1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. nrghor@gmail.com : Nr Gh : Nr Gh
  3. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
রাজধানীর বাড্ডায় অযথা মামলা দেওয়ায় নিজ গাড়িতে আগুন দিয়ে প্রতিবাদ সাংবাদিকের - দৈনিক শ্যামল বাংলা
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০২:৪৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
মোটরসাইকেল শোডাউনের মাধ্যমে আ.লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হারুনুর রশিদ রঙ্গু’র পূজামন্ডপ পরিদর্শন মাগুরায় নির্বাচনী সহিংসতায় দু পক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ!! নিহত -৪ আহত -২০ লাকসামে রাজনীতির প্রতিহিংসায় গাছের সাথে শত্রুতা! রাউজানে সুষ্ঠ ও শান্তিপুর্ণ ভাবে সনাতনী ধর্মীয় অনুসারীদের শারদীয় দুর্গোৎসব সম্পন্ন নবীনগরে উপজেলা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াতের ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) উদযাপন কুবির দত্ত হলে জুনিয়র ছাত্রলীগ কর্মীরা মারধর করে সিনয়রকে সাঈদ হাসান,কুবি রাউজানে সব ধর্মের মানুষ অসম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী-পূজা মণ্ডপ পরিদর্শনে এমপি ফজলে করিম নবীগঞ্জে শেখ রাসেল দিবস পালন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত আমিলাইষের পূজামণ্ডপে আলহাজ্ব মোজাম্মেল হক চৌধুরীর আর্থিক অনুদান ও কাপড় বিতরণ রিদওয়ান খালিদ চোধুরীর জন্মদিন আজ

রাজধানীর বাড্ডায় অযথা মামলা দেওয়ায় নিজ গাড়িতে আগুন দিয়ে প্রতিবাদ সাংবাদিকের

বিশেষ প্রতিবেদকঃ
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ২০ বার

আজ সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে রাজধানীর বাড্ডায় ঘটে এ ঘটনাটি।

বাড্ডা রোডে চলাচলের সময় শওকত আলম সোহেল (ফ্রিল্যান্সিং সাংবাদিক) -র মোটরসাইকেলটির কাগজপত্রে ‘সামান্য ত্রুটি’ থাকায় পুলিশ মামলা দেওয়ায় মনের কষ্টে মোটরসাইকেলে আগুন লাগিয়ে দেন তিনি।জানা যায়, মোটরসাইকেলটির আগেও একটি মামলা দিয়েছিল পুলিশ।ইতিমধ্যে বাইকে আগুন লাগিয়ে দেওয়ার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল সাড়া ফেলেছে।

শওকত আলম সোহেল জানান, তার বাইকের কাগজপত্র নেয়া হয়েছিল তাকে মামালা দেওয়ার জন্য কিন্তু সে বিষয়টি সম্পূর্ণ অস্বিকার করেছেন গুলশান ট্রাফিক জোনের ডিসি রবিউল ইসলাম।

ডিসি রবিউল ইসলাম জানান,তার বাইকের কাগজপত্র নেয়া হয়েছিল কিন্তু মামালা দেওয়া হয়নি তার আগেই তিনি আগুন লাগিয়ে দেন।

শওকত আলম সোহেল (ফ্রিল্যান্সিং সাংবাদিক) বর্তমানে বাড্ডা থানায় আছে বলেন জানান ডিসি রবিউল ইসলাম।

উক্ত বিষয়ে প্রত্যক্ষদর্শী মিরাদুল ইসলাম জানান,সকালে অফিসে যাওয়ার পথে দেখি পুলিশের সামনেই তেল চাবি ছেড়ে দিয়ে আগুন ধরিয়ে দিচ্ছে কিন্তু পুলিশ চেয়ে চেয়ে দেখছে আমি নিজে আগুন নেভানোর চেষ্টা করলেও ঐ ব্যাক্তি আমাকে বাঁধা দেন আর চিৎকার করে বলতে থাকেন, “দে এবার মামলা দে”। সাংবাদিককে এভাবে মামলা দিয়ে এবং থানায় আটক করে হয়রানি করার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন দেশের সংবাদমাধ্যম কর্মীরা।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম