1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
শ্রীপুরে হযবরলের মাধ্যমে চলছে ভুমি জরিপ!ষুষে মেলে মুক্তি। - দৈনিক শ্যামল বাংলা
মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ০৫:২৮ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
এখনো প্রত্যন্ত চর অঞ্চলে মহিষের পাল ছাড়িয়ে রাঁখাল ওকি গাড়িয়াল ভাই এর গানের সুর তুলেন তার বাঁশিতে!!! চৌদ্দগ্রামে দৈনিক দেশ রূপান্তর এর ৫ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত শ্রীপুরে মহাসড়ক অবরোধ করে শ্রমিকদের বিক্ষোভ সৈয়দপুরে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ বদলে গেছে লালমনিরহাটের তিন বিঘা করিডোর ও দহগ্রাম-আঙ্গরপোতা ছিটমহল চৌদ্দগ্রাম প্রেসক্লাবের উদ্যোগে ৩ দিন ব্যাপী বার্ষিক আনন্দ ভ্রমণ সম্পন্ন চৌদ্দগ্রামে শুভ সংঘের উদ্যোগে অস্বচ্ছল নারীদের সেলাই প্রশিক্ষণের উদ্বোধন ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চললে কেউ অপরাধ করতে পারে না নবীগঞ্জে ঠাকু অনুকূল চন্দ্রের জন্মোৎসবে এসপিআর কালী চরন মন্ডল Pilot video game in Kenya ঠাকুরগাঁওয়ের বর্ষিয়ান রাজনীতিবিদ বীর মুক্তিযোদ্ধা তৈমুর রহমানের ইন্তেকাল !

শ্রীপুরে হযবরলের মাধ্যমে চলছে ভুমি জরিপ!ষুষে মেলে মুক্তি।

ফজলে মমিন,শ্রীপুর(গাজীপর)থেকেঃ
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২২
  • ১০২ বার

গাজীপুরের শ্রীপুরে উপজেলার ৭৯ টি মৌজার মধ্যে গত জুনে ৪৩ নং শ্রীপুর মৌজার বাংলাদেশ ডিজিটাল ভুমি রেকর্ড ও জরিপ( বিডিএস) এর প্রাথমিক কাজ শুরু করে বাংলাদেশ ভুমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তর।এরই মধ্যে জরিপের নকশাকারকরা মাঠ পর্যায়ের সরেজমিনে গিয়ে ভুমির ধরন,অবস্হান ও দখল মাপযোগ করে আগের আরএস ৬ টি নকশার স্হলে বর্তমানে বিডিএস ৯০ টি নকশার সীটে রুপান্তরিত করে আসছেন।বিডিএস নকশা প্রস্তুতের ক্ষেত্রে আরএস নকশার বিস্তর ফারাক রেখেই চলছে দ্বিতীয় ধাপ অর্থাৎ ভুমির কাগজপত্র যাচাই বাছাইয়ের কাজ।আর এসব দলিলধস্তাবেজের যাচাই-বাছাইয়ের কাজগুলো সিংহভাগই করছেন সার্ভেয়ারদের সহকারীরা।ফলে ওইসব সহকারীদের দ্বারা হয়রানীর সিকার হচ্ছেন ভুমি মালিকরা।ভুমি জরিপে টাকা লাগবে তা এখন অনেকটাই ওপেন সিকরেট হয়ে দাঁড়িয়েছে।যাঁরা টাকা দিচ্ছেন তাদের খতিয়ান সহজেই খুলা হচ্ছে।যাঁরা চাহিদা পরিমান টাকা দিতে অপরাগ তাদেরকে বিভিন্ন অজুহাতে ঘুরাচ্ছে এমন অভিযোগ রয়েছে।ভুমি জরিপ কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের তেলেসমতিতে ভুমি মালিকরা বুজে উঠতে পারছেনা জরিপে ভুমির কি কি কাগজ প্রয়োজন বা আদৌ কোন কাগজ প্রয়োজন রয়েছে কিনা।

বাংলাদেশ ভুমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তর সুত্রে জানা যায়,ভুমি জরিপে ৩ টি নীতি অনুসরন করতে হবে ১। দলিল ২। দখল ও ৩। দাখিলা,তবেই ভুমি মালিকগন তাদের নিজ নামে বিডিএস খতিয়ান খুলার অধিকার রাখে।অন্যদিকে সার্ভেয়ারদের সতর্ক থাকতে নির্দেশনা রয়েছে ওয়ারিশগনদের বন্চিতকরা,তালিকাভুক্ত জমি,সরকারি খাস খতিয়ানভুক্ত বা সরকারি স্বার্থ সংশ্লিষ্ট জমি,সড়ক ও জনপথের জমি এবং সরকারি নদী,নালা ও খালের জমি।অন্যদিকে অনেক ক্ষেত্রে ভুমির মালিকগন তার জমির মালিকানা জমির চেয়ে অধিক পরিমানে জমি অবৈধ ও জোরপুর্বক দখলে থেকে বিডিএস রেকর্ড যাতে করতে না পারেন।এসব নিয়ম নীতিকে উপেক্ষা করেই মাঠ পর্যায়ের সার্ভেয়ারগন জরিপের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

শ্রীপুরে বিডিএস জরিপে অসাধু কর্মকর্তাদের কৌশলের ফলে ভুমি মালিকরা তাদের ভুমি মালিকানা নিয়ে ভবিষ্যৎতে ভয়ন্কর সমস্যা বা ক্ষতির সম্মুখিন হওয়ার আশংকা প্রকাশ করছেন।দীর্ঘদিন যেসব বিষয় মীমাংসিত ছিল বর্তমানে বিডিএস জরিপের মধ্য দিয়ে ওই মিমাংসীত বিষয়গুলো নতুন প্রজন্মের কাছে নতুন করে বিতর্ক সৃষ্টির জন্ম দিয়েছে।তাছাড়া মাঠ পর্যায়ের সার্ভেয়ারগন তা অনেক ক্ষেত্রে পক্ষ নিয়ে উস্কিয়ে আর্থিক সুবিধা নেয়ার পাঁয়তারা করছেন।আশংকার কারন জানতে চাইলে ভুক্তভোগী ভুমি মালিকরা জানান,সিএস,এসএ,আরএস আছে নামজারী নাই।নাজারী না থাকায় বিডিএস খতিয়ান খুলতে হয়রানী হতে হচ্ছে।তিনটি রেকর্ড এবং নামজারী আছে আংশিক বেদখল থাকায় তার জন্যও হয়রানী হতে হচ্ছে।সবচেয়ে বেশী হয়রানী করছে আরএস নকশার বর্ডার বিডিএস নকশার বর্ডারের সাথে মিল না থাকার কারনে।অন্যদিকে আরএস মালিকের কাছ হতে ক্রয়সুত্রে মালিকানার ক্ষেত্রে বন্টননামা দলিল,যৌথ আরএস খতিয়ানের ক্ষেত্রে ওয়ারিশদের সম্মত্তিপত্রসহ হাজরো সমস্যার উৎপত্তি সৃষ্টির মাধ্যমে চাওয়া হচ্ছে উৎকোচ।একদিকে বিডিএস নকশা প্রস্তুতে ত্রুটি অন্য দিকে ভুমির মালিকানার ক্ষেত্রে দলিলধস্তাবেজে সামান্য মিল-অমিল বের করে সমাধার পরিবর্তে জরিপে অনিশ্চিয়তা কথা বলা হচ্ছে।শ্রীপুর মৌজার ভুমি জরিপে নিয়োজিত ১৫ জন সার্ভেয়ারের মধ্যে অনৈতিক প্রস্তাবের বিষয়ে ২/৩ জন সা়র্ভেয়ার ছাড়া প্রায় সবারই বিরুদ্ধে এবং তাদের সহকারীদের বিরুদ্ধ ব্যাপক ঘুষ বানিজ্যের অভিযোগ রয়েছে।সার্ভেয়ার ও সহকারীরা ভুমি মালিকদের দলিলপত্র,দখল ও দাগে হযবরল পরিবেশ সৃষ্টি করে রাখছেন।আর তাতে ঘুষে মিলছে মুক্তি।ওই অসাধু সার্ভেয়ারগন ও সহকারিরা ভুমির মালিকদের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছেন লাখ লাখ টাকা।
অভিযোগ এবং সমস্যাগুলো মাঠপর্যায়ের সার্ভেয়ার ও সহকারীরা অস্বিকার করেন।এ বিষয়ে একাধিক উপ-সহকারি সেটেলমেন্ট কর্মকর্তারা বলেন,এসব বিষয়ে আমাদের কাছেত কোন অভিযোগ আসেনি।আপনারা(সাংবাদিক) পান কোথায়?ওইসব কর্মকর্তাদেরকে ভুক্তভোগিদের দেয়া ২/৩ টি কলরেকর্ড শুনালে অভিযোগ বিষয়টির ব্যাপারে পরিস্কার হন।

গত ৯ নভেম্বর তারিখে দৈনিক দেশবাংলায় শ্রীপুরের ভুমি জরিপের উপর প্রতিবেদন প্রকাশিত হওয়ার পর জরিপ কর্মকর্তারা নড়েচরে বসেন।তাৎক্ষনিক একজন সার্ভেয়ারকে বদলী এবং গত ১৩ নভেম্বর রবিবার সকল উপ-সহকারি সেটেলমেন্ট কর্মকর্তা ও সার্ভেয়ারদের নিয়ে জরিপ কাজে যে সব বিশৃংখলা সৃষ্টি হয়েছে তা থেকে উত্তরনের জন্য সকলকে নির্দেশ দেন সহকারি সেটেলমেন্ট কর্মকর্তা সুধীর চন্দ্র সরকার।পুনরায় যাতে এধরনের বিভ্রতকর পরিবেশ সৃষ্ট না হয় এবং ভুমি মালিকরা যাতে হয়রানী না হয় সে দিকে সতর্ক থাকার নির্দেশনা দেয়া হয় বলে জানা গেছে।মনে রাখতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা হচ্ছে ভুমি সেবা ডিজিটাল বদলে যাচ্ছে দিনকাল।
শ্রীপুরে ভুমি জরিপে টাকা নেয়ার বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম,পত্রিকা ও অনলাইনে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হওয়ায় অসাধু সার্ভেয়ারগন তাদের অন্যয্য ও অনৈতিক কাজে পাশে রাখতে আর্থীক সুবিধার প্রলোভন দেখিয়ে স্হানীয় কতিপয় ধান্ধাবাজ নামধারী সংবাদকর্মিদের সহযোগীতা শ্রীপুরের পেশাদার সংবাদকর্মিদের সমন্বয় করে প্রায় ৩০ জন সংবাদকর্মিদের তালিকা সংগ্রহ করেন সার্ভেয়ার সংঘঠনের সভাপতি তরিকুল ইসলাম।এতে করে শ্রীপুরে কর্মরত সংবাদকর্মিরা বিস্মিত।

সংবাদকর্মিদের নামের তালিকা বিষয়ে জানতে সার্ভেয়ার সমিতির সভাপতি তরিকুল ইসলাম তার মুঠোফোনে একাধিক কল করলেও ফোন রিসিভ করেননি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম