বুধবার, ১৬ Jun ২০২১, ০৪:২৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
হত্যাকান্ডের ৯ দিন পর খুনিকে গ্রেপ্তার করেছে র্্যাব মাগুরা শ্রীপুরের জনপ্রিয় শিক্ষক আমিরুজ্জামান সেলিমের ইন্তেকাল বাকলিয়ার সন্ত্রাসী এয়াকুবসহ চিহ্নিত অস্ত্রধারীদের গ্রেফতার দাবি চট্টগ্রামে বায়েজিদ লিংক রোডে ঝুঁকিপূর্ণ ভাবে পাহাড়ের বসতিদের উচ্ছেদ অভিযান শুরু পরীমণিকে ধর্ষণচেষ্টায় নাসির উদ্দিন গ্রেফতার রাউজানের গণি পাড়ার মেয়ে কিংবদন্তি শাবানার গ্রামের বাড়িতে বছরে পর বছর ঝুলছে তালা র‌্যাব ক্যাম্পের অভিযান : দুই মাদক কারবারি আটক সদ্য নবনির্বাচিত দিনাজপুর চেম্বারের রেজা হুমায়ুন ফারুক চৌধুরী (শামীম) পরিষদের বিজয়ীদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানালো পরিবেশক সমিতি দিনাজপুর কোম্পানীগঞ্জে সিএনজি ধর্মঘটের ঘোষণা পৌর মেয়র কাদের মির্জা’র চট্টগ্রামের বাকলিয়ার এয়াকুব আলী বাহিনীর চিহ্নিত অস্ত্রধারীদের অস্ত্র উদ্ধারের দাবিতে সাংবাদিক সম্মেলন

বিশুদ্ধ পানির অভাবে বাড়ছে ডায়রিয়ার প্রকোপ

নইন আবু নাঈম, বাগেরহাটঃ

বাগেরহাটের শরণখোলায় বিশুদ্ধ পানির অভাবে বাড়ছে ডায়রিয়ার প্রকোপ। (১এপ্রিল) থেকে ডায়রিয়া আক্রান্ত হয়ে শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শতাধিক রোগী ভর্তি হয়েছে । এদের মধ্যে শিশু সহ ৫৪ জন বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি আছে। বাকিরা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন । তবে, আক্রান্ত’র সংখ্যা প্রতিদিন বাড়ছে। ৫০ সজ্জা বিশিষ্ট হাসপাতালে শয্যা সংখ্যা কম থাকায় রোগীদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে মেঝেতে রেখে । নেই স্বাস্থ্যসম্মত পরিবেশ,স্বাস্থ্যবিধি মানার বালাই। হঠাৎ করে রোগীর চাপ বেড়ে যাওয়ায় চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

৫০ শয্যা শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডায়রিয়া ওয়ার্ডের সংখ্যা ১ টি। গত৯ দিনে ডায়রিয়া আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধিন আছে ৫৪জন । এছাড়া এর আগে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৫০ জন । হাসপাতালে শয্যা সংখ্যা কম থাকায় অন্যান্য রোগী নিয়ে প্রায় তিনশত রোগী ভর্তি রয়েছে। যার মধ্যে অনেক রোগীর স্বাস্থ্যসম্মত পরিবেশে থাকা হচ্ছেনা । থাকতে হচ্ছে হাসপাতালের মেঝেতে । এর ফলে বিছানাসহ প্রয়োজনীয় জিনিপত্রের আভাবে নানা দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে রোগী ও তাদের স্বজনদের । গত এক সপ্তাহ ধরে প্রতিদিনই বাড়ছে রোগীর সংখ্যা।

হাসপাতালের স্বাস্থ্য সেবিকা (নার্স) জহুরা বেগম জানান, জনবল কম থাকায় এতো রোগীদের সামলাতে আমরা হিমশিম খাচ্ছি। হাসপাতালের সামনের ওষুধ ব্যবসায়ী (কেমিস্ট) নাজমুল আহসান শিমুল গাজী বলেন,ব্যাপক হারে বাড়ছে ডায়রিয়া রোগী । আমাদের কাছে ওষুধ নিতে আসা রোগীদের মধ্যে ২০ থেকে ২৫% ডায়রিয়া রোগী আসে সিপ্র ও মেট্র আইভি নিতে। বাকি স্যালাইন হাসপাতালেই সাপ্লাই রয়েছে।

শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের (আরএমও) ডাক্তার ফয়সাল আহম্মদ বলেন,শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বর্তমানে ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা অনেক বেড়ে গিয়েছে । এর কারণ হচ্ছে এলাকায় সুপেয় পানির অভাব রয়েছে । ডায়রিয়া যেহেতু পনিবাহিত রোগ তাই এলাকার মানুষ বিশুদ্ধ পানি না পাওয়ায় ডায়রিয়ার প্রকোপ বেড়ে গেছে । এজন্য স্থানীয়দের পানি সমস্যা সমাধানে ভুমিকা রাখতে হবে ।

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
Design & Developed BY TechPeon.Com