয়ের সম্ভাবনা দেখছেন বিএনপির প্রার্থী হাজী ইসরাইল - শ্যামল বাংলা ডট নেট

কিশোরগঞ্জ পৌর নির্বাচন: বিজয়ের সম্ভাবনা দেখছেন বিএনপির প্রার্থী হাজী ইসরাইল

তন্ময় আলমগীর, কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি:

শেয়ার করুন
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    5
    Shares

দ্বিতীয় ধাপে আগামী ১৬ই জানুয়ারি অনুষ্ঠেয় কিশোরগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে প্রধান দুই রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপি মনোনিত প্রার্থীরা ঘুরছেন ভোটারদের দুয়ারে দুয়ারে। প্রত্যেক প্রার্থীই দোয়ার আবেদন করছেন, চাচ্ছেন ভোট।

কিশোরগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান মেয়র মাহমুদ পারভেজ। একই দলের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে আছেন শফিকুল গণি ঢালি লিমন। অন্যদিকে বিএনপির মনোনয়ন পেয়েছেন জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সদর উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব হাজী মো. ইসরাইল মিঞা। প্রধান দুই দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মনোনয়ন চূড়ান্ত হওয়ার পর দুই প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে উচ্ছ্বাস ভাব লক্ষ্য করা গেছে। এখন ভোটের লড়াই নিয়ে দু’শিবিরেই চলছে স্নায়ুযুদ্ধ।

এ ক্ষেত্রে অনেকটাই এগিয়ে আছেন বিএনপির প্রার্থী হাজী মো. ইসরাইল মিঞা। অনেকেই মনে করেন, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সদ্য সাবেক হওয়া কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শফিকুল গণি ঢালী লিমনের জনসম্পৃক্ততার কারণে সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছেন। তিনি আওয়ামী লীগের অধিকাংশ ভোট পাবেন। আওয়ামী লীগের মধ্যে এই ভাগ হয়ে যাওয়াতেই বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনা দেখছেন হাজী ইসরাইল।

মেয়র পদে বিএনপির প্রার্থী হাজী মো. ইসরাইল মিঞা কিশোরগঞ্জের রাজনীতিতে এক আলোচিত মুখ। তার দলীয় মনোনয়নের ক্ষেত্রে জেলা ও পৌর বিএনপি ছিল একাট্টা। হাজী ইসরাইল মিঞার দলীয় মনোনয়নের আবেদন ফরমে মেয়র প্রার্থী হিসেবে তার নাম সুপারিশ করেন জেলা বিএনপির সভাপতি মো. শরীফুল আলম, সাধারণ সম্পাদক মো. মাজহারুল ইসলাম, পৌর বিএনপির আহ্বায়ক মো. আমিনুল ইসলাম আশফাক, সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক মো. মাহবুবুল আলম ও যুগ্ম আহ্বায়ক হানিফউদ্দিন আহম্মদ রনক।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, হাজী ইসরাইল মিঞা ছাত্রজীবন থেকেই বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে সক্রিয়ভাবে জড়িত। বিএনপির প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে তিনি তার নেতাকর্মীদের নিয়ে মাঠে সক্রিয় ছিলেন। এর জন্য তাকে অসংখ্য মামলা, হামলা ও বিভিন্ন সময়ে কারাবরণের শিকার হতে হয়েছে।

বিএনপির দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার পর হাজী মো. ইসরাইল মিঞা বলেন, আধুনিক বসবাসযোগ্য পৌর এলাকা বিনির্মাণে আমার ২২টি সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা রয়েছে। এসব বাস্তবায়নে নির্বাচনে পৌরবাসী সকলের দোয়া, ভালোবাসা, সমর্থন, সহানুভূতি ও সহযোগিতা প্রত্যাশা করছি।


শেয়ার করুন
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    5
    Shares
  •  
    5
    Shares
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.