1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
দক্ষিণ চট্টগ্রামের অর্ধ শতাধিক গ্রামে আগামীকাল বুধবার ঈদ - দৈনিক শ্যামল বাংলা
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ০৬:১৪ অপরাহ্ন

দক্ষিণ চট্টগ্রামের অর্ধ শতাধিক গ্রামে আগামীকাল বুধবার ঈদ

মো. ইকবাল হোসেন, সাতকানিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৯ এপ্রিল, ২০২৪
  • ৪৯ বার

সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে আগামীকাল বুধবার চট্টগ্রামের অর্ধ শতাধিক গ্রামে উদযাপিত হবে ঈদুল ফিতর। এদিন সকালে সাতকানিয়া উপজেলার মীর্জাখীল দরবার শরিফের মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

মির্জাখীল দরবার শরিফের সৈয়্যদ মাওলানা আবদুল হামিদ শাহ’র (নুরুল আরেফিন) ইমামতিতে দরবার শরিফের মসজিদে সকাল ১০টায় প্রথম ও সৈয়দ ড. মাওলানা মকছুদুর রহমানের ইমামতিতে সকাল সাড়ে ১০টায় দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

অন্যদিকে, চন্দনাইশ উপজেলার জাহাঁগিরীয়া শাহসুফি মমতাজিয়া দরবারের সৈয়্যদ মাওলানা মোহাম্মদ আলীর ইমামতিতে সকাল সাড়ে ৮টায় প্রথম ও দরবারের শাহজাদা মাওলানা মো. মনজুর আলীর ইমামতিতে সকাল ৯টায় ইদগাহ ময়দানে ঈদুল ফিতরের দ্বিতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

মীর্জাখীল দরবার শরিফের অনুসারীদের মতে, চার মাযহাবের সমন্বিত ‘আল ফিকাহ আলা মাযাহিবিল আরবায়া’ গ্রন্থ অনুযায়ী পৃথিবীর কোথাও চাঁদ দেখা গেলে সব স্থানেই ঈদ উদযাপনের বিধি রয়েছে। সে হিসেবে মীর্জাখীল দরবার শরিফের অনুসারীরা ২শ’ বছরের বেশি সময় ধরে আগাম ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহা পালন করে আসছে। এছাড়া জাহাঁগিরিয়া মমতাজিয়া দরবারের অনুসারীরাও একইভাবে ঈদ উদযাপন করে আসছে।

সাতকানিয়া মির্জাখীল দরবার সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকালে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। তাই মঙ্গলবারের মধ্যে জামাতের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হচ্ছে। চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলা ছাড়াও দেশের বিভিন্ন স্থানে থাকা দরবার শরিফের মুরিদরা ঈদের জামাত আদায়ের জন্য দরবার শরিফে আসবেন। এছাড়া যেসব এলাকায় অধিক সংখ্যক মুরিদ রয়েছে, তারা নিজ নিজ এলাকায় ঈদের জামাত আদায় করবেন।

মির্জাখীল দরবার শরিফের সব মুরিদ সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে একদিন আগে থেকে রোজা পালন শুরু করেছিল। সেই অনুযায়ী আজ তাদের ৩০টি রোজা সম্পন্ন হবে। দরবার শরিফের অনুসারীরা ২শ’ বছরের অধিক সময় ধরে সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে রোজা পালন ও ঈদ উদযাপন করে আসছে।

চট্টগ্রামের যেসব গ্রামে বুধবার ঈদুল ফিতর উদযাপন হবে সেগুলো হলো- সাতকানিয়া উপজেলার মীর্জাখীল, চরতি, সুইপুর, গাটিয়াডাঙ্গা ও কেরাণীহাট, পটিয়া উপজেলার কালারপোল, হাইদগাঁও, মল্লপাড়া ও বাহুলী, চন্দনাইশ উপজেলার কাঞ্চননগর, গাছবাড়িয়া, হারালা, বাইনজুড়ী, কানাইমাদারি ও ঢেমশা, আনোয়ারা উপজেলার তৈলারদ্বীপ, বরুমছড়া, বারখাইন, সরকারহাট, গহিরা ও বারশত, বোয়ালখালী উপজেলার চরণদ্বীপ, খরণদ্বীপ, পূর্ব গোমদণ্ডী ও পশ্চিম কধুরখীল, বাঁশখালী উপজেলার কালীপুর, চাম্বল, শেখেরখীল, পুঁইছড়ি ও ডোমার এবং লোহাগাড়া উপজেলার ধর্মপুর ও কলাউজান।

এছাড়াও বোয়ালখালী, হাটহাজারী, সন্দ্বীপ, ফটিকছড়ি, আলীকদম, নাইক্ষ্যংছড়ি, কক্সবাজার, টেকনাফ, মহেশখালী, কুতুবদিয়ার বেশ কয়েকটি গ্রামে মির্জাখীল দরবার শরিফের অনুসারী রয়েছেন। তারাও বুধবার ঈদ উদযাপন করবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম