সরকারের লাখ লাখ টাকার সম্পদ খাচ্ছে ঘুন পোকা

এম,এ মান্নান, কুমিল্লা বিশেষ প্রতিনিধি

তদারকি ও কর্তৃপক্ষের রক্ষণাবেক্ষণের অবহেলার কারণে লাকসাম-নোয়াখালী রেলপথের দৌলতগুন্জ রেলস্টেশনের রেলওয়ে বনায়নের শতবর্ষের গাছগুলো মরে কংকালে মত দাঁড়িয়ে রয়েছে।সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অবহেলায় রেলওয়ে বিভাগের লাখ লাখ টাকার সম্পদ নষ্ট হচ্ছে। অভিযোগ রয়েছে, এসব গাছে মড়ক দেখা দিলে রেল কর্তৃপক্ষ যেমন প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়নি, তেমনি মরে যাওয়ার পর দীর্ঘ দিনেও গাছগুলো কাটার ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। বর্তমানে গাছগুলোর ডালপালা ভেঙে ভেঙে পড়ছে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে।

জনবহুল এলাকায় যখন-তখন ভেঙে পড়ে তাতে দুর্ঘটনা ঘটারও আশঙ্কা রয়েছে বুধবার দৌলতগুন্জ রেলওয়ে স্টেশন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে এ চিত্র।
জানাযায়, লাকসাম দৌলতগুন্জ রেল স্টেশনে জায়গায় শতবর্ষের পুরনো লাখ লাখ টাকার মূল কয়েকটি দেশি প্রজাতির গাছ রয়েছে।অনেক গাছের নিচে মার্কেট ও বিভিন্ন অস্থায়ী দোকানও গড়ে উঠেছে। হর্কাস মার্কেট মাছ বাজারের সামনে প্রায় শতবছরে পুরনো দুটি দেশি প্রজাতির রেইনট্রি গাছ দেড়-দুই বছর ধরে মরে কংকাল মত দাড়িয়ে আছে। তবে কী কারণে এভাবে লাখ লাখ টাকার মূল গাছগুলি মরে গেল, তারও সন্তোষজনক জবাব পাওয়া যায়নি। এছাড়াও মৃত গাছগুোর নিচে জীবনের ঝুকি নিয়ে চলছে ব্যবসা বানিজ্য। মরে যাওয়া গাছগুলোর কোনোটিতে ঘুণে ধরেছে, কোনোটিতে আবার বাসা বেঁধেছে কাঠপোকা। মরা গাছগুলোর ডালপালা ভেঙে ভেঙে পড়ছে ব্যবসা প্রতিষ্টানে। তাতে দুর্ঘটনা ঘটারও আশঙ্কা রয়েছে। মৃত অবস্থায় পচন ধরায় এবং সময়মতো না কাটতে পারায় নষ্ট হচ্ছে সরকারের লাখ লাখ টাকার সম্পদ।হারাচ্ছে রাজস্ব আয়।গাছগুলো দীর্ঘদিন আগে মারা গেলেও কর্তৃপক্ষ এসব কাটার ব্যাপারে উদ্যোগ নিচ্ছে না বলে ব্যবসায়ী ও এলাকার বসবাসকারী জানান।

ওই এলাকার বাঁশ ব্যবসায়ী সিরাজুল ইসলাম বলেন, এ গাছগুলো অনেক পুরোনো এখানে আমার বাবাও ব্যবসা করতেন। দেড়-দুই বছর ধরে গাছগুলো সম্পূর্ণ মরে গেছে। গাছের কাণ্ডের ছাল খসে পড়ছে। গাছগুলো যখন-তখন ভেঙে পড়ে হতাহতের ঘটনা ঘটতে পারে।রেল কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা না নিলে জনবহুল এলাকার মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।
এ বিষয় মুঠোফোন জানতে চাইলে লাকসাম রেলওয়ে আইডব্লিউ আতিকুর রহমান বলেন, আমার দপ্তরে লোকবল কম থাকায় ওই এলাকায় যাওয়া হয়নি। যে গাছগুলি মরে গেছে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করবো। আশা করি খুব দ্রুত এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়া সম্ভব হবে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.