1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
চৌদ্দগ্রামে ক্রেতারা অর্ধেক দামেও কিনছে না তরমুজ - দৈনিক শ্যামল বাংলা
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০১:২৮ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
নকলায় ভাই বউয়ের লাঠির আঘাতে ভাসুর নিহত: মা-মেয়ে আটক ঈদগাঁওতে আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভায় ডিসি নির্বাচন সুষ্ঠু ও নির্বিঘ্ন করতে প্রশাসন বদ্ধপরিকর ঠাকুরগাঁওয়ে যৌতুক ছাড়াই একসাথে বিবাহ করলেন দুই বন্ধু ! মোঃ মজিবর রহমান শেখ, ঠাকুরগাঁও জেলা Best Totally Free Dating Websites in 2024 বাঁশখালীতে সড়ক সংস্কার কাজের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন সাংসদ মুজিবুর রহমান মাগুরায় ডেন্টাল সোসাইটি’র নির্বাচনে সভাপতি ডাঃ সুশান্ত ও সাঃ সম্পাদক ডাঃ ইমন পুনঃ নির্বাচিত ঠাকুরগাঁওয়ে বালিয়াডাঙ্গীতে প্রাণিসম্পদ প্রদর্শন অনুষ্ঠিত হয়েছে ঠাকুরগাঁও জেলা আইন শৃংখলা কমিটির সভা চৌদ্দগ্রামে প্রাণীসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত প্রবীন আ’লীগ নেতা মোজাফফর আহমেদ

চৌদ্দগ্রামে ক্রেতারা অর্ধেক দামেও কিনছে না তরমুজ

মুহা. ফখরুদ্দীন ইমন, চৌদ্দগ্রাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি:
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৭ মার্চ, ২০২৪
  • ১৬ বার

মুহা. ফখরুদ্দীন ইমন

চৌদ্দগ্রাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে অর্ধেক দামেও ক্রেতারা কিনছে না আলোচিত তরমুজ। রমযানের শুরুর দিকে তরমুজের আকাশচুম্বি দামের ফলে নাকাল ছিলো সাধারণ মানুষ। ইচ্ছে থাকা স্বত্তে¡ও পরিবার নিয়ে তরমুজ ভক্ষণের সুযোগ পায়নি নিম্ম-মধ্যবিত্ত পরিবারের লোকজন সহ খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষ। রমযানকে উপলক্ষ করে অসাধু ব্যবসায়ীরা বেশি মুনাফার আশায় অপরিপক্ক তরমুজ বাজারজাত করেন। অনেক ক্রেতাই সে সময় রমযানের কারণে বেশ চড়া দামে তরমুজ ক্রয় করলেও প্রত্যাশা অনুযায়ী সেই তরমুজে কালার ও মিষ্টি না আসায় ঠকেছেন। এ ক্ষোভ থেকেই তখন সোস্যাল মিডিয়ায় বিষয়টি ভাইরাল হয়। এ সময় স্লোগান উঠে অন্তত এক সপ্তাহ তরমুজ না কিনে সেইসব অসাধু তরমুজ ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে নিরব প্রতিবাদ জানানোর।

বুধবার (২৭ মার্চ) দুপুরে চৌদ্দগ্রাম বাজারে সরেজমিন দেখা যায়, গত সপ্তাহেও যে তরমুজটি ৪০০-৬০০ টাকায় বিক্রি হয়েছে, সেটি এখন হ্যান্ড মাইকের মাধ্যমে ঘোষণা দিয়ে ১৫০-২০০ টাকায় বিক্রি করলেও ক্রেতা নেই বললেই চলে।

কথা হয় তরমুজ ক্রেতা সকিনা বেগমের সাথে, তিনি জানান, ‘শিশু নাতি সাইমনকে ডাক্তার দেখিয়ে ফেরার পথে নাতি বায়না ধরে তরমুজ খাবে। শুনেছি এখানো তরমুজ পরিপক্ক না হওয়ায় সুমিষ্ট না। তারপরও নাতির আবদারে ২০০ টাকা দিয়ে একটি তরমুজ কিনলাম।

চৌদ্দগ্রাম বাজারের ওয়াপদা রোডের সম্মুখের তরমুজ বিক্রেতা শহিদুল ইসলাম জানান, ‘তরমুজ পাকাপোক্ত না হওয়ায় বেশি দামে কেনা তরমুজ হ্যান্ড মাইকে ডেকে ডেকে অর্ধেক দামে বিক্রি করছি। তারপরও ক্রেতারা কিনতে চায়না।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ জানান, ‘রমযান উপলক্ষে কেজি মাপে তরমুজ বিক্রি রোধে এবং সার্বক্ষণিক বাজার মনিটরিং এর অংশ হিসেবে উপজেলা প্রশাসন কয়েকবার ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেছে। এ সময় সুনির্দিষ্ট অভিযোগের প্রেক্ষিতে কয়েকজন অসাধু ব্যবসায়ীকে জরিমানা সহ সতর্ক করা হয়েছে। বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে উপজেলা প্রশাসন সদা সতর্ক রয়েছে।’

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম