চৌদ্দগ্রামে হত্যার উদ্দেশ্য প্রভাষক মঞ্জুর উপর হামলা, দোকান ভাংচুর ও লুটপাট

মুহা. ফখরুদ্দীন ইমন, চৌদ্দগ্রাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি:

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের উজিরপুর ইউনিয়নের বেলঘরে পারিবারিক জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে হত্যার উদ্দেশ্যে আপন বড় ভাইয়ের নেতৃত্বে কাশিনগর ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক মো: আরিফুর রহমান মঞ্জুর উপর সন্ত্রাসী হামলা করা হয়েছে।

হামলাকালে সন্ত্রাসীরা উপজেলার উজিরপুর ইউনিয়নের চাঁন্দুল-কোমারডোগা সড়কের মাথায় অবস্থিত প্রভাষক মঞ্জুর মালিকানাধীন “মেসার্স কালাম ট্রেডার্স” নামীয় একটি দোকানঘরের ভাড়াটিয়াদের উচ্ছেদের উদ্দেশ্যে ভাংচুর ও মালামাল লুটপাট করে। হামলার ঘটনায় প্রায় পাঁচ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধিত হয় বলে জানা গেছে। হামলায় আরিফুর রহমান মঞ্জু গুরুতর আহত হন। এসময় সন্ত্রসীরা মঞ্জুর গলা চেপে ধরে তাকে শ্বাসরোধে হত্যাচেষ্টা করে৷ এঘটনায় প্রভাষক মঞ্জু বাদী হয়ে চৌদ্দগ্রাম থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন৷

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) ভোর ছয়টায় পূর্ব পরিকল্পিতভাবে স্থানীয় বেলঘর গ্রামের মৃত দেলোয়ার হোসেনের ছেলে মো: মোছাদ্দেক হোসেন ছোটন (৪৫) এর নেতৃত্বে অজ্ঞাতনামা আরো ৪-৫ জন সন্ত্রাসী মেসার্স কালাম ট্রেডার্সে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট চালায়। এতে বাধা প্রদান করলে সন্ত্রাসীরা দোকানের জায়গার মালিক প্রভাষক মঞ্জুর উপর হামলা চালায় এবং তাকে শ্বাসরোধে হত্যার চেষ্টা করে। পরে স্থানীয়রা ও পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করে চিকিৎসা দেন।

এবিষয়ে জানতে চাইলে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো: আব্দুল হাই বলেন, “প্রভাষক মঞ্জুর উপর হামলার ঘটনা লোক মারফত শুনেছি। দীর্ঘদিনের পারিবারিক জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রভাষক মঞ্জুর উপর হামলা ও দোকানঘর ভাংচুর করা হয়েছে। উভয় পক্ষ চাইলে সামাজিকভাবে বিষয়টির সমাধান করা হবে”।

এবিষয়ে চৌদ্দগ্রাম থানার এসআই প্রতুল দাস বলেন, “মিয়াবাজারের হামলার ঘটনার অভিযোগটি তদন্তের দায়িত্ব আমাকে দেয়া হয়েছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও বিস্তারিত জেনে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে”।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.