সোমবার, ২১ Jun ২০২১, ০১:১২ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
জুলাই থেকে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানী ২০ হাজার টাকা মৌলভীবাজার জেলা সদর উপজেলা ১২ নং গিয়াসনগর ইউনিয়ন নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সৈয়দ গৌছুল হোসেন জনপ্রিয়তায় এগিয়ে। ভোলায় প্রধানমন্ত্রীর ঘর পেলেন ৩৭১ ভূমিহীন পরিবার নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে ৬০০ পিচ ইয়াবা সহ আটক ২ নজরপুর ইউনিয়নে জনমত জরিপে এগিয়ে যুবলীগ নেতা জহিরুল ইসলাম জহির মুজিববর্ষের উপহার : ভূমিসহ ঘর পেলো হাটহাজারীর ২৬ পরিবার একাধিক হত্যা মামলার আসামী সোমেদ আলী গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব ১১ নরসিংদী মডেল থানার অভিযানে শীর্ষ সন্ত্রাসী সুজন সাহা আটক আক্রান্তের নয়া রেকর্ড আনােয়ারায় ২৫ গৃহহীন পরিবার পেল প্রধানমন্ত্রী’র ঘর উপহার

লালমনিরহাটে করলা আবাদে কৃষকরা লাভবান

লাভলু শেখ, স্টাফ রিপোর্টার লালমনিরহাট

লালমনিরহাটে এবার ব্যাপক হারে দেশী ও হাইব্রিড জাতের করলা চাষ করা হয়েছে। আবহাওয়া অনুকূল থাকায় করলা আবাদে ভালো ফলন পেয়েছেন কৃষকরা। একই সঙ্গে তারা বাজারে সবজিটির কাঙ্খিত দামে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।
লালমনিরহাটে এবার উৎপাদিত করলা বাজারে উঠছে মাস দুয়েক আগে থেকেই।

কৃষি বিভাগের তথ্য মতে, এবার জেলায় গ্রীষ্মকালীন করলার বাজারে ভালো চাহিদা থাকায় ও অর্থকরী হওয়ায় সবজিটি আবাদ করে জেলার বহু কৃষকের ভাগ্য পরিবর্তন হয়েছে। ফলে দিন দিন করলা চাষে বাড়ছে আগ্রহী কৃষকের সংখ্যা।
লালমনিরহাট সদর উপজেলার কোদালখাতা গ্রামের করলা চাষী সাইফুল ইসলাম, তিনি তার ১বিঘা জমিতে ৩বছর ধরে দেশি ও হাইব্রিড জাতের করলা চাষ করছেন। এবার বীজ, মাচা তৈরি ও শ্রমিকের মজুরিসহ তার প্রতি বিঘায় খরচ হয়েছে ২৫হাজার টাকা।

লালমনিরহাট সদর উপজেলার ফুলগাছ গ্রামের করলা চাষীরা জানান, প্রতি বছরের মতো এবারও করলার বাম্পার ফলন হয়েছে। প্রতি বিঘা জমিতে ১শত মণ থেকে ১শত ২০মণ করলা উত্তোলন করা সম্ভব হচ্ছে। বর্তমান দরে করলা বিক্রি করতে পারলে খরচ বাদে প্রতি বিঘা ৪০হাজার থেকে ৫০হাজার টাকা লাভের আশা করছেন।
আরও বেশ কয়েকজন চাষী জানান, করলার রোগবালাই খুবই কম। কোনো কোনো সময় বৈরী আবহাওয়ার কারণে গাছ শুকিয়ে যায় কিংবা পচন ধরে। তবে কৃষি বিভাগের পরামর্শে রোগ বুঝে ঔষুধ প্রয়োগ করলে সুফল পাওয়া যায়।
গোশালা বাজারের আড়তদার জানান, কৃষকরা করলা নিয়ে এলে আমরা তা অন্য জেলার বেপারিদের কাছে বিক্রি করে দেই।

উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা সুলতান সেলিম জানান, লালমনিরহাট কৃষি প্রধান জেলা। এ এলাকায় ধান ও ভূট্টার পাশাপাশি প্রায় সব ধরনের সবজির চাষ হয়। বরাবরের মতো এবারো করলা চাষ করে জেলার কৃষকরা ভালো লাভ করেছেন। ফলনও খুব ভালো হয়েছে। দিন দিন জেলায় করলার চাষ বাড়ছে। কৃষি বিভাগ থেকে কৃষকদের এ বিষয়ে সব ধরনের সহযোগিতা করা হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
Design & Developed BY TechPeon.Com