1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. nrghor@gmail.com : Nr Gh : Nr Gh
  3. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
ঢামেকের কাছে ৩০ হোটেলের পাওনা ৪০ কোটি টাকা | দৈনিক শ্যামল বাংলা
শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ০৪:৫৬ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
নাঙ্গলকোটের কাকৈরতলা খন্দকার বাড়ির সামনের রাস্তায় জলাবদ্ধতা, চরম দুর্ভুগে জনজীবন ঘরে ঘরে জ্বর সর্দির রোগি, করোনা টেস্টে অনিহা চরম কষ্টে শ্রমজীবী ও নিম্ন আয়ের মানুষ তিনদিনের টানাবৃষ্টিতে শরণখোলার ১৩ হাজার পরিবার পানিবন্দি শিক্ষকতা পেশার সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো জরুরি ধর্মপাশায় অগ্নিকান্ডে আড়াই লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি গহিরায় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষিত ইউনিয়ন ভিক্তিক টিকা প্রদানে উৎসাহিত করণ সভা মাগুরার শ্রীপুরে ২০টি অক্সিজেন সিলিন্ডার ও ১০টি পালস্ অক্সিমিটার হস্তান্তর মীরসরাইয়ে সামীয়া ট্রেডিং নামে একটি প্রতিষ্ঠানকে ভোক্তা অধিকার আইনে জরিমানা আনোয়ারায় ৩৩৩ নম্বরে ফোনে ত্রাণ সহায়তা পেল কর্মহীন ১৩০ পরিবার ৫০ কেজি গাঁজাসহ পুলিশের এক সদস্য সহ গ্রেফতার ৪

ঢামেকের কাছে ৩০ হোটেলের পাওনা ৪০ কোটি টাকা

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২১ জুন, ২০২১
  • ৬৬ বার

করোনাকালে চিকিৎসক, নার্স ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য হোটেল কোয়ারেন্টাইনের ব্যবস্থা করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। হাসপাতাল সংশ্লিষ্টদের তিন মাস ৩০টি হোটেলে রাখা হয়, যার বিল এসেছে ৪০ কোটি টাকা। এই বিলের পুরোটাই বকেয়া।

সোমবার (২১ জুন) সকালে বকেয়া হোটেল বিল পরিশোধের দাবিতে ঢামেকের প্রশাসনিক ব্লকের সামনে বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল হোটেল অ্যাসোসিয়েশন (বিহা) মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে। পরে তারা পরিচালকের কাছে স্মারকলিপি দেন।মানববন্ধনে বিহার ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট কমিটির কো-চেয়ারম্যান খালেদ-উর-রহমান বলেন, ঢামেকের চিকিৎসক, নার্স ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের হোটেলে কোয়ারেন্টাইনের জন্য আমাদের হোটেলগুলোয় খাবারসহ আবাসনের ব্যবস্থা করা হয়। আমাদের হোটেলগুলোর সঙ্গে ঢাকা মেডিকেলের চুক্তির অন্যতম শর্ত ছিল- হোটেল কর্তৃপক্ষ প্রতি দশ দিন পর পর ঢাকা মেডিকেল কর্তৃপক্ষের কাছে বিল সাবমিট করবে এবং সাত কার্যদিবসের মধ্যে বিল পরিশোধ করা হবে। আমরা নানা বিধিনিষেধ অতিক্রম করে গতবছরের আগস্ট থেকে জুলাইয়ের বিল সাবমিট করি। কিন্তু ১১ মাস পার হলেও এখন পর্যন্ত কোনো বিল আমরা পাইনি। মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করা হলে তারা বিল ছেড়ে দিয়েছেন বলে জানায়।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আমরা বারবার যোগাযোগ করলেও কোনো সুফল পাচ্ছি না। তাই আমদের দাবি করা গতবছরের জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর (তিন মাস) পর্যন্ত ন্যায্য বিল চলতি বছরের ৩০ জুনের মধ্যে পরিশোধ করার দাবি জানাচ্ছি।মানববন্ধনে বিহার ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট কমিটির কো-চেয়ারম্যান খালেদ-উর-রহমান বলেন, ঢামেকের চিকিৎসক, নার্স ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের হোটেলে কোয়ারেন্টাইনের জন্য আমাদের হোটেলগুলোয় খাবারসহ আবাসনের ব্যবস্থা করা হয়। আমাদের হোটেলগুলোর সঙ্গে ঢাকা মেডিকেলের চুক্তির অন্যতম শর্ত ছিল- হোটেল কর্তৃপক্ষ প্রতি দশ দিন পর পর ঢাকা মেডিকেল কর্তৃপক্ষের কাছে বিল সাবমিট করবে এবং সাত কার্যদিবসের মধ্যে বিল পরিশোধ করা হবে। আমরা নানা বিধিনিষেধ অতিক্রম করে গতবছরের আগস্ট থেকে জুলাইয়ের বিল সাবমিট করি। কিন্তু ১১ মাস পার হলেও এখন পর্যন্ত কোনো বিল আমরা পাইনি। মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করা হলে তারা বিল ছেড়ে দিয়েছেন বলে জানায়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আমরা বারবার যোগাযোগ করলেও কোনো সুফল পাচ্ছি না। তাই আমদের দাবি করা গতবছরের জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর (তিন মাস) পর্যন্ত ন্যায্য বিল চলতি বছরের ৩০ জুনের মধ্যে পরিশোধ করার দাবি জানাচ্ছি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম