চট্টগ্রামের ইটভাটা বৈষম্যের স্বীকার প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনায় মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক

শেয়ার করুন
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

সারাদেশে ইটভাটার কাযর্ক্রম চলমান থাকলেও শুধু মাত্র চট্টগ্রাম ইটভাটা বৈষম্যের স্বীকার । ১ মার্চ দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে চট্টগ্রাম জেলা ইট প্রস্তুতকারক মালিক সমিতির মানববন্ধনে এই অভিযোগ করেন ইটভাটার মালিকরা।
বক্তারা বলেন, চট্টগ্রামে সরকারের উন্নয়ন প্রকল্প গুলি ইট নির্ভর।ইটভাটা বন্ধ করে দিলে চলমান উন্ননয় বাধাগ্রস্থ হবে। দেশের অর্থনীতিতে প্রভাব পড়বে। এই সব শ্রমিক বেকার হয়ে যাবে। যার ফলে দেশের আইন শৃঙ্খলা অবনতি ঘটবে। আধুনিক বাংলাদেশের স্বপ্ন ভেংগে যাবে ।ক্ষতিগ্রস্থ ও ঋণগ্রস্থ হবে মালিক ,শ্রমিক ও তাদের পরিবার ।
বক্তারা অারো বলেন,ইটভাটা উচ্ছেদের ফলে ২৮০টি ইটভাটার মধ্যে ১০২ টি গুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এই ইটভাটা নিভে যাওয়া আগুনে নিভে যেতে বসেছে এই পেশায় সংশ্লিষ্ট কয়েক লক্ষ পরিবার। এই সব পরিবাবের ভবিষ্যত অন্ধকার দেখছেন। আয়ের উৎস বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আত্মহত্যার মত কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহবান জানিয়ে বক্তারা বলেন, দেশের আইন মেনে ,পরিবেশ আইন অনুযায়ী লাইসেন্স ও ছাড়পত্র নিয়ে ইটভাটা চালাতে চাই ,লক্ষ লক্ষ শ্রমিকের আহারের যোগান দিয়ে ব্রিক ইন্ডাস্ট্রিজের মাধ্যমে দেশের উন্নয়নে অবদান রাখতে চাই।দেশের অবকাঠামো উন্নয়নে ইটের বিকল্প কোন কিছু বাজারে নেই,তাই ইটভাটা গুড়িয়ে দিলে সব সমস্যা সমাধান হবে না।সরকারি আইন মেনে পরিবেশ সম্মত এই বৃহত শিল্পে যারা বিনিয়োগ করেছেন,আপনি তাদের বাচাঁন। আপনি চাইলে এই শিল্প বাচঁবে।
মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল মালেক হাজী মো: সিরাজ উদ্দীন চৌধুরী,মো: আজিজুল হক, মো: সাইফুল ইসলাম, আবিদ হোসাইন, আবদুর রহিম।


শেয়ার করুন
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares
  •  
    2
    Shares
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.