বুধবার, ১৬ Jun ২০২১, ০৫:৩১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
হত্যাকান্ডের ৯ দিন পর খুনিকে গ্রেপ্তার করেছে র্্যাব মাগুরা শ্রীপুরের জনপ্রিয় শিক্ষক আমিরুজ্জামান সেলিমের ইন্তেকাল বাকলিয়ার সন্ত্রাসী এয়াকুবসহ চিহ্নিত অস্ত্রধারীদের গ্রেফতার দাবি চট্টগ্রামে বায়েজিদ লিংক রোডে ঝুঁকিপূর্ণ ভাবে পাহাড়ের বসতিদের উচ্ছেদ অভিযান শুরু পরীমণিকে ধর্ষণচেষ্টায় নাসির উদ্দিন গ্রেফতার রাউজানের গণি পাড়ার মেয়ে কিংবদন্তি শাবানার গ্রামের বাড়িতে বছরে পর বছর ঝুলছে তালা র‌্যাব ক্যাম্পের অভিযান : দুই মাদক কারবারি আটক সদ্য নবনির্বাচিত দিনাজপুর চেম্বারের রেজা হুমায়ুন ফারুক চৌধুরী (শামীম) পরিষদের বিজয়ীদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানালো পরিবেশক সমিতি দিনাজপুর কোম্পানীগঞ্জে সিএনজি ধর্মঘটের ঘোষণা পৌর মেয়র কাদের মির্জা’র চট্টগ্রামের বাকলিয়ার এয়াকুব আলী বাহিনীর চিহ্নিত অস্ত্রধারীদের অস্ত্র উদ্ধারের দাবিতে সাংবাদিক সম্মেলন

খুটাখালীতে সীমানা বিরোধ নিয়ে ছোট ভাইকে কুপিয়ে জখম

কক্সবাজার প্রতিনিধি।
যৌথ বসত বাড়ির সীমানার বিরোধকে কেন্দ্র করে ছোট ভাই মাঈন উদ্দীন হোছাইনকে (৪১) ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে মারাত্নক জখম করেছে আপন বড় ভাই।

বৃহষ্পতিবার (২০ মে) সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড পশ্চিম মাইজপাড়া গ্রামে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

গুরুতর আহত মাঈন উদ্দীন হোছাইনকে প্রথমে চকরিয়া উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাঁর মাথায়-হাতে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

একইদিন সন্ধ্যায় তার অবস্থা অবনতি হওয়ায় তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

আহত মাঈন উদ্দীন বর্ণিত গ্রামের মৃত মৌলভী গোলাম হোসেনের পুত্র। তিনি একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী।

এ ঘটনায় বৃহষ্পতিবার বিকেলে মাঈন উদ্দীন হোছাইন বাদী হয়ে বড় ভাই ছৈয়দ আলম (৫৫), তার স্ত্রী ছফুরা বেগম (৪৫),কন্যা কানিজ ফাতেমা(২৫) ও মনছুর আলমকে আসামি করে চকরিয়া থানায় একটি এজহার দায়ের করা হয়েছে।

ছৈয়দ আলম আবার মাঈন উদ্দীন হোছাইনের আপন বড় ভাই। দীর্ঘদিন প্রবাসে থাকার পর দেশে ফিরে তিনি ক্ষুদ্র ব্যবসা করেন এবং সামাজিক ভাবে বসতবাড়ি,জমিজমা ভাগভাটোয়ারা করে পাশাপাশি বাড়ির ভাগও দেন।

এলাকাবাসী জানায়, মাঈন উদ্দীন হোছাইনের সাথে বসতবাড়ি নিয়ে ছৈয়দ আলমের সঙ্গে বেশ কিছুদিন থেকেই বিরোধ চলছে। এ নিয়ে এলাকায় একাধিকবার সালিশও হয়।

এজাহারে বলা হয়, বৃহষ্পতিবার সকালে ছৈয়দ আলম তার লোকজন নিয়ে বসতবাড়ির ছাদে মাঈন উদ্দীনের অংশে জোরপুর্বক দখলের চেষ্টা চালায়।
এসময় মাঈন উদ্দীন হোছাইন তাদেরকে বাধা দেয়। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে ঝগড়া বেঁধে যায়। একপর্যায়ে মাঈন উদ্দীনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে বড় ভাই ছৈয়দ আলম।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মাঈন উদ্দীন হোছাইন জানান, খুটাখালী পশ্চিম মাইজপাড়া গ্রামে নিজ বসতবাড়িতে তারা উভয়ে বসবাস করেন।
বিগত ক’বছর ধরে বড় ভাই ছৈয়দ আলম বসতবাড়ির তার অংশে মালিকানা দাবি করে আসছিলেন। এ নিয়ে তাদের দুই ভাইয়ের মধ্যে বিরোধ চলমান আছে।

এদিন সকালে ভাই ছৈয়দ আলম, তার স্ত্রী ছুফরা বেগম,কন্যা কানিজ ফাতেমা ও মনছুর বসতঘরের ছাদে নির্মান কাজ করছিলেন। এ সময় মাঈন উদ্দীন বাধা দিলে দেশীয় ধারালো দা দিয়ে মাঈন উদ্দীনকে কুপিয়ে জখম করে। তার চিৎকারে প্রতিবেশী ও স্বজনরা এসে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন।

অভিযুক্ত ছৈয়দ আলম জানান, প্রতিপক্ষ’র সঙ্গে সীমানা নিয়ে বিরোধ চলমান আছে। এ নিয়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা( ওসি) শাকের মু. জুবাইর জানান, লিখিত এজাহার পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
Design & Developed BY TechPeon.Com