1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ ঃ ফেসবুকে তোলপাড় - দৈনিক শ্যামল বাংলা
বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:৩৮ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
দেশে মেডিকেল ডিভাইস তৈরি করলে তা সাধারণ মানুষের কাছে সহজলভ্য হবে’ -স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন নবীগঞ্জ শহরের রাজা কমপ্লেক্সে হামলা ভাংচুর ও ৪ ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষ! শহর রণক্ষেত্র- আহত অর্ধশতাধিক৷ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশের টিয়ারসেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ৷ লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেনে যাত্রী ভোগান্তির শিকার দেখার কেউ নেই। চৌদ্দগ্রামে মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে ট্রাই সাইকেল বিতরণ চৌদ্দগ্রামের বাতিসায় জাতীয় পার্টির উদ্যোগে ইফতার সামগ্রী বিতরণ ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান হাবিবের ১৮তম মৃত্যুবার্ষিকী পালন ঠাকুরগাঁও জমে উঠেছে জেলা পরিষদ নির্বাচন ! মোঃ মজিবর রহমান শেখ, ঠাকুরগাঁওয়ে “আত্মকথন” শীর্ষক ভিডিওচিত্র সংকলনের উদ্বোধনী ! চন্দনাইশে চিকিৎসক ঐক্য পরিষদের অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন।

শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ ঃ ফেসবুকে তোলপাড়

স্কুল ছুটি হওয়ার পর স্কুলের টিউবওয়েলে পানি পান করিতে গিয়ে যৌন শিকার শিক্ষার্থী

কুমিল্লা বিশেষ প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৯৪ বার

কুমিল্লা মনোহরগঞ্জে দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানি করায় লিখিত অভিযোগ উঠেছে প্রিন্টু চন্দ্র ঘোষ নামের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টেম্বর ) যৌন হয়রানি শিকার শিক্ষার্থী বাদী হয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর এ অভিযোগটি দায়ের করেছেন বলে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর অভিভাবক জানান।
এ বিষয় নিয়ে স্থানীয় পত্রিকার সংবাদকর্মী ও ভুক্তভোগী ছাত্রী, অভিযোক্ত শিক্ষককের পক্ষ-বিপক্ষের লোকজন এ ঘটনার আলোকে সত্য-মিথ্যা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগে তাদের ছবি দিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়। এনিয়ে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়।

ফেসবুকে তোলপাড় দেখে এবং ঘটনা নিয়ে উপজেলা দলীয় নেতৃবৃন্দ ও ইউপির চেয়ারম্যানসহ তাদের সমস্যা সমাধান করে দিবে বলে বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকালে মনোহরগঞ্জ থানায় দুই পক্ষে লোকজন বসেন। এসময় ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর অভিভাবক ও অভিযোক্ত শিক্ষক তাদের আলোচনা মাধ্যমে সমঝোতা হয়েছে বলে বিষয়টি নিশ্চিত করেন মনোহরগঞ্জ থানা ওসি তদন্ত তপন কুমার বাপ্পি। তিনি বলেন, ছাত্রীকে যৌন হয়রানি করার লিখিত কোন অভিযোগ পাইনি তবে স্থানীয় নেতৃবৃন্দের কাছ থেকে শুনেছি তারা সমাধান করে দিয়েছে।

লিখিত অভিযোগ ও বিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, মনোহরগঞ্জ থানাধীন শহীদ মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান মোস্তফা স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী (বর্তমানে এস এস সি পরীক্ষার্থী) বিগত চার মাস পূর্বে একই বিদ্যালয়ে গণিত শিক্ষক প্রিন্টু চন্দ্র ঘোষে কাছে প্রাইভেট পড়তো দশম শ্রেণীর ছাত্রী। প্রাইভেট পড়াকালীন সময়ে প্রিন্টু চন্দ্র ঘোষ প্রায় সময় প্রেম নিবেদন করিয়া বিভিন্ন অঙ্গভঙ্গি করিত। এমনকি শ্রেণিকক্ষে বিভিন্ন বিষয়ে লোভ দেখানো হতো। এতে ছাত্রী লজ্জাবোধ করে শ্রেণিকক্ষে কান্নায় ভেঙে পড়ে। পরে বাড়িতে গিয়ে বিষয়টি তাদের অভিভাবকদের জানায়।
শিক্ষার্থীর অভিভাবক শিক্ষককে হুশিয়ার করে দেয়। এবং শিক্ষককের উক্ত কার্যক্রমের ফলে শিক্ষার্থী প্রাইভেট পড়া বন্ধ করে দেয়। গত ৮ সেপ্টেম্বর স্কুল ছুটি হওয়ার পর স্কুলের টিউবওয়েলে পানি পান করতে যায় শিক্ষার্থী। তাকে একা পেয়ে শিক্ষক প্রিন্টু চন্দ্র ঘোষ পিছন থেকে শিক্ষার্থীকে জড়াইয়া ধরলে শিক্ষার্থী
আত্নচিৎকার করে, তাদের দৃশ্য দেখতে পায় কয়েকজন শিক্ষার্থীরা।

এসময় ছুটে আসা শিক্ষার্থীদেরকে দেখে শিক্ষক প্রিন্টু চন্দ্র ঘোষ বলেন এ বিষয়টি নিয়ে স্কুল কমিটি সহ এলাকার কাউকে জানাইলে তোমাদের (এস এস সি পরীক্ষায়) অংশগ্রহণ করতে দেওয়া হবে না এবং স্কুল থেকে বাহির করে দিবে বলে বিভিন্ন ভয়ভীতি ও হুমকি দেয় শিক্ষক।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর বাবা আবু তাহের বলেন, শিক্ষক প্রিন্টু চন্দ্র ঘোষ একটা খারাপ প্রকৃতি লোক। তার হাতে বিদ্যালয়ের কয়েকজন ছাত্রীরা নির্যাতনের শিকার এমনকি একজন শিক্ষিকা ও। আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও থানায় অভিযোগ করেছি শিক্ষককের বিরুদ্ধে।

এ বিষয় স্থানীয় দলীয় নেতৃবৃন্দ ও স্থানীয় চেয়ারম্যান জানার পর তারা আমাকে আশ্বাস দিয়ে বলেন মঙ্গলবার সকালে থানায় বসে সমাধান করে দিবেন।
অভিযুক্ত শিক্ষক প্রিন্টু চন্দ্র ঘোষ বুধবার রাতে মুঠো ফোনে বলেন, ছাত্রীর সঙ্গে ইভটিজিংমূলক কথা বলেছি এসব মিথ্যা অপপ্রচার। আর ছাত্রীরা (এস এস সি পরীক্ষায়) অংশগ্রহণ বাধা এবং স্কুল থেকে বাহির করিয়া দিবো ও বিভিন্ন ভয়ভীতি ও হুমকি এসব সম্পন্ন মিথ্যা কথা।

শহীদ মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান মোস্তফা স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নির্মল চন্দ্র দাস বলেন, শিক্ষককের বিরুদ্ধে যে অভিযোগটি আনা হয়েছে তা সত্যতা পাওয়া যায়নি। শিক্ষার্থীর বড় ভাই শিক্ষককে মারধর করা কেন্দ্র করে এ ঘটানা ঘটেছে।

মনোহরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহেল রানা বলেন, ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষককের বিরুদ্ধে কোন লিখিত অভিযোগ আসেনি। আসলে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম