1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. nrghor@gmail.com : Nr Gh : Nr Gh
  3. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
ভুয়া সাংবাদিকদের দৌড়ে অতিষ্ঠ নগরবাসী - দৈনিক শ্যামল বাংলা
শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০৫:৩২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
ঠাকুরগাঁওয়ে বালিয়াডাঙ্গীতে ভাতিজিকে ধর্ষণের অভিযোগে ফুপার বিরুদ্ধে আদালতে মামলা । রাজশাহীতে র‍্যাবের হাতে দুই ভুয়া সাংবাদিক গ্রেফতার ইরানি স্কলার ড. সাইয়েদ আলী রেযা মাহদী মুসাভী জিরি মাদরাসা পরিদর্শন করেছেন ঠাকুরগাঁওয়ে দলিত আদিবাসীদের অনূকুলে সংবাদ প্রকশের লক্ষ্যে মতবিনিময় সভা । ঠাকুরগাঁওয়ে আমনের ভরা মৌসুমেও পানি নেই : ধানক্ষেত ফেটে চৌচির । চকোরিয়া প্রেসক্লাবে জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন ঠাকুরগাঁওয়ে মন্দিরে আবারও ১৪৪ ধারা জারি । অভিবাসনে পোকা আশুলিয়ায় যুবলীগের শোক দিবস পালিত খাদ্যর দিক দিয়া আমরা স্বয়ংসম্পূর্ণ : এমপি মিলাদ গাজী

ভুয়া সাংবাদিকদের দৌড়ে অতিষ্ঠ নগরবাসী

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ৬১ বার

গোলাম সরওয়ার পিন্টু :
ঢাকায় তারা বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেল ও পত্রিকার জাল পরিচয়পত্র ব্যবহার করে ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন পেশার মানুষকে হুমকি দিয়ে চাঁদা আদায় করে৷ এতে বিপাকে পড়ছেন পেশাদার সাংবাদিকরা৷
পুলিশের এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানিয়েছে, ভুয়া সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে বিশেষ অভিযানে নেমেছে পুলিশ৷

ঢাকার কারওয়ান বাজার এলাকা থেকে তানভীর আহমেদ নামে এক ভুয়া সাংবাদিককে পুলিশ গ্রেপ্তার করে৷ তার কাছ থেকে দুটি টেলিভিশন চ্যানেল এবং চারটি পত্রিকার জাল পরিচয়-পত্র উদ্ধার করা হয়৷ এছাড়া, তার মোটরবাইকেও লাগানো ছিল টেলিভিশন চ্যানেলের স্টিকার৷ সে ইনসিওরেন্স কোম্পানির একজন কর্মকর্তার কাছ থেকে চাঁদা আদায়ের সময় হাতেনাতে ধরা পড়ে৷ প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা শহীদুল ইসলাম জানান, ক্ষতিকর রিপোর্ট করার হুমকি দিয়ে এই ভুয়া সাংবাদিক গত ছয় মাস ধরে তাঁর কাছে থেকে প্রতিমাসে প্রায় পাঁচ হাজার টাকা করে নিত৷ পরে তিনি জানতে পারেন যে, সে আসলে সাংবাদিক নয়৷ তখন তিনি তাকে ধরে পুলিশে দেন৷ পুলিশ তার ছয়টি ভুয়া পরিচয়-পত্র এবং মোটরসাইকেল জব্দ করেছে৷
ঢাকা মহানগর পুলিশের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, তারা প্রায় প্রতিদিনই এরকম ভুয়া সাংবাদিকদের নানা বেআইনি তত্‍পরতার খবর পান৷ চলতি বছরে তারা এ পর্যন্ত অন্তত ২০ জন ভুয়া সাংবাদিকে আটক করেছেন৷ তিনি জানান, এইসব ভুয়া সাংবাদিকদের ঠাটবাট এমন যে তাদের সাধারণ মানুষ সহজে ধরতে পারেন না৷ এমনকি পেশাদার সাংবাদিকরাও তাদের দেখে মাঝেমধ্যে বিভ্রান্ত হন৷ তারা অনেকেই দামি গাড়িতে চলা-ফেরা করে৷ আর ক্যামেরায় জাল স্টিকার লাগিয়ে মানুষকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে চাঁদা আদায় করে৷ তিনি আরো জানান, তারা এইসব ভুয়া সাংবাদিকের বিরুদ্ধে বিশেষ অভিযান পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন৷

এদিকে, আটক হওয়ার পর ভুয়া সাংবাদিক তানভীর আহমেদ পুলিশকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে যে, তাদের চক্রের মূল বিগ বস রয়েছে, এরমধ্যে ভুয়া সংবাদিক রিপন রৌদ্র অন্যতম, তাঁর রয়েছে একটি ভুয়া নিউজ পোর্টাল ও একটি ভুয়া টেলিভিশন যাহার নাম রৌদ্র বাংলা টিভি, তিনি ঢাকা শহরের ক্যাসিনো, জুয়া, মাদক ও ফ্লাটে যৌন ব্যবসা সহ সবধরনের অপকর্ম থেকে প্রতি মাসে অন্ততপক্ষে দেড় থেকে দুই লাখ টাকা আয় করেন, বিলাসবহুল ফ্ল্যাটে থাকেন, চিকচাক অফিস, তিনি ৫ থেকে ১০ হাজার টাকা একটি সাংবাদিক আইডি কার্ড বিক্রি করেন, তাঁর এই ভুয়া কার্ড মুদি দোকানদার, চা- পান বিক্রেতা, গেস্ট হাউজের স্টাফ, মাদক ব্যবসায়ী, সন্ত্রাস ও অপরাধীদের নিকট বিক্রি করা হয়, তাঁর নির্দিষ্ট কোনো ইনকাম নেই সে অপরাধ জগত থেকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে দুই নম্বরি টাকা দিয়ে চাল চুলাহীন থেকে আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে গেছেন ৷ সে আরো জানায় তাদের ক্যামেরা, গাড়ি সব কিছু আছে৷ আর জাল পরিচয়-পত্র তারা নিজেরাই কম্পিউটারে তৈরি করে থাকে৷ এসব পরিচয়পত্র তারা তৈরি করে একাধিক নামে৷ সে পুলিশকে জানায়, ঢাকায় বর্তমানে এরকম অন্তত ২০টি ভুয়া সাংবাদিক চক্র আছে এবং তারা দলবেধে চলা-ফেরা করেন, তাদের নিয়ন্ত্রণ করেন এই ভুয়া সংবাদিক রিপন রৌদ্র। এই রিপন রৌদ্রের রয়েছে চারটি ফেইসবুক আইডি একটিতে লিখা তিনি দৈনিক সরজমিন পত্রিকার সাংবাদিক, অথচ সরযমিন পত্রিকার কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাঁর বলেন এই নামে তাদের কোনো সাংবাদিক নেই, দ্বিতীয় আইডিতে লিখা ম্যানেজিং ডিরেক্টর, রৌদ্র বাংলা টিভি, তৃতীয় আইডিতে লিখা সম্পাদক ও প্রকাশক ক্রাইম এক্সপ্রেস বিডি এ বিষয়ে তথ্য মন্ত্রণালয় যোগাযোগ করা হলে কর্তৃপক্ষ জানান এ নামে তথ্য মন্ত্রণালয় কোনো নিউজ পোর্টাল নেই, তাঁর চার নাম্বার আইডিতে লিখা রৌদ্র মাল্টিমিডিয়া সেখানে গিয়ে দেখা গেলো একাধিক সুন্দরী নারীর সঙ্গে কিছু আপত্তিকর ছবি, তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি সব কিছু অশিকার করেন, পরে রাত ১ টা ১৫ মিনিটের সময় প্রতিবেদককে ফোন দিয়ে তিনি দীর্ঘ ৯৩ মিনিট কথা বলে বিভিন্ন ভাবে ভায়াস্ট করতে চান , তাঁর প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তিনি বিভিন্ন রকম ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদান করেন, এ ব্যাপারে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অবগত করা রয়েছে, তাঁরা এই ভুয়া সংবাদিক রিপন রৌদ্রকে খুব দ্রুত গ্রেফতার করা হবে বলে আসসাস দেন ।

এ বিষয়ে ঢাকার কয়েকজন পেশাদার সাংবাদিক বাংলাদেশের আলোকে জানান, শুধু পুলিশকে উদ্যোগ নিলেই হবে না, বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম এবং সাংবাদিক ইউনিয়নকে ভুয়া সাংবাদিক চিহ্নিত করতে ব্যবস্থা নিতে হবে৷ নয়ত সাংবাদিকদের প্রতি মানুষের আস্থা কমে যাবে আর পেশাদার সাংবাদিকরা বিব্রতকর অবস্থায় পড়বেন৷

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম