1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : naga5000 : naga5000 naga5000
রায়ের পরই বিচারক বদলি সাবেক এমপি আউয়ালের জামিন নিয়ে নাটকীয়তা - দৈনিক শ্যামল বাংলা
সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৯:৪৪ পূর্বাহ্ন

রায়ের পরই বিচারক বদলি সাবেক এমপি আউয়ালের জামিন নিয়ে নাটকীয়তা

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৪ মার্চ, ২০২০
  • ১৬৬ বার

মোহাম্মদ অলিদ সিদ্দিকী তালুকদার :
দুর্নীতির মামলায় পিরোজপুরের সাবেক সংসদ সদস্য এবং পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম এ আউয়াল ও তার স্ত্রী লায়লা পারভীনের জামিন নিয়ে দিনভর তুলকালাম কাণ্ড ঘটেছে গতকাল পিরোজপুর জুড়ে। বেলা পৌনে ১২টার দিকে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক তাদের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। এই আদেশের কিছুক্ষণ পরই ওই বিচারককে বদলির আদেশ দেয় আইন মন্ত্রণালয়। পরে একই আদালতে নব নিযুক্ত বিচারক সাবেক এমপি দম্পতির জামিন মঞ্জুর করেন। চার ঘণ্টার মাথায় দু্‌ই আদেশ ও বিচারক বদলি নিয়ে গতকাল দিনভর ছিল নানা আলোচনা। বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও ব্যাপক প্রতিক্রিয়া এসেছে।

বিচারক বদলির বিষয়ে আইন মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানায়, জেলা জজ আদালতের বিচারক মো. আব্দুল মান্নানকে মঙ্গলবার মন্ত্রণালয়ে সংযুক্ত করা হয়েছে। দ্বিতীয় যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ নাহিদ নাসরিনকে ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবী মুনসুর উদ্দিন আহমেদ জানান, শুনেছি জেলা জজ আদালতের বিচারক মো. আ. মান্নানকে আইন মন্ত্রণালয়ে বদলি করেছে।

এরপর যুগ্ম জেলা জজ নাহিদ নাসরিন দায়িত্ব পেয়েছেন। এছাড়া আর কোনও বিচারক বর্তমানে জেলায় নেই, যিনি দায়িত্ব বুঝে নিতে পারবেন।

জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক শহিদুল হক খান পান্না জানান, সাবেক এমপি একেএমএ আউয়াল এর বিরুদ্ধে দুদক যে মামলা করেছে তাতে কোন ক্রিমিনাল অফেন্স না থাকায় আমরা জামিনের আবেদন করি। তিনি বলেন, জেলা ও দায়রা জজ সম্ভবত আর্থিক ভাবে লাভবান হয়ে জামিনের আবেদন নাকচ করে। এর কিছু পরেই তারা জানতে পারেন জেলা ও দায়রাজজ আব্দুল মান্নান এর স্থলে ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ হয়েছেন ২য় যুগ্ম জেলা জজ নাহিদ নাসরিন। এর পরই সকল আইনজীবীরা পুনরায় তার আদালতে জামিনের আবেদন করেন। ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ নাহিদ নাসরিন শুনানী শেষে একেএমএ আউয়াল ও তার স্ত্রী লায়লা পারভিনকে ২ মাসের জামিন মঞ্জুর করেন।
উল্লেখ্য, দুর্নীতির মামলায় এ কে এম এ আউয়াল ও তার স্ত্রী লায়লা পারভীন মঙ্গলবার আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন। তবে জেলা জজ আদালতের বিচারক মো. আ. মান্নান আবেদন খারিজ করে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। এরপর আসামিরা মেডিক্যাল ওয়ার্ডে যাওয়ার আবেদন করেন। বিচারক তাদের চিকিৎসকের প্রেসক্রিপশনসহ সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র জমা দেওয়ার আদেশ দেন। এরমধ্যেই বিচারক পরিবর্তন হলে আসামিরা ফের জামিন পুনর্বিবেচনার আবেদন করেন। একেএমএ আউয়াল ২০০৮ ও ২০১৪ সালে পরপর দুইবার পিরোজপুর-১ (সদর-নাজিরপুর-নেছারাবাদ) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে সংসদ সদস্য হন।

এদিকে সকালে সাবেক সংসদ সদস্য এবং পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম এ আউয়াল ও তার স্ত্রী লায়লা পারভীনের জামিন আবেদন বাতিল হলে আদালত পাড়াসহ পুরো শহরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে। এ সময় উত্তেজিত নেতাকর্মীদের উপর পুলিশ আদালত পাড়াসহ শহরের বিভিন্ন জায়গায় লাঠি চার্জ করে। উত্তেজনা ছড়িয়ে পরলে শহরের সকল দোকান ও ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যায়। নেতা কর্মীরা সড়কের বেশ কয়েকটি স্থানে অগ্নিসংযোগ করায় বন্ধ হয়ে যায় যানচলাচল। এছাড়া জেলা জজের অপসারণ দাবী করে অনিষ্টকালের জন্য আদালত বর্জন করেছে পিরোজপুরের আইনজীবীগণ। এ নিয়ে আইনজীবীদের সঙ্গে পুলিশের হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম