1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
নবীগঞ্জে দাতা সদস্যর সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণে ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।। থানায় অভিযোগ - দৈনিক শ্যামল বাংলা
বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৯:৩২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
নবীনগরে কোটাপদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল রাউজানে তিনদিন ব্যাপী বৃক্ষ মেলার উদ্বোধন রাউজানে ৬০ প্রজাতির ১ লাখ ৮০ হাজার ফলজ ও ঔষধি গাছের চারা রোপন কর্মসূচি উদ্বোধন মাগুরায় নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান শরিয়াতউল্লাহ হোসেন রাজনকে গণসংবর্ধনা প্রদান  *জরুরী রক্ত প্রয়োজন*রক্তের গ্রুপ: AB+ (এবি পজেটিভ) ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে চৌদ্দগ্রামে তিন ছাত্রলীগ নেতার পদত্যাগ কক্সবাজারে সাংবাদিকদের উপর আ’লীগ-ছাত্রলীগের হামলা সারাদেশে ছাত্রসমাজের উপর মর্মান্তিক হামলার প্রতিবাদ ও কোটা সংস্কারের এক দফা দাবিতে দোহাজারীতে বিক্ষোভ মিছিল  এমএসআর’র ১ কোটি ২৬ লক্ষ টাকা লুটপাট সমস্যায় জর্জরিত চট্টগ্রামের চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-অধিকাংশ চিকিৎসক অনুপস্থিত থাকেন নবীনগরে কুতুবিয়া দরবার শরীফে শাহাদাতে কারবালা মাহফিল অনুষ্ঠিত

নবীগঞ্জে দাতা সদস্যর সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণে ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।। থানায় অভিযোগ

মোঃ হাবিবুর রহমান চৌধুরী শামীম নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ)
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪
  • ১২৫ বার

নবীগঞ্জ উপজেলার বড় ভাকৈর (পূর্ব) ইউনিয়নের বাগাউড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক জসিম উদ্দিন সেলিম কর্তৃক উক্ত বিদ্যালয়ের খন্ডকালীন দাতা সদস্য মুহিবুর রহমানের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ ও বিদ্যালয় থেকে বের করে দেয়ার ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় চলছে। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। এ ব্যাপারে গত শুক্রবার রাতে বাগাউড়া গ্রামের মুহিবুর রহমান বাদী হয়ে নবীগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগটি তদন্ত করতে এসআই তৌহিদ হোসেনকে দায়িত্ব প্রধান করেছেন নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি)মাসুক আলী।

অভিযোগ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানাযায়,বাগাউড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পেয়ার আলী বিগত ২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে মৃত্যু বরণ করেন। এরপর ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেম নিয়োগপ্রাপ্ত হন। তিনি ৩ মাস দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসেবে তারই স্থলাভিষিক্ত হন জগন্নাথপুর উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের কামড়া খাইড় গ্রামের মৃত তছর উদ্দিনের পুত্র জসিম উদ্দিন সেলিম। বিদ্যালয়ে যোগদানের পর থেকে তিনি নানা অনিয়ম দুর্নীতি করে আসলেও দেখার যেন কেউ নেই। প্রবাস থেকে অনুদানের লক্ষ লক্ষ টাকা আসলেও আয়-ব্যয়ের কোন হিসেব নেই। কারন বিদ্যালয়ে রয়েছে তার নিজস্ব লোক।খন্ডকালীন
দাতা সদস্য মুহিবুর রহমান অভিযোগে উল্লেখ করেন,তিনি বিদ্যালয়ের উন্নয়নসহ বিভিন্ন বৈঠকে উপস্থিত থাকেন। গত ৩১ ডিসেম্বর বেলা ১১টার সময় ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক জসিম উদ্দিন সেলিমের অফিস কক্ষে গিয়ে তিনি সকল দাতা সদস্যর তালিকাসহ প্রবাসীদের অনুদানের টাকার হিসেব দিতে বলেন। এ সময় শিক্ষক উত্তেজিত হয়ে মারমুখী আচরন করেন। পাশাপাশি অফিসের লোকজনকে ডাকতে থাকেন। এক পর্যায়ে মুহিবুর রহমানকে তিনি হুমকি দিয়ে বলেন,যদি আর কোনদিন বিদ্যালয়ের টাকার হিসেব চাই,তাহলে তাকে বিদ্যালয়ে ডুকতে না দেয়াসহ মারপিট করে উচিত শিক্ষা দেয়া হবে। এ ঘটনায় মুহিবুর রহমান প্রতিবাদ করলে শিক্ষক ধাক্কা দিয়ে অফিস থেকে তাকে অপমান করে বের করে দেন। পরে তিনি এলাকার লোকজনের সহায়তায় বিদ্যালয় থেকে বের হয়ে আসেন।নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুক আলী অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম