1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. nrghor@gmail.com : Nr Gh : Nr Gh
  3. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগ শক্তিশালী করার লক্ষে সাধারণ সম্পাদক পদে কামরুজ্জামান কামরুল এর বিকল্প নেই। - দৈনিক শ্যামল বাংলা
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৩:৫১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
৫২ তে পা দিলেন সাংবাদিক জ,ই, বুলবুল সোনারগাঁয়ের সেই জি কে শামীমসহ তার সাত দেহরক্ষীর রায় ঘোষণা আজ মাগুরায় নানা কর্মসূচি মধ্য দিয়ে ‘শেখ রাসেল দিবস’ উপলক্ষে প্রতিযোগিতা ও মীনা দিবস পালিত চন্দ্রগঞ্জে সুধীজনদের সঙ্গে মতবিনিময় করলেন লক্ষ্মীপুর পুলিশ সুপার রাউজানে কিডনি রোগে আক্রান্ত রিফাতের জীবন বাঁচতে সাহায্যের আবেদন সিরাজদিখানে রাস্তার নির্মান কাজের অগ্রগতি হয়ায় দোয়া ট্রেনে উঠতে গিয়ে বাবার সামনে প্রাণ গেলো বিশ্ববিদ্যালয়ছাত্রের হালদা-সর্তার খালের চরে উৎপাদ হচ্ছে কোটি টাকার আঁখ,কলা,পেঁপে সবাই কে কাদিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন কেপটাউন কমিউনিটির প্রিয় মুখ সোহেল ভাই। গাজীপুরে নানাকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে নাতী আটক

নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগ শক্তিশালী করার লক্ষে সাধারণ সম্পাদক পদে কামরুজ্জামান কামরুল এর বিকল্প নেই।

সফিকুল ইসলাম রিপন ঃ নরসিংদী
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৪৯ বার

ঢাকার নিকটবর্তী অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি অর্থনৈনিক শিল্প জেলা নরসিংদী। এখানে আগামী ১৭ ই সেপ্টেম্বর ৭ বছর পর জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এই সম্মেলনকে কেন্দ্র করে জেলা জুড়েই আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজ করছে। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদের জন্য এবার মাঠে নেমেছেন কমপক্ষে ১০ জন ।
আওয়ামী লীগের হাই কমান্ড সুত্রে জানাযায় আগামী জাতীয় সাংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগকে আরো গতিশীল, ও শক্তিশালী নেতৃত্ব বাছাই করতে চান হাই কমান্ড। আওয়ামী লীগ সভানেত্রী এখন পর্যন্ত ১২ জনের সিভি পেয়েছেন। এই ১২ জনের মধ্যে থেকে বাঁছাই করে দুইজনের হাতে তুলে দিতে চান নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগের দায়িত্ব।
ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, এমপি ইতিমধ্যেই সকল প্রার্থীদের বিষয়ে খোঁজ খবর নিচ্ছেন এবং নিয়মিত আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেত্ববৃন্দের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে চলছে । তিনি আশা প্রকাশ করেন অতীতের চেয়ে এবারের কমিটি বেশ শক্তিশালী হবে।

এদিকে, জেলার তৃণমূল আওয়ামী লীগ নরসিংদী শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র মো. কামরুজ্জামান কামরুল কে এবারের জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হিসেবে পেতে চায়। নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করতে কামরুলের বিকল্প নেই, তাকে ঘিরেই জেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা আশা দেখতে শুরু করেছেন। মূলত করোনাকালীন সময়ে অসামান্য ভূমিকার কারণে কেন্দ্রে তার ভামূর্তি অনেকটা উজ্জ্বল হয়েছে, এবং কর্মীবান্ধব, আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান হওয়ায় কামরুজ্জামান এর পক্ষে ইতিমধ্যেই জেলা আওয়ামী লীগের একটি বড় অংশই সমর্থন দিচ্ছেন।

উল্লেখ্য, নরসিংদী পৌরসভার সাবেক মেয়র ও শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি কামরুজ্জামান কামরুল। মেয়র হিসেবে শুধু নিজের পৌর এলাকা নয়, করোনা মহামারিতে মানবিকতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন জেলাব্যাপী। তাঁর ব্যক্তিগত উদ্যোগে গৃহীত নানামুখী কর্মকাণ্ডের স্বীকৃতিস্বরূপ মিলেছে জেলাবাসীর দেওয়া মানবিক মেয়রের খেতাব।
করোনা মহামারির শুরু থেকেই ব্যক্তিগতভাবে বিতরণ করেছেন ৩০ হাজার পরিবারের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী, ৫০ হাজার মাস্ক, ২০ হাজার হ্যান্ড স্যানিটাইজার, হ্যান্ডওয়াশ ও সাবান। জেলার চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সুরক্ষা ও নিরাপত্তার জন্য দিয়েছেন দুই হাজার পার্সোনাল প্রটেকশন ইকুইপমেন্ট (পিপিই)। নিজের জিবনের ঝুকি নিয়ে ট্রাক বোঝাই করে মানুষের ঘরে ঘরে ত্রাণ সামগ্রী পৌছে দিয়েছেন। অথচ তখন মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারতোনা। অনেক মধ্যবিক্ত পরিবার কারো কাছে লজ্জায় ত্রাণ চাইতে পারতোনা তাদের জন্য ছিল মোবাইল নম্বর সেই নম্বরে ফোন দিলে রাতের আধারে তাদের বাসায় ত্রাণ সামগ্রী পৌছে দিত। রমজান মাসে প্রতিদিন পাঁচ হাজার মানুষের হাতে তুলে দিয়েছেন রান্না করা খাবারের প্যাকেট। ঈদের দিন একসঙ্গে খাইয়েছেন ২৫ হাজার অসহায় মানুষকে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসে আরো পাঁচ হাজার পরিবারে খাদ্যসামগ্রী দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিনে দুস্থ, স্বামী পরিত্যক্তা ও বিধবা শতাধিক নারীকে স্বাবলম্বী করে গড়ে তুলতে দিয়েছেন সেলাই মেশিন এবং ১০ জন প্রতিবন্ধীকে দিয়েছেন হুইলচেয়ার।
সর্বশেষ সিলেট সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির সময় তিনি ত্রাণ নিয়ে ছুটে গেছেন বন্যার্তদের মাঝে। সুনামগঞ্জ জেলার চারটি ইউনিয়নে বন্যাকবলিত প্রায় দুই হাজার পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী ও বস্ত্র বিতরণ করা হয়। খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে ছিল দশ কেজি চাল, দুইকেজি আলু এককেজি ডাল,এককেজি পিয়াজ, এককেজি লবন, একটি থ্রীপিঁচ একটি শাড়ী৷

নরসিংদী পৌরসভার জনপ্রিয় মেয়র প্রয়াত লোকমান হোসেন হত্যাকান্ডের পর মেয়র হয়েছিলেন কামরুল ইসলাম। এরপর নরসিংদী পৌরসভাকে আধুনিক এবং মডেল পৌরসভায় পরিণত করতে রাস্তাঘাটসহ বিভিন্ন অবকাঠামোর উন্নয়ন করেছেন। যা ইতিমধ্যেই জেলাবাসীর কাছ দৃশ্যমান।
, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জেলা আওয়ামী লীগের এক সভাপতি প্রার্থী বলেছেন, ১৭ সেপ্টেম্বর জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে কামরুল ইসলামই অন্যান্য সাধারণ সম্পাদক প্রার্থীদের তুলনায় যোগ্য। কেননা আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে পুরো জেলা আওয়ামী লীগকে চাঙা করতে এবং বিএনপি-জামায়াতকে ঠেকাতে কামরুলের বিকল্প নেই। কারণ তিনি রাজপথে সব সময়ই সক্রিয় ছিলেন। বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার প্রশ্নে আপোষহীন, নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগের মধ্যে বিভেদ মিটিয়ে দলকে আরো সুসংগঠিত করতে পারবেন,বলে দৃঢ বিশ্বাস,

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম