1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
মাগুরায় দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্য সংঘর্ষ-মোটর সাইকেল ভাংচুর! আহত-১০ আটক -৪ - দৈনিক শ্যামল বাংলা
রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০৮:১৮ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
ঘূর্ণিঝড় রেমাল: ঝুঁকি এড়াতে প্রস্তুত বাঁশখালী উপজেলা প্রশাসন মাগুরায় নবনির্বাচিত শ্রীপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রাজনকে গণসংবর্ধনা প্রদান হোমনায় পরিবারতন্ত্র ভাঙতে চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়ে মাঠে নেমেছি-সিদ্দিকুর রহমান আবুল হাটহাজারীতে বাসচাপায় প্রাণ গেলো দুইজনের : চালক আটক আনোয়ারায় আনারস মার্কায় নিজে এবং আত্মীয়দের ভোট দিতে ও ভোট কেন্দ্র পাহারা দিতে বললেন কাজী মোজাম্মেল চন্দনাইশে এসে পৌঁছেছে নির্বাচনী সরঞ্জাম শিক্ষকদের দাবিতে দায়সারা প্রতিবেদনের অভিযোগ; অনাস্থা কুবি শিক্ষক সমিতির চন্দনাইশে অনুমোদনহীন মাছ বাজারে প্রশাসনের অভিযান ৬ মাছ ব্যবসায়ীকে ৯০ হাজার টাকা জরিমানা ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশের অভিযানে ৩ মাদক ব্যবসায়ি গ্রেফতার , মাদক উদ্ধার মিশ্র ফলের বাগান ও মৎস্য প্রকল্প করে সফল রাউজান পৌর কাউন্সিলর আজাদ  

মাগুরায় দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্য সংঘর্ষ-মোটর সাইকেল ভাংচুর! আহত-১০ আটক -৪

মোঃ সাইফুল্লাহ, মাগুরা।

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৩ মে, ২০২৪
  • ১৮ বার

মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার নবগ্রাম বাজারে বুধবার রাতে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ, ১০-১২ টি মোটর সাইকেল ও নির্বাচনী অফিস ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে ৪ জনকে আটক করেছে শ্রীপুর থানা পুলিশ।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, রাত আনুমানিক ৯ টার দিকে উপজেলার গয়েশপুর ইউনিয়নের নবগ্রাম বাজারে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী মোতাসিম বিল্লাহ সংগ্রাম ও শরীয়তউল্লাহ হোসেন মিয়া রাজনের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

ঘটনার সময় রাজন গ্রুপের লোকজন নবগ্রাম বাজারে খেলাফত বিশ্বাসে দোকানের সামনে মোটরসাইকেল মার্কার একটি অফিস উদ্বোধন করেন। কিছুক্ষণ পরে সংগ্রাম গ্রুপের লোকজন মোটরসাইকেল বহর নিয়ে মোটর সাইকেলের অফিসের সামনে এসে বিভিন্ন ধরনের উস্কানীমূলক মন্তব্য করেন। তখন উভয় পক্ষের লোকজনের মধ্যে কথা-কাটাকাটি শুরু হলে সংগ্রাম তথা আব্দুল হালিম চেয়ারম্যান গ্রুপের লোকজন রাজন মিয়ার মটরসাইকেল মার্কার অফিস ভাংচুর করে। পরবর্তীতে রাজন গ্রুপের লোকজন একত্রিত হয়ে সংগ্রাম তথা হালিম চেয়ারম্যানের লোকজনকে ঘিরে ফেললে পুলিশ উপস্থিত হওয়ার আগেই মারধরসহ ১০-১২টি মোটর সাইকেল ভাংচুর করে।

উভয় পক্ষের লোকজনের মধ্যে মারামারির সময় ফিরুজ মণ্ডল (৪০), মুক্তার হোসেন (৩৮)সহ অন্তত ১০ জন আহত হয়। আহতদের কয়েকজন বর্তমানে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স (দ্বারিয়াপুর) চিকিৎসা নেওয়ার জন্য ভর্তি আছে। এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোনো সময় উভয় পক্ষের লোকজনের মধ্যে মারামারিসহ ঘরবাড়ি ভাংচুর ও লুটপাট হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে সুজন (২৭), আনোয়ার (২৪), ছিদ্দিক (৫৬)ও সঞ্চয়কে (৩২) আটক করে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, আহতদের সর্টগানের গুলি লেগেছে।
শ্রীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ তাসমীম আলম জানান, খবর পেয়েই পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। সন্দেহজনকভাবে ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত আছে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম