বিচারকের কক্ষে ভাইকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা, আসামির ফাঁসি

কুমিল্লা প্রতিনিধি

কুমিল্লায় বিচারকের খাস কামরায় বিচারকের সামনে এক আসামিকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় এক যুবককে ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত। সোমবার কুমিল্লা জেলা ও দায়রা জজ আতাবুল্লাহ এ আদেশ দেন। আসামি মো.হাসান (২৩) কুমিল্লার লাকসাম উপজেলার ভোজপাড়া গ্রামের শহিদুল্লাহর ছেলে। সাত কার্যদিবস বিচার কার্য পরিচালনার পর এ রায় ঘোষণা করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট জহিরুল ইসলাম সেলিম।

সূত্র জানায়,২০১৯ সালের ১৫ জুলাই সকালে কুমিল্লার ৩য় আদালতে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজের এজলাস কক্ষে একটি সাক্ষ্য গ্রহণ চলাকালে ফাঁসির দন্ড প্রাপ্ত আসামি মো. হাসান চাকু উঁচিয়ে ফারুক (২৪)-কে ধাওয়া করে। ফারুক সম্পর্কে হাসানের মামাতো ভাই। দুজনেই অপর একটি হত্যা মামলার হাজিরা দিতে আদালতে অবস্থান করছিল।

এসময় আত্মরক্ষার্থে ফারুক এজলাসের মধ্য দিয়ে দৌড়াতে থাকে। হাসানও তাকে ধাওয়া করে ছুরিকাঘাতের চেষ্টা করে। একপর্যায়ে বিচারকের খাস কামরায় ঢুকে পড়ে ফারুক। সেখানে ঢুকে হাসান তাকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করতে থাকে। কোতয়ালি থানা পুলিশ ও আদালতের লোকজন তাকে যতক্ষণে আটক করে, ততক্ষণে মারাত্মক জখম হয় ফারুক। ফারুককে আহত অবস্থায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে তার মৃত্যু হয়। ফারুক মনোহরগঞ্জের কান্দি গ্রামের ওহিদুল্লাহর ছেলে। এ ঘটনায় কুমিল্লার বাঙ্গরা বাজার থানার এএসআই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ফিরোজ আহমেদ কোতয়ালি মডেল থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করেন। ওই বছরের ১৮ আগস্ট কুমিল্লা আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা পুলিশ পরিদর্শক প্রদীপ মন্ডল।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.