হেফাজত অনুসারীদের বিরুদ্ধে ৩টি মামলা ; পুলিশের কাজে বাধা, ভাংচুর ও সাংবাদিকের ওপর হামলার ঘটনায়

শাহ জালাল, সোনারগাঁ(নারায়ণগঞ্জ) :

শেয়ার করুন
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

সোনারগাঁয়ে রয়েল রিসোর্টে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে অবরুদ্ধ করার ঘটনায় উওপ্ত হয়ে হেফাজতে ইসলামের অনুসারীরা তান্ডব চালিয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি করে, পুলিশের কাজে বাধা ও সাংবাদিকের ওপর হামলার ঘটনায় এ তিন মামলা হয়।

বুধবার দুপুরে সোনারগাঁ থানায় দুই পুলিশ কর্মকর্তা বাদি হয়ে দুটি ও হেফাজত অনুসারীদের হামলায় আহত সাংবাদিক হাবিবুর রহমান বাদী হয়ে একটিসহ তিনটি মামলা হয়।

সোনারগাঁ থানার ওসি মো. হাফিজুর রহমান মামলার দায়েরের বিষয়টি রাতে নিশ্চিত করেছেন।

তিনটি মামলাই হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে প্রধান আসামী করে ৫’শ জনকে আসামী করা হয়।

এ ঘটনায় এজহারভূক্ত ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এদের মধ্যে পুলিশের দুটি মামলার এজাহারভুক্ত আসামী একজনের নাম মোস্তাফা বলে জানা গেছে। মোস্তফাকে ৭দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরণ করেছে।

জানা যায়, সোনারগাঁওয়ের রয়েল রিসোর্টে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক তার দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়ে গত শনিবার বেড়াতে এসে রয়েল রিসোর্টে অবস্থান নেয়। এ খবরে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মামুনুল হককে আটক করে অবরুদ্ধ করে তার সাথে খারাপ আচরণের অভিযোগ উঠে। এ ঘটনাটি ফেসবুকে ভাইরাল হলে সন্ধ্যায় হেফাজতের কয়েক হাজার অনুসারী রয়েল রিসোর্টে হামলা ও ভাংচুর করে মামুনুল হককে পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেয়। পরে রাতে মোগরাপাড়া চৌরাস্তা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে নেমে আসে। মামুনুল হককে হেনস্তা করার প্রতিবাদে তারা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। সড়কে টায়ার ফেলে তাতে আগুন জ্বালিয়ে অবরোধ করে। ভাংচুর চালানো হয়েছে যুবলীগ নেতা রফিকুল ইসলাম নান্নুর রেস্তোরাঁ, বাড়ি ও গাড়িসহ ওলউপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়।

সোনারগাঁ থানার উপ পরিদর্শক(এসআই) ইয়াউর রহমান বাদি হয়ে মামুনুল হককে প্রধান আসামী করে ৪১ জনের নাম উল্লেখ করে।

সন্ত্রাস বিরোধী আইনে সোনারগাঁ থানার উপ পরিদর্শক(এসআই) আরিফ হাওলাদার বাদী হয়ে মামুনুল হককে প্রধান আসামী করে ৪২ জনের নাম উল্লেখ করে। দুটি মামলায় ৫ শতাধিক অজ্ঞাত আসামী করা হয়েছে।

এদিকে শনিবার মাওলানা মামুনুল হককে অবরুদ্ধ করার ঘটনার তথ্য সংগ্রহ করতে যাওয়া স্থানীয় সাংবাদিক হাবিবুর রহমানকে মামুনুল হকের দাড়ি ধরে টান দেওয়ার অভিযোগ তুলে সনমান্দি ইউনিয়নের ভাটিরচর গ্রামে সাংবাদিকের উপর হামলা ও বাড়িঘর ভাংচুরের ঘটনায় মামুনুল হককে প্রধান আসামী ও ১৭জনকে নাম উল্লেখসহ ৭০-৮০জনকে আসামী করা হয়।

সোনারগাঁ থানার ওসি মো. হাফিজুর রহমান জানান, হেফাজতের তান্ডবের ঘটনায় সোনারগাঁ থানায় তিনটি মামলা গ্রহন করা হয়েছে। এ মামলায় কয়েক’শ জনকে আসামী করা হয়েছে। সিসিটিভির ফুটেজ দেখে আসামী সনাক্ত করে নাম ঠিকানা অর্ন্তভূক্ত করা হবে। এ ঘটনায় এজহারভূক্ত তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।


শেয়ার করুন
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares
  •  
    2
    Shares
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.