1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
টেকনাফে গরু বাজারে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের হামলা - দৈনিক শ্যামল বাংলা
রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:৩১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
নবীগঞ্জে পুলিশের বিশেষ অভিযানে ৩ কেজি ৬০০ গ্রাম গাঁজাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার প্রতি বছরের ন্যায় এবারও পর্দা নামল শেখ রাসেল ডেভেলপমেন্ট কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট-অনুর্ধ ১৫ নিজস্ব পিসিএনপির খাগড়াছড়ির জেলা সম্মেলন; সভাপতি ইঞ্জি: লোকমান সম্পাদক এসএম মাসুম রানা উন্নয়নের প্রতিটি আপনারা তদারকি করবেন ফাঁকিবাজদের ছাড় দেবেন না -অর্থ প্রতিমন্ত্রী ওয়াসিকা আয়শা খাঁন ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে বার্বাডোস চৌদ্দগ্রামে সাংবাদিক মীরুকে প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ নবীনগরে মোবাইল কোর্টে এসিল্যান্ডের উচ্ছেদ অভিযান চৌদ্দগ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় ২ যুবক নিহত ঠাকুরগাঁওয়ে নিখোঁজের ২ দিন পরে শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করেছ পুলিশ চৌদ্দগ্রামে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে জরিমানা ও কারাদন্ড

টেকনাফে গরু বাজারে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের হামলা

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১ মার্চ, ২০২০
  • ২১৫ বার

টেকনাফের সদরে গরুর বাজারে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সন্ত্রাসী হামলায় জাফর আলম নামে এক গরু বিক্রেতা গুরুতর আহত হয়েছে। বর্তমানে তার অবস্থা আশংকাজনক বলে জানা গেছে। রবিবার বিকেলে টেকনাফ সদরের ডেইল পাড়াস্থ গরুর বাজারে নিজের গরু বিক্রির সময় এক লক্ষ টাকা চাঁদা দাবিকে কেন্দ্র করে এঘটনা ঘটে। আহত জাফরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।
জানা গেছে, আহত জাফর আলম টেকনাফ সদরের গোদারবিল এলাকার বাদশা মিয়ার পুত্র, তিনি উক্ত বাজারে গরু বিক্রি করার সময় স্থানীয় ইয়াবা ব্যবসায়ী আবু ছৈয়দের নেতৃত্বে ৮/১০ জনের একদল সন্ত্রাসী তার কাছ থেকে এক লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে। এ সময় তিনি চাঁদা দিতে অপারগতা জানালে সন্ত্রাসীরা লাঠি ও লোহার রড দিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি মারধর করতে থাকে, এতে জাফরের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আগাত হলে সে অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে এবং পরে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে তাকে টেকনাফ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। দীর্ঘ কয়েক বছর যাবৎ ইয়াবা ব্যবসায়ী আবুছৈয়দসহ তার আত্বীয় স্বজনরা চাঁদাবাজি ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে উক্ত গরুর বাজার নিয়ন্ত্রণ করে আসছে। প্রভাবশালী ব্যক্তিদের ইন্ধনে প্রশাসনের নাকের ডগায় তারা এ কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে।
আবু ছৈয়দ টেকনাফ সদরের গোদারবিল গ্রামের মৃত কালা মিয়ার পুত্র, সে একজন ইয়াবা ব্যবসায়ী তার ভাই ছৈয়দ কাছিম এক লক্ষ ইয়াবা ট্যাবলেট নিয়ে আটক হয়ে ১৪ বছরের সাজা ভোগ করছে কক্সবাজার জেলা কারাগারে। এছাড়াও আবু ছৈয়দের আপন দুই শ্যালক মো: আমিন ও নুরুল আমিন টেকনাফ সদরের ডেইল পাড়া গ্রামের কালা মো: আলীর পুত্র, ওই মো: আমিন ও নুরুল আমিন ইয়াবা ব্যবসায়ী হিসাবে আত্বসমর্থন করে বর্তমানে কক্সবাজার জেলখানায় বন্দি জীবন কাটাচ্ছে।
ইয়াবা ব্যবসায়ী আবু ছৈয়দ, পুত্র আবদুল্লাহ ও কেফায়ত, ভাই ছৈয়দ কাছিম, মীর কাসেম, মো: কাছিম, শ্যালক মো: আমিন ও নুরুল আমিন এরা সবাই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের তালিকাভুক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী।
সুত্রে জানা গেছে, আগামী ৪ মার্চ টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির দাতা সদস্যদের নির্বাচন, উক্ত কমিটিতে দাতা সদস্য নির্বাচনে ইয়াবা ব্যবসায়ী আবু ছৈয়দের পুত্র ইয়াবা ব্যবসায়ী আবদুল্লাহ ৩ লক্ষ টাকা অনুদান দিয়ে উক্ত কমিটিতে নির্বাচন করার অভিযোগ উঠেছে, একজন ইয়াবা ব্যবসায়ী বিদ্যালয়ের নির্বাচনে অংশ নেয়াকে কেন্দ্র করে টেকনাফ সদরের সচেতন মহলের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে।
এলাকার লোকজন জানায়, আবু ছৈয়দ ও তার ভাই মীর কাসেমসহ সবাই কসাই কাজ ও গরুর ব্যবসা করত। কিন্তু তারা ইয়াবা ব্যবসাকে আড়াল করার জন্য গরু ব্যবসায় নেমে পড়েছে। তারা মায়ানমার থেকে গরু আমদানীর নামে ইয়াবা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। আবু ছৈয়দ সিন্ডিকেট, হুন্ডির মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা মায়ানমায়ারে পাচার করছে এবং এ কোটি কোটি টাকার বিনিময়ে গরু ও গরুর পেটে করে ইয়াবা আমদানী করছে। প্রাপ্ত তথ্যে আরো জানাযায়, মায়ানমার থেকে গরু আমদানীর পূর্বে গরুর পেটে ইয়াবা ট্যাবলেট ডুকিয়ে দেয় পরে টেকনাফে এনে উক্ত গরু জবেহ করে ট্যাবলেটগুলো পেট থেকে বের করে মাংসগুলো বিক্রি করে দেয়, এভাবেই তারা অভিনব কায়দায়, সুকৌশলে ইয়াবা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম