1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. nrghor@gmail.com : Nr Gh : Nr Gh
  3. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
নোয়াখালীতে চিকিৎসা না দেওয়ায় রোগির মৃত্যুর অভিযোগ - দৈনিক শ্যামল বাংলা
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৫৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
মোটরসাইকেল শোডাউনের মাধ্যমে আ.লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হারুনুর রশিদ রঙ্গু’র পূজামন্ডপ পরিদর্শন মাগুরায় নির্বাচনী সহিংসতায় দু পক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ!! নিহত -৪ আহত -২০ লাকসামে রাজনীতির প্রতিহিংসায় গাছের সাথে শত্রুতা! রাউজানে সুষ্ঠ ও শান্তিপুর্ণ ভাবে সনাতনী ধর্মীয় অনুসারীদের শারদীয় দুর্গোৎসব সম্পন্ন নবীনগরে উপজেলা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াতের ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) উদযাপন কুবির দত্ত হলে জুনিয়র ছাত্রলীগ কর্মীরা মারধর করে সিনয়রকে সাঈদ হাসান,কুবি রাউজানে সব ধর্মের মানুষ অসম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী-পূজা মণ্ডপ পরিদর্শনে এমপি ফজলে করিম নবীগঞ্জে শেখ রাসেল দিবস পালন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত আমিলাইষের পূজামণ্ডপে আলহাজ্ব মোজাম্মেল হক চৌধুরীর আর্থিক অনুদান ও কাপড় বিতরণ রিদওয়ান খালিদ চোধুরীর জন্মদিন আজ

নোয়াখালীতে চিকিৎসা না দেওয়ায় রোগির মৃত্যুর অভিযোগ

পালিয়ে যায় হাসপাতালের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা

মাহবুবুর রহমান :
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৮ অক্টোবর, ২০২১
  • ২৮ বার

নোয়াখালী জেলা শহর মাইজদীর মাদারল্যান্ড হসপিটাল প্রা: লি: কৃর্তপক্ষের বিরুদ্ধে চিকিৎসা না দেওয়ায় কামাল উদ্দিন (৫০) নামের এক রোগির মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার পর হাসপাতালে দায়িত্বরত কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে পুলিশের উপস্থিতিতে পুনঃরায় তারা হাসপাতালে আসে। নিহতের পরিবারের অভিযোগ বুকে ব্যাথা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি ৩ঘন্টায় কোন চিকিৎসা না দেওয়া কামাল উদ্দিন মারা গেছেন। ঘটনায় ক্ষুব্ধ স্বজনরা হাসপাতালে ভাঙচুর করেছে বলে অভিযোগ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের।

শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে হাসপাতালে ভর্তি অবস্থায় মারা যান তিনি। মৃত কামাল উদ্দিন জেলার সদর উপজেলার নোয়ান্নই ইউনিয়নের শাহজাদপুর গ্রামের আব্দুল হকের ছেলে। তিনি স্থানীয় ইসলামগঞ্জ বাজারের জারিফ এন্টারপ্রাইজের পরিচালক ছিলেন। ১ ছেলে ও ২ মেয়ের জনক তিনি।

মৃত কামাল উদ্দিনের ছোট ভাই জসিম উদ্দিন জানান, শুক্রবার ভোরে বুকে ব্যাথা অনুভব করে তাঁর বড় ভাই ব্যবসায়ী কামাল উদ্দিন। পরে মাদারল্যান্ড হাসপাতালের ম্যানেজারের সাথে যোগাযোগ করে একটি অ্যাম্বুলেন্স বাড়িতে এনে ৫টার দিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। ভর্তির পর থেকে কামাল উদ্দিনকে কোন চিকিৎসা না দেয়ে ফেলে রাখে হাসপাতালে কর্মরত লোকজন। ডিউটি চিকিৎসক ও নার্সরা নিজ নিজ কক্ষে ঘুমাচ্ছে। একাধিকবার ডাকলেও তারা কেউ বের হয়ে আসেন নি। সকাল ৮টার দিকে কামাল মারা গেলে দ্রæত হাসপাতালের লোকজন পালিয়ে যান। পরে বিষয়টি থানায় জানানোর পর পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে। নিজের ভাইয়ের মৃত্যুর ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করবেন বলেও জানান জসিম উদ্দিন।

এ বিষয়ে হাসপাতালের মার্কেটিং কর্মকর্তা জাবেদ বলেন, ওই রোগি আমাদের ম্যানেজারের আত্মীয়। তারা হাসপাতালে আসার পর এসি কেভিন চেয়েছিল। নরমাল কেভিনে ভর্তি করার পর নার্স রোগির হাতে ক্যানোলা লাগালে সাথে থাকা লোকজন ছিঁড়ে ফেলে দেয়। রোগিকে অক্সিজেনও দেওয়া হয়েছে। রোগি মৃত্যুর পর তার স্বজনরা হাসপাতালে ভাঙচুর করে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি করেছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

সুধারাম মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) সুজন বিকাস চাকমা জানান, চিকিৎসার অভাবে একজন রোগি মারা গেছে এমন অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা হাসপাতালে এসেছি। অভিযোগের ভিত্তিতে পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম