1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
৭২ বছর পর ভাষা আন্দোলনের প্রথম শহীদ  রফিকের কবরটি সনাক্ত  - দৈনিক শ্যামল বাংলা
রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০৮:০৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
ঘূর্ণিঝড় রেমাল: ঝুঁকি এড়াতে প্রস্তুত বাঁশখালী উপজেলা প্রশাসন মাগুরায় নবনির্বাচিত শ্রীপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রাজনকে গণসংবর্ধনা প্রদান হোমনায় পরিবারতন্ত্র ভাঙতে চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়ে মাঠে নেমেছি-সিদ্দিকুর রহমান আবুল হাটহাজারীতে বাসচাপায় প্রাণ গেলো দুইজনের : চালক আটক আনোয়ারায় আনারস মার্কায় নিজে এবং আত্মীয়দের ভোট দিতে ও ভোট কেন্দ্র পাহারা দিতে বললেন কাজী মোজাম্মেল চন্দনাইশে এসে পৌঁছেছে নির্বাচনী সরঞ্জাম শিক্ষকদের দাবিতে দায়সারা প্রতিবেদনের অভিযোগ; অনাস্থা কুবি শিক্ষক সমিতির চন্দনাইশে অনুমোদনহীন মাছ বাজারে প্রশাসনের অভিযান ৬ মাছ ব্যবসায়ীকে ৯০ হাজার টাকা জরিমানা ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশের অভিযানে ৩ মাদক ব্যবসায়ি গ্রেফতার , মাদক উদ্ধার মিশ্র ফলের বাগান ও মৎস্য প্রকল্প করে সফল রাউজান পৌর কাউন্সিলর আজাদ  

৭২ বছর পর ভাষা আন্দোলনের প্রথম শহীদ  রফিকের কবরটি সনাক্ত 

ডাঃ আল হাসান মোবারক স্টাফ রিপোর্টার ঢাকা

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৩০ এপ্রিল, ২০২৪
  • ৪০ বার

৮ ফাল্গুন, ১৩৫৮,  (২১ ফেব্রুয়ারি ১৯৫২) বৃহস্পতিবার  দুপুর সোয়া ৩ টায়,  ভাষার আন্দোলনে প্রথম শহীদ রফিকউদ্দিন আহমেদ। ঐদিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফুলার রোডের মিছিলে পুলিশের গুলিতে রফিক ঘটনাস্থলে শহীদ হন, পরে রাত ৩ টায় পাক সামরিক বাহিনীর প্রহরায় ঢাকার আজিমপুর কবর স্থানে তাকে সমাহিত করে । কিন্ত তাঁর কবর কালের বিবর্তনে হারিয়ে যাওয়ার পথে, ৭২ বছর পর চিহ্নিত করেছে ভাষা শহীদ রফিকের ভাতিজা।

 

গত ১৬ বৈশাখ ১৪৩১ (২৯ এপ্রিল ২০২৪ ইং) সোমবার ভাষা আন্দোলন গবেষক আধ্যপক এম এ বার্ণিকের সর্বিক তত্ত্বাবধানে ১৯৫২ সালে জাতির শ্রেষ্ট সন্তান ভাষা আন্দোলনে প্রথম শহীদ  রফিকের কবর চিন্তিত করতে তাঁর ভাতিজা আবদুর রউফ আজিমপুর কবর স্থানে আসেন।

এ সময় আজিমপুর  কবর স্থানে  উপস্থিত সকলকে সাথে নিয়ে কবর টিকে চিহ্নিত করেন, ভাষা শহীদ রফিকের ভাতিজা আবদুর রউফ। কবরের স্থানটি সনাক্তকরণ করে দেখিয়ে দিয়েছেন  ভাষা আন্দোলন গবেষক আধ্যপক এম এ বার্ণিককে।

কবর স্থানটি সনাক্তকরণে সময় আরো উপস্থিত ছিলেন  ডা.শরিফ  সাকি, কবি জান্নাতুন নাঈম এবং সাংবাদিক সাজেদা হক।

৭২ বছর পর  ভাষা শহীদ বরকতের কবরের পূর্বপার্শ্বে শহীদ রফিক উদ্দিন আহমেদ এর কবর টিকে ভাষা আন্দোলন গবেষক আধ্যপক এম এ বার্ণিককের হাত ধরে তাঁর ভাতিজা সনাক্ত কারণে মাধ্যমে  চিহ্নিত করে শহীদের নামাঙ্কিত ফলক ঝুলিয়ে দেন।

ভাষা সৈনিক শহীদ রফিক উদ্দিন  আহম্মেদ ১৯২৬ সালের ৩০ অক্টোবর মানিকগঞ্জ জেলার সিংগাইর উপজেলার পারিল বলধারা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম আবদুল লতিফ এবং  মায়ের নাম রাফিজা খাতুন। তিনি তার  পাঁচ ভাই ও দুই বোনের  মধ্যে রফিক ছিলেন সবার বড়।

রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে ১৯৫২ সালে ২১শে ফেব্রুয়ারী  ঢাকা মেডিকেল কলেজের সামনের  রাস্তায় ১৪৪ ধারা ভঙ্গে ছাত্র-জনতা বিক্ষোভ প্রদর্শন করে।
ঐ সময় মিছিলটি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হোস্টেল প্রাঙ্গনে আসলে পুলিশ তাতে গুলি চালায়, এতে   তৎকালীন জগন্নাথ কলেজের ছাত্র  রফিক উদ্দিনের আহম্মেদ মাথায় গুলিবিদ্ধ হন এবং ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।  ভাষা আন্দোলনে তার আত্মত্যাগের জন্য ২০০০ সালে বাংলাদেশ সরকারে তাকে মরণোত্তর একুশে পদক প্রদান করে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম