1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
ঠাকুরগাঁওয়ে হরিপুরে বাসঝাড় এখন বাবুই পাখির শেষ আশ্রয় । মোঃ মজিবর রহমান শেখ, ঠাকুরগাঁও জেলা - দৈনিক শ্যামল বাংলা
রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০৮:২৮ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
ঘূর্ণিঝড় রেমাল: ঝুঁকি এড়াতে প্রস্তুত বাঁশখালী উপজেলা প্রশাসন মাগুরায় নবনির্বাচিত শ্রীপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রাজনকে গণসংবর্ধনা প্রদান হোমনায় পরিবারতন্ত্র ভাঙতে চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়ে মাঠে নেমেছি-সিদ্দিকুর রহমান আবুল হাটহাজারীতে বাসচাপায় প্রাণ গেলো দুইজনের : চালক আটক আনোয়ারায় আনারস মার্কায় নিজে এবং আত্মীয়দের ভোট দিতে ও ভোট কেন্দ্র পাহারা দিতে বললেন কাজী মোজাম্মেল চন্দনাইশে এসে পৌঁছেছে নির্বাচনী সরঞ্জাম শিক্ষকদের দাবিতে দায়সারা প্রতিবেদনের অভিযোগ; অনাস্থা কুবি শিক্ষক সমিতির চন্দনাইশে অনুমোদনহীন মাছ বাজারে প্রশাসনের অভিযান ৬ মাছ ব্যবসায়ীকে ৯০ হাজার টাকা জরিমানা ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশের অভিযানে ৩ মাদক ব্যবসায়ি গ্রেফতার , মাদক উদ্ধার মিশ্র ফলের বাগান ও মৎস্য প্রকল্প করে সফল রাউজান পৌর কাউন্সিলর আজাদ  

ঠাকুরগাঁওয়ে হরিপুরে বাসঝাড় এখন বাবুই পাখির শেষ আশ্রয় । মোঃ মজিবর রহমান শেখ, ঠাকুরগাঁও জেলা

মোঃ মজিবর রহমান শেখ ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধি

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৭ এপ্রিল, ২০২৪
  • ৩৫ বার

ঠাকুরগাঁও জেলার হরিপুর উপজেলার টেংরিয়া প্রধান পাড়া গ্রামের দৃষ্টি নন্দিত একটি পুকুর, এক সময় যে পুকুরের পাড় ঘেষে ছিল অসম্ভব বনজঙ্গল। কত আগে এই পুকুর টি খনন করা হয় তা কেউ আদো বলতে পারছেনা তবে ধারণা করা হয় তৎকালীন জমিদার বংশের কেউ এই পুকুরটি খনন করেছিল সেচকপ্লের জন্য, তবে জানা যায় এক সময় এই পুকুরে বানর,সাপ,বেজি,শিয়াল,বিভিন্ন ধরনের পাখ পাখালি দেখা যেত কিন্তু বনজঙ্গল উজার করার ফলে বর্তমান এসব প্রানী বিলুপ্ত প্রায়। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, এক সময়ের গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য তালগাছ, সুপারি গাছ, নারকেল গাছ গুলোতে এক সময় চির চেনা তাঁতি পাখি বাবুই শখের বসে বাসা তৈরি করতো, কিন্তু বিলুপ্ত প্রায় গাছ গুলোতে আশ্রয় না হওয়ায় শেষ আশ্রয় টুকু ও হয়েছে বান্ধা পুকুরের বাস ঝাাড়ে সুনিপুণ ভাবে তৈরি করছে তাদের শখের বাসা। তাদের সাথে প্রতিবেশীর মত মিলেমিশে একাকার হয়ে আছে ডাহুক, খনজনা,বক,বালিহাঁস, ঘুঘু,মাছরাঙা ইত্যাদি পাখপাখালি। ঘুরতে আসা অত্র উপজেলার মো: মিজানুর জানান, আসলে আমরা যখন ছোট ছিলাম তখন এই পুকুর বনজঙ্গলে ঘেরা ছিল ছিল বড়বড় শিমুল, তেতুল,বট,পাকর, ইত্যাদি গাছগাছালির সমারোহ কিন্তু দিন দিন বনজঙ্গল উজার করার ফলে বর্তমানে এসব দৃশ্য চোখে আর নজরে আসেনা। তাই আমাদের বন্যপ্রাণী ও বন উজার রক্ষাতে আমাদের সবাই কে একসাথে একজোট হয়ে কাজ করতে হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম