1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : naga5000 : naga5000 naga5000
বসুন্ধরা কনভেনশন সিটি হাসপাতালে রূপ নিচ্ছে- ১৫ দিনের মধ্যে সবকিছু চুড়ান্ত হবে - দৈনিক শ্যামল বাংলা
শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ০২:৫৪ অপরাহ্ন

বসুন্ধরা কনভেনশন সিটি হাসপাতালে রূপ নিচ্ছে- ১৫ দিনের মধ্যে সবকিছু চুড়ান্ত হবে

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২০
  • ১৪৩ বার

মোহাম্মদ অলিদ সিদ্দিকী তালুকদার :
দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসায় রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) হাসপাতাল স্থাপনের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। সব ঠিক থাকলে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে সেখানে চিকিৎসা কার্যক্রম শুরু হবে। এর আগে সরকারকে আইসিসিবিতে পাঁচ হাজার শয্যার হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার প্রস্তাব দেয় দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্প গোষ্ঠী বসুন্ধরা। এরই ধারাবাহিকতায় দুই হাজার শয্যার আইসোলেশন সেন্টার স্থাপনের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। এর বাইরে সেখানে হবে ৭১ বেডের আইসিইউ ইউনিট। এর জন্য প্রয়োজনীয় সরঞ্জামও কেনা হচ্ছে। বিদেশ থেকে আনা হচ্ছে এসব সরঞ্জাম।

গতকাল রবিবার সকাল সাড়ে ১১টায় আইসিসিবিতে এক ব্রিফিংয়ে এই আইসোলেশন সেন্টার স্থাপনের সর্বশেষ অবস্থা সম্পর্কে অবহিত করা হয়। ব্রিফ করেন ঢাকা সিটি বিভাগের স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী মাসুদুল আলম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী সাইফুল ইসলাম, আইসিসিবির প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা এম এম জসীম উদ্দিন প্রমুখ।
ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, এই হাসপাতালে মোট দুই হাজার ৭১টি বেড থাকবে। এর মধ্যে ৭১ বেডের আইসিইউ ইউনিট স্থাপন করা হচ্ছে। অক্সিজেন প্লান্টসহ আইসিইউর যাবতীয় সরঞ্জাম দেশের বাইরে থাকে আনা হচ্ছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে হাসপাতালে বেড চলে আসবে। পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম পরিচালনার জন্য প্লান্ট আনা হচ্ছে তুরস্ক থেকে। অক্সিজেন প্লান্ট সিস্টেম আনা হচ্ছে ইউকে থেকে। এসব সরঞ্জাম আনা হবে কার্গো বিমানে। বৈশ্বিক লকডাউন পরিস্থিতিতে এসব সরঞ্জাম আসতে একটু সময় লাগছে। তবে সব ঠিক থাকলে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে চালু হবে এই হাসপাতালের কার্যক্রম।

এ উদ্যোগ নেওয়ায় বসুন্ধরা গ্রুপকে ধন্যবাদ জানান স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী মাসুদুল আলম। তিনি বলেন, ‘স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের মাধ্যমে এ কাজগুলো বাস্তবায়িত হচ্ছে। এ হাসপাতাল স্থাপনের যাবতীয় ফ্যাসিলিটি খরচ বসুন্ধরা গ্রুপ বহন করছে। যে এক্সপো জোনে হাসপাতালের মূল অবকাঠামো হচ্ছে তার দৈনিক ভাড়া ৪৫ লাখ টাকা। এ ভাড়ার টাকা বসুন্ধরা গ্রুপ নিচ্ছে না। আইসিইউ ইউনিটের ভেন্টিলেটরগুলো সরবরাহ করা হবে সিএমএইচডি থেকে। ডাক্তার, নার্সসহ জনবলের দায়িত্ব নিয়েছে সরকার।

আইসিসিবির প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা এম এম জসীম উদ্দিন বলেন, ‘এখানে সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা আছে। হাসপাতালের জন্য অতিরিক্ত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার প্রয়োজন হবে। আমরা সেই কাজ শুরু করে দিয়েছি। এখন পর্যন্ত ৫০ শতাংশের বেশি কাজ সম্পন্ন হয়েছে। যত দিন এই মহামারি থাকবে, তত দিন পর্যন্ত এই হাসপাতাল চালু রাখার পরিকল্পনায় রেখেছি আমরা। সব কাজ পুরোদমে চলছে।’

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম