1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
সিরাজদিখানে সরকারি স্কুলের জায়গা দখল ও গাছ কাটার অভিযোগ - দৈনিক শ্যামল বাংলা
বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৯:৫৮ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
নবীনগরে কোটাপদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল রাউজানে তিনদিন ব্যাপী বৃক্ষ মেলার উদ্বোধন রাউজানে ৬০ প্রজাতির ১ লাখ ৮০ হাজার ফলজ ও ঔষধি গাছের চারা রোপন কর্মসূচি উদ্বোধন মাগুরায় নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান শরিয়াতউল্লাহ হোসেন রাজনকে গণসংবর্ধনা প্রদান  *জরুরী রক্ত প্রয়োজন*রক্তের গ্রুপ: AB+ (এবি পজেটিভ) ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে চৌদ্দগ্রামে তিন ছাত্রলীগ নেতার পদত্যাগ কক্সবাজারে সাংবাদিকদের উপর আ’লীগ-ছাত্রলীগের হামলা সারাদেশে ছাত্রসমাজের উপর মর্মান্তিক হামলার প্রতিবাদ ও কোটা সংস্কারের এক দফা দাবিতে দোহাজারীতে বিক্ষোভ মিছিল  এমএসআর’র ১ কোটি ২৬ লক্ষ টাকা লুটপাট সমস্যায় জর্জরিত চট্টগ্রামের চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-অধিকাংশ চিকিৎসক অনুপস্থিত থাকেন নবীনগরে কুতুবিয়া দরবার শরীফে শাহাদাতে কারবালা মাহফিল অনুষ্ঠিত

সিরাজদিখানে সরকারি স্কুলের জায়গা দখল ও গাছ কাটার অভিযোগ

সিরাজদিখান (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২৩
  • ১৩১ বার

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে শাসনগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জায়গায় দখল ও গাছ কাটার অভিযোগ উঠেছে প্রভাবশালী সুজন হাওলাদার বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে প্রশাসনে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। সুজন হাওলাদার উপজেলার জৈনসার ইউনিয়নের শাসনগাঁও গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে।

গতকাল বুধবার দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখাযায়, বিদ্যালয়ের পুরান ভবন সংলগ্ন একটি জায়গার কিছু অংশ গাছকেটে খুটি গেরে টিনের বেড়া দিয়ে রাখা হয়েছে। সেখানে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ব্যবহারের জন্য দুটি বাথরুম ও একটি টিউবয়েলও রয়েছে। সেই জায়গা থেকে একটি বড় আকারের গাছ কাটা হয়েছে। কাটা গাছের গুড়িগুলো সামনের রাস্তায় ফেলে রাখা হয়েছে।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, সিরাজদিখান উপজেলার ১২০ নং শাসনগাঁও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটি (প্রতিষ্ঠাকালীন) পুরাতন ভবন যা দীর্ঘদিন যাবৎ পরিত্যাক্ত অবস্থায় রয়েছে। ভবনের পূর্ব পাশে একটি গণশিক্ষালয়, একটি বাথরুম ও একটি টিউবওয়েল বিদ্যমান আছে। যা ৭৩ শাসনগাঁও মৌজার ৬৭/৪৬/৪৯/৮/৫১/৪/৫৩/৩ ও ৩৫৮ নং খতিয়ানের মোট ৩৬.৫০ শতাংশ জমি জমির মধ্যে অবস্থিত। অবৈধ দখলদাররা উক্ত জায়গাটি টিনর বেরার মাধ্যমে দখল করে ভবন নির্মাণ করার পায়তারা করতেছে।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুপর্ণা সরকার বলেন, আমাদের বিদ্যালয়ের পুরাতন ভবনটি ১৯৯৫ সালে নির্মাণ করা হয়। বর্তমানে নতুন ভবন নির্মাণের কারণে আগের ভবনটি পরিত্যক্ত অবস্থায় রয়েছে। এই সুযোগে সুজন আমাদের বিদ্যালয়ের জায়গাটিতে বেড়া দিয়ে দখলের চেষ্টা করছে। আমরা বাধা দিতে গেলে সে এই জায়গাটি তাদের নিজের বলে দাবি করে। পরবর্তীতে বিষয়টি আমি উপজেলা শিক্ষা অফিসর ও ইউএনও মহোদয় কে জানিয়েছি।

অভিযুক্ত মোঃ সুজন হাওলাদার বলেন, জায়গা আমার আমি বেড়া দিছি। যারা আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ করছে তারা রাজাকার।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মাহমুদ বেলায়েত হোসেন বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর বিষয়টি আমি ইউএনও মহোদয়কে জানিয়েছি ও প্রধান শিক্ষকের মাধ্যমে জমি মাপার জন্য আবেদন দিয়েছি। এর মাঝেই ছিলেন অফিসার সার্ভেয়ার জমাটি মাপতে যাবে। মাপার পর আমাদের জায়গা দেখে আমরা ব্যবস্থা নিব।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরিফুল আলম তানভীর বলেন, বিষয়টা আমি জানতে পেরে চেয়ারম্যান মহোদয় কে সেখানে তাৎক্ষণিকভাবে সকল ধরনের কার্যক্রম বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছি। পরবর্তীতে মাপঝোপের মাধ্যমে জাগা নির্দিষ্ট হওয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম