1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
ঠাকুরগাঁওয়ে মথরাপুর পাবলিক হাই স্কুলেই ২০ জন যমজ ভাইবোন লেখাপড়া করেন। - দৈনিক শ্যামল বাংলা
সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ০৭:৪৯ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশের অভিযানে ৬ জন গ্রেফতার – মাদক উদ্ধার ! ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে প্রচার যুদ্ধ, চেয়ার দখলে দ্বিমুখী লড়াই ! Situs Slot Gacor Pragmatic Bet 200 Resmi mudah Menang dan Terpercaya ঈদগাঁওতে ৬ দিন পর নির্বাচনী সহিংসতায় কর্মী খুনের মামলা কয়েক শত মাছের ঘের প্লাবিত হয়ে একাকার রাঙ্গাবালীতে ঘূর্ণিঝড় রিমালের তান্ডবে ক্ষয়ক্ষতি ২০ গ্রাম প্লাবিত আইপিএল এ সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে ফাইনালে রীতিমতো বিধ্বস্ত করে শিরোপা জিতে নিল কলকাতা নাইট রাইডার্স তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে এনে সাজা দেওয়া হবে -প্রধানমন্ত্রী ইনাতগঞ্জ ডিগ্রী কলেজে অধ্যক্ষ ও শিক্ষকের অপসারণের দাবিতে শিক্ষার্থীদের অবস্থান কর্মসূচি পালন।। ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম ঠাকুরগাঁওয়ে শিশুর পুরুষাঙ্গে ইট বেঁধে ভিডিও, ৩ কিশোর আটক

ঠাকুরগাঁওয়ে মথরাপুর পাবলিক হাই স্কুলেই ২০ জন যমজ ভাইবোন লেখাপড়া করেন।

মোঃ মজিবর রহমান শেখ,
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৬ মার্চ, ২০২৩
  • ৯৫ বার

ঠাকুরগাঁও জেলায় প্রায় শতবর্ষী এক স্কুলে ২০ জন যমজ ভাই-বোন পড়াশোনা করছে। একসাথে খাওয়া, খেলাধুলা করা ও পড়াশোনা করাসহ তারা মুগ্ধতা ছড়াচ্ছে আশপাশে। এক বিদ্যালয়ে এত যমজ ভাই-বোন পড়াশোনার বিষয়টি নিয়ে এলাকায় বেশ সাড়া দেখা দিয়েছে। একই সময়ে পৃথিবীতে আলোর মুখ দেখা, আর জীবনের পথচলায় একই রকম দেখতে, একই ভাল লাগা আর খারাপ লাগাগুলো বেশ আকৃষ্ট করে সবাইকে। ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার মথুরাপুর পাবলিক হাই স্কুল ১৯৩২ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এই প্রতিষ্ঠানে একসাথে বিভিন্ন শ্রেণীতে ২০ জন যমজ ভাই-বোন পড়ালেখা করছে। স্কুলটির ষষ্ঠ শ্রেণীতে পড়ে তাহসিন-তাসনিম ও সান-মুন, সপ্তম শ্রেণীতে পড়ে কার্তিক-গণেশ, হাবিব-হাফিজ ও সুমাইয়া-সাদিয়া, অষ্টম শ্রেণিতে শুভ-সৌরভ, নবম শ্রেণিতে হাসি-খুশি ও তাহবি-তাসবি এবং দশম শ্রেণীতে পড়াশোনা করছে আবিদ-অমিত ও রাহুল রাহা- চঞ্চল রাহা।

যমজ ভাই-বোনদের চেহারায় মিল থাকায় তাদের নিশ্চিত করতে খানিকটা বিড়ম্বনা হলেও তাদের সাথে নিয়ে বেশ উপভোগ করেন বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও সহপাঠীরা। দু’জন একসাথে বেড়ে ওঠাকে বেশ গর্বের সাথে দেখছেন যমজ ভাই-বোনরা । ষষ্ঠ শ্রেণীর যমজ দুই ভাই সান ও মুন জানায়, আমরা দুই ভাই একসাথে সব কাজ করি। খাওয়া, খেলাধুলা ও স্কুলে আসা যাওয়া একসাথে করি৷ আমাদের দু’জনের পছন্দ মাংস ভাত৷ শুধু দু’জনের দুই রঙ পছন্দ। একজনের লাল আরেকজনের নীল। আমরা একই পোশাক পরে বিভিন্ন জায়গায় যাই৷ শুধু পোশাক না আমাদের জুতা, চশমা, প্যান্ট সব এক রকম। এতে আমাদের খুব ভালো লাগে৷ তবে অনেকেই আমরা কে কোনটা চিনতে পারে না। আমরা এ বিষয়টাকে আরও বেশী উপভোগ করি। আমরা দুই ভাই অনেক আনন্দ করি একসাথে। বাড়িতে একসাথে পড়তে বসি। আমাদের বাবা-মা ও পরিবার সবাই আমাদের নিয়ে খুশি। সপ্তম শ্রেণীর যমজ দুই বোন সুমাইয়া ও সাদিয়া জানায়, আমাদের সব কাজ আমরা একসাথে করি। আমাদের দুজনের প্রিয় রঙ হল নীল৷ আমরা একসাথে স্কুলে আসি।

একসাথে ক্লাশে বসি৷ টিফিনের সময় আবার একসাথে খেলাধুলা করে থাকি। সব কাজগুলো আমরা একসাথে করি৷ ক্লাসের সময় একজনকে বকা দিলে আমাদের আরেকজনকে খুব খারাপ লাগে৷ আবার কেউ যদি আমরা ভালো কিছু করি তাহলে মন থেকে ভালো লাগা কাজ করে৷ স্কুলের শিক্ষক ও সহপাঠীরা আমাদের চিনতে পারে না৷ তখন একসাথে দু’জনকে ডাকে তখন আমাদের খুব ভালো লাগে। নবম শ্রেণির যমজ দুই বোন হাসি ও খুশি দাবি, আমাদের একটা বড় সুবিধা হলো কেউ কোনো ভুল করলে আরেকজনকে চাপিয়ে দেওয়া যায়৷ পরে আবার আমরা একসাথে মিলে যাই। আর পরিবারের কাছে, আত্মীয় স্বজনদের কাছে ও শিক্ষকদের কাছেও আমরা বেশ আদর পাই। আমরা আমাদের পুরো সময়টা একসাথে কাটাই। আমরা জমজ হয়ে অনেক খুশি। মথুরাপুর পাবলিক হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ আলমগীর বলেন, আমাদের স্কুলে ২০ জন যমজ ভাই-বোন পড়ে। আমরা তাদের প্রতি অত্যন্ত যত্নশীল। তাদের প্রত্যেকের শ্রেণীকক্ষের মেধাক্রম কাছাকাছি। এটা আমাদের স্কুলের জন্যও গর্ব যে, তারা আমাদের স্কুলে পড়ছে। আমরা তাদের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনা করি। ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুর রহমান এর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, যমজ ছাত্র-ছাত্রীদের বিষয়ে আন্তরিক প্রশংসা করেন, এবং ঐ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে জমজ ছাত্র-ছাত্রীদের ভালোভাবে দেখাশোনা ও লেখাপড়ার সকল সহযোগিতার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন ।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম