1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
"এবার লকডাউন হলে মধ‍্যবিত্তরা আত্মহত্যা ছাড়া কোন গতি নেই বস।" - দৈনিক শ্যামল বাংলা
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৪৭ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
নকলায় ভাই বউয়ের লাঠির আঘাতে ভাসুর নিহত: মা-মেয়ে আটক ঈদগাঁওতে আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভায় ডিসি নির্বাচন সুষ্ঠু ও নির্বিঘ্ন করতে প্রশাসন বদ্ধপরিকর ঠাকুরগাঁওয়ে যৌতুক ছাড়াই একসাথে বিবাহ করলেন দুই বন্ধু ! মোঃ মজিবর রহমান শেখ, ঠাকুরগাঁও জেলা Best Totally Free Dating Websites in 2024 বাঁশখালীতে সড়ক সংস্কার কাজের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন সাংসদ মুজিবুর রহমান মাগুরায় ডেন্টাল সোসাইটি’র নির্বাচনে সভাপতি ডাঃ সুশান্ত ও সাঃ সম্পাদক ডাঃ ইমন পুনঃ নির্বাচিত ঠাকুরগাঁওয়ে বালিয়াডাঙ্গীতে প্রাণিসম্পদ প্রদর্শন অনুষ্ঠিত হয়েছে ঠাকুরগাঁও জেলা আইন শৃংখলা কমিটির সভা চৌদ্দগ্রামে প্রাণীসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত প্রবীন আ’লীগ নেতা মোজাফফর আহমেদ

“এবার লকডাউন হলে মধ‍্যবিত্তরা আত্মহত্যা ছাড়া কোন গতি নেই বস।”

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৭ জুন, ২০২০
  • ৯৭ বার

ময়মনসিংহ থেকে ষ্টাফ রিপোর্টার শিব্বির আহমদের প্রতিবেদন : কথা হলো মধ‍্যবিত্ত পরিবারের উর্পাজন করা এক কর্তার সাথে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এই যুবক লকডাউন পরিস্থিতি আলোচনা করেই কাঁদলেন। লকডাউন হলে আমাদের কোন উপায় থাকেনা। আমরা কোন উপার্জনে বের হতে পারিনা। পারিনা কারও কাছে হাত পাততে। শুধুই চেখের পানি ঝড়াতে হয়।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন এলাকা ভিত্তিক লকডাউন। এটা হলেও উপার্জন করে চলতে পারবো আমরা। চলতে ফিরতে পারা যায়। কম রোজগার হোক কিন্তু কারও দিকে চেয়ে থাকতে হয়না। চোখের জল পরেনা। অন্ততপক্ষে দু’বেলা ডাল ভাত খেয়ে চলা যায়। দোকান বাকী,ঘর ভাড়া বাকী, বিদুৎ বিল, গ‍্যাস বিল, এইসব অনেক কিছুই বাকী পরে আছে। ধীরে ধীরে তো আমাকেই পরিশোধ করতে হবে। আর যদি লকডাউন হয় তবে আবার সব বন্ধ হয়ে যাবে। চরম বিপাকে পরে যাবো আমরা এই মধ‍্যবিত্ত পরিবার। কাউকে কিছুই বলতে পারবো না। বন্ধ হবে আয় রোজগারের পথ। চলতে পারবোনা পরিবার পরিজন নিয়ে । পথে বসার চেয়ে মরে যাওয়া অনেক ভালো। আপনিই বলেন ঐভাবে কি চলা যায়। মধ‍্যবিত্ত পরিবারের উপার্জনক্ষম এই যুবক এইসব বলতে বলতে চোখের জল থামাতে আর পারলো না। সরকার এব‍্যাপারে সদয় দৃষ্টি দিলে আমরা মধ‍্যবিত্তরা কারও কাছে আর হাত পাততে হবে না। কষ্ট করে চলা ভালো তবু হাত পাতা ভালো না। কথা আমার ও আমাদের একটাই। সবাই সচেতন ভাবে চললেই কিন্তু পুরো লকডাউন থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এলাকা ভিত্তিক লকডাউন হলেও চলা যায়।
অনেকে অনেক কথা বলে কারফিউ চাই, কারফিউ চাই, পুরোদেশ আবার লকডাউন চাই। ঐসব শোভাপায় শুধু ধন্নাট‍্য পরিবারের কিছু লোকজনের মুখে। যারা এইসব বলে তারা কখনও বলেনি ভাই আপনারা কার কাছে যাবেন কিছু টাকা নেন বেঁচে থাকলে পরে শোধ করে দিয়েন। আমাদের মত মধ‍্যবিত্তদের আনন্দ উল্লাসে মেতে থাকা ছাড়া কিছুই বঝিনা। আপনার সাংবাদিকরা আমাদের পাশে এসেছেন বলে দুটো কথা বলে মনে তৃষ্ণা মিটালাম। তবুও ভালো লাগলো। আর কিছু না পারেন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে হলেও আপনারা আমাদের কথা গুলো তুলে ধরার চেষ্টা করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম