1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : naga5000 : naga5000 naga5000
প্রায় ৩৫ হাজার ইভিএম প্রস্তুত - দৈনিক শ্যামল বাংলা
মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০৮:৪৮ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
Tips for choosing the best sugar daddy for you আ’লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বাঁশখালী আ’লীগে ঐক্যের সুর 1win – лучшая букмекерская контора с высокими коэффициентами и широкой линией ставок для азартных игроков ১০৫ জন অধ্যাপক ও সহযোগী অধ্যাপক থাকা স্বত্বেও ডিন হওয়ার অভিযোগ কুবি উপাচার্যের বিরুদ্ধে নকলায় ইউএনওর সাজানো মামলা থেকে সাংবাদিক রানা বেকসুর খালাস ঠাকুরগাঁয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে আওয়ামী লীগের পৃথক পৃথক ভাবে ৭৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন। বাস্তব জীবনেও সামাজিক মাধ্যমের প্রভাব স্বাধীন গণমাধ্যমে হুমকি, কণ্ঠ রোধে চেষ্টার প্রতিবাদে রাজশাহীতে মানববন্ধন তিতাসে বিএনপি থেকে পদত্যাগ করলেন সাংবাদিক কবির হোসেন শ্রীপুরে কৃষি মেলার উদ্ধোধন” বয়স্ক জনগোষ্ঠীর আর্থিক সুরক্ষা নিশ্চিত করা একটি কল্যাণমূলক রাষ্ট্রের অন্যতম দায়িত্ব–প্রতিমন্ত্রী টুসি এমপি

প্রায় ৩৫ হাজার ইভিএম প্রস্তুত

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
  • ১৮৬ বার

মোহাম্মদ অলিদ তালুকদার :
দুই সিটির ২ হাজার ৪৬৮টি ভোটকেন্দ্রের ১৪ হাজার ৪৩৪টি ভোটকক্ষ রয়েছে। মেয়র, সাধারণ ও সংরক্ষিত পদে তিনটি ব্যালটে ভোট হবে। ভোটের আগের দিন সব সরঞ্জাম পৌঁছে গেছে।

প্রতিটি কক্ষে অতিরিক্ত ইভিএমও মজুদ থাকবে।

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনের আগের দিন আজ শুক্রবার বিকালে ফার্মগেইট এলাকায় বিজিবি সদস্যদের টহল শুরু হয়।

সব মিলিয়ে ৩৫ হাজার ইভিএম প্রস্তুত রাখবে নির্বাচন কমিশন। ভোট সামনে রেখে সব কেন্দ্রে ইভিএম প্রদর্শনী ও মক ভোটিং করা হয়েছে।
দুই সিটি ভোটের নির্বাচনী কর্মকর্তাদের প্রয়োজনীয় কারিগরি সহায়তা দিতে প্রতি কেন্দ্রে দুইজন করে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্য নিয়োজিত থাকবেন। সব কেন্দ্রে ইভিএম-এর ব্যবস্থাপনায় সশস্ত্র বাহিনীর ৫ হাজার ২৮০ জন সদস্য থাকবেন। তারা শুধু ইভিএম পরিচালনার দায়িত্ব পালন করবেন।

দেশি-বিদেশি পর্যবেক্ষক প্রায় ১২০০, সাংবাদিক কয়েক হাজার

২২টি নিবন্ধিত পর্যবেক্ষক সংস্থার ১ হাজার ১৩ জন স্থানীয় পর্যবেক্ষক ভোট দেখবেন। এরমধ্যে উত্তর সিটি করপোরেশনে এসব সংস্থার ৫০৩ জন, দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে ৪৫৭ জন এবং কেন্দ্রীয়ভাবে আরও ৫৩ জন পর্যবেক্ষক রয়েছেন।

ঢাকায় ১০ দেশের দূতাবাসের ৭৪ জন পর্যবেক্ষক ভোট দেখার কথা রয়েছে।

এছাড়া গণমাধ্যমের কয়েক হাজার সাংবাদিক কার্ড সংগ্রহ করেছেন।

ভোটে ব্যয় প্রায় ৬০ কোটি টাকাঃ

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটির ভোট সারতে প্রায় ৬০ কোটি টাকা ব্যয় হচ্ছে। এর মধ্যে দুই সিটির নির্বাচন পরিচালনায় প্রায় ১৯ কোটি টাকা, আইন-শৃঙ্খলা খাতে ‘পরিস্থিতি বিবেচনায়’ ২২ থেকে ২৫ কোটি টাকা এবং প্রশিক্ষণ খাতে অন্তত ১৬ কোটি টাকা ব্যয় বরাদ্দ রয়েছে। ভোট শেষে সব ব্যয় সমন্বয় করে এবার খরচ দাঁড়াতে পারে ৬০ কোটি টাকার মতো।

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন ভাগ হওয়ার পর ২০১৫ সালে প্রথম নির্বাচনে উত্তর ও দক্ষিণে পরিচালন ব্যয় ছিল ৯ কোটি ১২ লাখ টাকা। আর আইন-শৃঙ্খলাসহ সব মিলিয়ে ব্যয় দাঁড়িয়েছিল ২০ কোটি টাকা।

সম্ভাব্য ব্যয় (এ বরাদ্দ বাড়তে পারে): ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের জন্য বরাদ্দ প্রায় সাড়ে ১১ কোটি টাকা, নির্বাহী ও বিচারিক হাকিমদের জন্য ১ কোটি ৫০ লাখ টাকা, মনিহারি দ্রব্যের (ভোটে ব্যবহৃত খুচরা উপকরণ) জন্য ১ কোটি টাকা, জ্বালানি ও পরিবহনের জন্য ১ কোটি ৫০ লাখ টাকা, রিটার্নিং ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাদের জন্য ২৫ লাখ টাকা, কারিগরি টিমের জন্য ১ কোটি ২০ লাখ টাকা, প্রশিক্ষণ খাতে ব্যয় প্রায় ১৬ কোটি টাকা এবং আইনশৃঙ্খলা খাতে দুই সিটিতে ২২-২৫ কোটি টাকা।

ফল ঘোষণা যেখানেঃ

ঢাকা উত্তর সিটি করপোশন নির্বাচনের ফলাফল সংগ্রহ ও পরিবেশন করা হবে শেরেবাংলা নগরের কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় মিলনায়তনে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সব কেন্দ্রের ভোটের ফল সংগ্রহ ও পরিবেশন করা হবে শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তন থেকে।

বিকাল ৪টায় ভোট শেষ হওয়ার পর কেন্দ্রভিত্তিক ভোট গণনা ও কেন্দ্রের ফলাফল ঘোষণা করবেন প্রিজাইডিং অফিসার। এরপর রিটার্নিং অফিসার একীভূত তথ্য নিয়ে বেসরকারিভাবে ফলাফল ঘোষণা করবেন।

ঢাকা উত্তরে রিটার্নিং কর্মকর্তা ইসির যুগ্মসচিব মো. আবুল কাসেম এবং দক্ষিণে ইসির আরেক যুগ্মসচিব মো. আব্দুল বাতেন।

তফসিল

২২ ডিসেম্বর প্রধান নির্বাচন কমিশনার এই নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র জমা নেওয়া হয় ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এরপর ২ জানুয়ারি হয় মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই। ৯ জানুয়ারি মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ সময়। ভোটের তারিখ ছিল ৩০ জানুয়ারি।

পূজার কারণে আন্দোলনের মুখে ভোট পিছিয়ে ১ ফেব্রুয়ারি নির্ধারণ করে কমিশন। এরজন্য দুদিন পেছানো হয় এসএসসি পরীক্ষাও।

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নিরাপদে ভোট হবে, সেই আশ্বাস দিয়ে ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে আসার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা।

ভোটের আগের দিন তিনি বলেন, “আপনাদের মাধ্যমে ভোটারদের আহ্বান জানাব- আগামীকাল (শনিবার) আপনারা যেন প্রত্যেকেই ভোটকেন্দ্র যান।”

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম