1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
১০ বছরেও সংস্কারের মুখ দেখেনি শীলকূপ-গন্ডামারা সড়ক, খানাখন্দে বেহাল জনদুর্ভোগ - দৈনিক শ্যামল বাংলা
বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:১৮ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
শ্রেণীকক্ষ সংকটে পাঠদান ব্যাহত, জরুরি ভিত্তিতে ভবন প্রয়োজন নোয়াখালীতে ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে জখম, প্রতিষ্ঠান ভাঙচুর ও লুট দেশে মেডিকেল ডিভাইস তৈরি করলে তা সাধারণ মানুষের কাছে সহজলভ্য হবে’ -স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন নবীগঞ্জ শহরের রাজা কমপ্লেক্সে হামলা ভাংচুর ও ৪ ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষ! শহর রণক্ষেত্র- আহত অর্ধশতাধিক৷ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশের টিয়ারসেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ৷ লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেনে যাত্রী ভোগান্তির শিকার দেখার কেউ নেই। চৌদ্দগ্রামে মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে ট্রাই সাইকেল বিতরণ চৌদ্দগ্রামের বাতিসায় জাতীয় পার্টির উদ্যোগে ইফতার সামগ্রী বিতরণ ব্যবসায়ী হাবিবুর রহমান হাবিবের ১৮তম মৃত্যুবার্ষিকী পালন ঠাকুরগাঁও জমে উঠেছে জেলা পরিষদ নির্বাচন ! মোঃ মজিবর রহমান শেখ,

১০ বছরেও সংস্কারের মুখ দেখেনি শীলকূপ-গন্ডামারা সড়ক, খানাখন্দে বেহাল জনদুর্ভোগ

শিব্বির আহমদ রানা, বাঁশখালী প্রতিনিধি, চট্টগ্রামঃ
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৫ অক্টোবর, ২০২২
  • ১২৫ বার
ছবিঃ শিলকূপ-গন্ডামারা সংযোগ দীর্ঘ ৬ কিলোমিটার সড়কের বেহাল দশা।

বছর যায় বছর ঘুরে আসে, বাঁশখালীর অভ্যন্তরিণ সড়কের বেহালদশার পরিবর্তন আসেনা। তারমধ্যে বাঁশখালীর অভ্যন্তরিণ সড়ক টাইমবাজার হয়ে গন্ডামারা ইউনিয়নের উত্তর গন্ডামারা হোছাইন শাহ্ মাজার পর্যন্ত প্রায় ৬ কিলোমিটারের সড়কটির অবস্থা খুবই বেহাল। অতীব জনগুরুত্বপূর্ণ সড়ক দিয়ে যাতায়ত করে শিলকুপ-গন্ডামারা দুই ইউনিয়নের প্রায় ৫০হাজারের অধিক জনসাধারণ। বিশেষ করে গন্ডামারা ইউনিয়নের তিনটি ওয়ার্ডের লোকজনের সাথে বাঁশখালীর আঞ্চলিক প্রধান সড়কের যোগাযোগের বিকল্প সড়ক শিলকূপ-গন্ডামারা সড়কটি অতীব গুরুত্বপূর্ণ। ওই সড়কটি ছাড়া বাঁশখালীর প্রধান সড়কের সাথে ওই দুই ইউনিয়নের জনসাধারণের যাতায়তের জন্য বিকল্প কোন সড়ক নেই।

বাঁশখালী উপজেলা এলজিআরডি’র সূত্রমতে, সড়কটি ২০১২ সালে সংস্কার করা হয়েছিল। সম্প্রতি প্রায় ৬ কিলোমিটারের দীর্ঘ সড়কে খানাখন্দে রুপ নিয়েছে। গন্ডামারা কয়লাবিদ্যুৎ প্রকল্পের কাজে নিয়োজিত মালবাহী গাড়ী যাতায়তের ফলে দীর্ঘ সড়কে বড় বড় খানাখন্দে রুপ নিয়েছে। এমনিতেই সড়কের পার্শ্বদেশ ভেঙ্গে গিয়ে মারাত্মক ঝুঁকিতে রুপ নিয়েছে। স্বাভাবিক হাঁটাচলার অযোগ্য হয়ে পড়েছে সড়কটি। সড়কের কার্পেট উঠে যাওয়ায় সামান্য বৃষ্টিতে সৃষ্ট গর্তে পানি জমে বেহাল অবস্থার সৃষ্টি হয়। একটু বৃষ্টিতেই কাদা-জলে একাকার হয়ে চরম দূর্বিসহ হয়ে পড়বে সাধারণ যানবাহন চলাচল ও যাত্রীদের চলাচল।

বাঁশখালী প্রধান সড়ক সংযোগ শিলকূপ-গন্ডামারা সড়কে চলাচলরত সাধারণ যাত্রী ও যানবাহন চালকদের সাথে কথা বললে তারা জানান, ‘বাঁশখালী প্রধান সড়কের সাথে দুই ইউনিয়নের প্রায় অর্ধলক্ষ জনসাধারণের যোগাযোগ মাধ্যম সড়কটি এখন গলারকাঁটা। ইদানিং সড়কের কার্পেট উঠে যাওয়ায় বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। পুরো সড়কে কার্পেটের বদলে ভাঙ্গা লাল ইটের টুকরো। সাথে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি। রিকশার মতো ছোট যানবাহন চলাচল করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। অনেক সময় সিএনজি-অটোরিক্সা সড়কে উল্টে গিয়ে মারাত্মক দূর্ঘটনার কবলে পড়ে যাত্রীরা। এ সড়ক দিয়ে গন্ডামারা কয়লাবিদ্যুৎ প্রকল্পের কাজে নিয়োজিত বড় বড় মালবাহী গাড়ী চলাচলের কারণেই সড়কের নাজুক অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এতে আমাদের স্বাভাবিক চলাচল হয়ে পড়েছে দূর্বিসহ। সাধারণ রোগী ও ডেলিভারি রোগীদের যাতায়ত কোন কিছুতেই কল্পনা করা যায় না। আগামী বর্ষার আগেই তারা উধ্বর্তন কতৃপক্ষের নিকট শিঘ্রই সড়কের সংস্কারের দাবী জানান।’

এ সড়কে চলাচলকারী দুর্ঘটনার কবলে পতিত অটোরিকশা চালক কামাল বলেন, ‘গত মাসে আমার রিকশাসহ তিনজন যাত্রী উল্টে গিয়ে সড়কের পাশের নালায় পড়ে যাই। পরে আমাকে সহ সবাইকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে আসেন লোকজন। এ সড়ক দিয়ে প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনার কবলে পতিত হচ্ছে লোকজন। কয়লাবিদ্যুৎ কেন্দ্রে নিয়োজিত মালবাহী গাড়ী খাদে পড়ে উল্টে যাওয়ার ঘটনাও অহরহ। অন্তত সড়ক দূর্ঘটনা এড়াতে খুব দ্রæত সংস্কারের দাবী জানান তিনি।’

সড়ক সংস্কারের বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) কাজী ফাহাদ বিন মাহমুদ বাংলাদেশ টুডে কে বলেন, ‘সড়কটির সংস্কারের জন্য ওয়ারকার্টার সম্পন্ন হয়েছে। আগামী একমাসের মধ্যেই পুরোদমে এ সড়কের কাজ শুরু হবে।’

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম