বাংলাদেশ ভুমিহীন আন্দোলনের নেতা শ্রী কৃপাস রায়কে ষড়যন্ত্রমুলক মিথ্যা চাঁদাবাজির মামলায় গ্রেফতার ও হাজতবাসের প্রতিবাদে দিনাজপুর সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত

রফিকুল ইসলাম ফুলাল দিনাজপুর প্রতিনিধি :
বাংলাদেশ ভুমিহীন আন্দোলনের নেতা শ্রী কৃপাস রায়কে ষড়যন্ত্রমুলক মিথ্যা চাঁদাবাজির মামলায় ফাঁসিয়ে গ্রেফতারের প্রতিবাদে দিনাজপুর সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে বিরল থানা পুলিশের বিরুদ্ধে তদন্ত না করেই মিথ্যা সাজোনো মামলা গ্রহনের অভিযোগ।

১৫ মার্চ সোমবার সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বাংলাদেশ ভুমিহীন আন্দোলনের দায়িত্বপ্রাপ্ত রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক স্বপন ভুইঁয়া আয়োজনে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন,বাংলাদেশ ভুমিহীন আন্দোলন েেদশের কৃষক,শ্রমিক,মেহনতি মানুষ ও ভুমিহীন জনগনের অধিকার আদায়ে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ একটি সংগঠন। জনগনের সাংবিধানিক অধিকার ও সরকার প্রদত্ত সুবিধাদির ন্যায্য প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে আন্দোলন সংগ্রাম চালিয়ে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় দিনাজপুর জেলায় অনেকদিন ধরেই সাংগঠনিক কার্য্যক্রম চালাচ্ছে। গত জানুয়ারী মাসের শেষ সপ্তাহে আজিমপুর ইউনিয়নের ওয়ার্ড কাউন্সিলর নাজমুল ওই ইউনিয়নের ভুমিহীন আন্দোলনের সদস্য সচিব শ্রী কৃপাস রায়ের সাংগঠনিক কাজ নিয়ে প্রশ্ন তোলেন এবং তাকে এক পর্যায়ে ইউনিয়ন কার্য্যালয়ে তলব করেন।

সংগঠনের বিরল উপজেলা আহবায়ক জাহাঙ্গীল আলম ও ইউনিয়ন সদস্য সচিব কৃপাস রায় তখন চেয়ারম্যানকে সংগঠনের গঠনতন্ত্রসহ যাবতীয় কাগজপত্র দেখান এবং বিষয়টির সুষ্ঠ সমাধান করেন। এরপরে বিরল উপজেলা নেতৃবৃন্দের সিদ্ধান্তের আলোকে গত ১৭ ফেব্রুয়ারী সিঙ্গুল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। গত ৪ মার্চ কৃপাস রায় আজিমপুর ইউপি‘র শ্যামপুর গ্রামের কাঠালতলী মোড়ে সংগঠনের সদস্যদের সাথে সাংগঠনিক আলাপচারিতার সময় রবি মেম্বারের নেতৃত্বে কিছু লোক তাকে চাঁদাবাজ হিসেবে ঘেরাও করে এবং পুলিশ ডেকে গ্রেফতার করায় এবং জোরপূর্বক অন্যান্য সদস্যদেরকে কৃপাস রায়ের বিরুদ্ধে স্বাক্ষ্য দিতে বাধ্য করে। ওইদিন রাতেই পুলিশ তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে থানা হাজত এবং পরের দিন ৫ মার্চ জেল হাজতে প্রেরন করে। যার মামলা নং ০৮/৬০ তাং ০৫/০৩/২১ইং।

এরপর আমরা সংগঠনের পক্ষ হতে জেলা কমিটির নেতৃবৃন্দের সহায়তায় তাকে ৮ই মার্চ/২১ ওই মিথ্যা মামলা থেকে দিনাজপুর বিরল আদালতের বিজ্ঞ বিচারকের নিদের্শনার মাধ্যমে জামিনে মুক্ত করেছি। আমরা জানি কেনো তাকে ষড়যন্ত্রমুলক মিথ্য মামলায় ফাঁসানো হয়েছে। আজিমপুর এলাকার ভুমিদস্যু স্বার্থানেষীরা খাষজমি ভোগদখলের জন্যে ভুমিহীনদের কন্ঠরোধের অপচেষ্টা শুরু করেছে আমরা এসব চক্রান্ত প্রতিহত করবই।

লিখিত বক্তব্যে তারা আরো বলেন, দিনাজপুরের বিরল উপজেলার ১ নং আজিমপুর ইউনিয়নের শ্যামপুর এলাকায় প্রায় ৩ শত বিঘার অধিক খাসজমি এলাকার ভুমিদস্যু প্রভাবশালী পরিবারের সদস্যরা দূর্নীতিবাজ ভুমি অফিসের কর্মকর্তা ও কর্মচারী ও স্থানীয় জন প্রতিনিধিদেরকে ম্যানেজ করে দীর্ঘদিন ধরে ভোগদখর করে আসছে। প্রকৃত ভুমিহীন মানুষ যাতে একত্রিত হতে না পারে সেজন্যেই কৃপাস রায়দের মত ভালো মানুষদের মিথ্যা সাজানোমুলক মামলায় ফাঁসানোর মাধ্যমে অন্যদের ভয় দেখানোর অপচেষ্টা চালানো হচ্ছে যা কোনোদিনও দমানো সম্ভব হবে না। আমরা সংগঠনের পক্ষ হতে এধরনের কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ করছি সেই সাথে হুসিয়ার করছি নিরীহ মানুষদের ফাঁসানোর চেষ্টা করা হলে সাংগঠনিক তীব্র আন্দোলনের মাধ্যমে এধরনের অপচেষ্টা রুখে দেয়া হবে।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, বাংলাদেশ ভুমিহীন আন্দোলনের দায়িত্বপ্রাপ্ত রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক স্বপন ভুইঁয়া। এসময় উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ভুমিহীন আন্দোলন জেলা শাখার সহ-সভাপতি মো: খালিদ হোসেন,সদর শাখার সা: সম্পাদক রফিকুল ইসলাম,বিরল আজিমপুর শাখার আহবায়ক শুকরু চন্দ্র রায়,সদস্য সত্যেন চন্দ্র রায় ও মিথ্যা মামলায় সদ্য জামিনে মুক্ত হওয়া কৃপাস রায় প্রমুখ।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.