1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
টেকনাফে সন্ত্রাসী হামলায় আহত রুবেল’র অবস্থা আশঙ্কাজনক! - দৈনিক শ্যামল বাংলা
বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০২:২০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
বাঁশখালীতে মধ্যরাতে অগ্নিকান্ডে পুড়েছে চার দোকান ফাঁসিয়াখালী-মেদাকচ্ছপিয়া পিপলস ফোরাম (পিএফ) সাধারণ কমিটির সভা সম্পন্ন চৌদ্দগ্রামে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উদযাপন চৌদ্দগ্রামে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ৩ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা ফের ৩দিন ক্লাস বর্জনের ঘোষণা কুবি শিক্ষক সমিতির নবীনগরে পৃথক মোবাইল কোর্ট অভিযানে সাড়ে ৪ লাখ টাকা জরিমানা দৈনিক আমাদের চট্টগ্রামের সম্পাদক মিজানুর রহমান চৌধুরী উপর হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী ঠাকুরগাঁওয়ে রানীশংকৈলে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মাঠে নেমেছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা তিতাসে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা শেরপুরে আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস পালিত

টেকনাফে সন্ত্রাসী হামলায় আহত রুবেল’র অবস্থা আশঙ্কাজনক!

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১ জুলাই, ২০২০
  • ২৮৯ বার

কক্সবাজার প্রতিনিধিঃ কক্সবাজারের ক্রাইম জোন সীমান্ত উপজেলা টেকনাফ বাহারছড়ার শামলাপুর বাজারে মাদকাসক্ত সন্ত্রাসীদের হামলায় হাটহাজারি এগ্রিকালচার ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের (এটিআই) মেধাবী ছাত্র জাহেদ হোসাইন রুবেল এবং মো: ইব্রাহীম নামে অপর একজন গুরুতর আহত হয়েছে। স্থানীয় লোকজন মুমূর্ষ অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। রুবেলের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় দ্রুত চমেক হাসপাতালে রেফার করে।

আজ সাড়ে পাঁচটার দিকে শামলাপুর বাজারের হোয়াইক্যং সড়কে নির্মাণাধীন ভবনে এ হামলার ঘটনা ঘটে জানাগেছে।

আহত রুবেল মনখালী এলাকার মৃত মোহাম্মদের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী ডালিম জানায়, সোমবার বিকেল পাঁচটার দিকে রুবেল ও আমি শামলাপুর বাজারে যায়। আনুমানিক সাড়ে পাঁচটার দিকে শামলাপুর পুরানপাড়া এলাকার খলিল আহমদের ছেলে মাদকাসক্ত হাসান বাহদুর (২৩), শিলখালী এলাকার সাবা মিয়ার ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (২৪) এবং উখিয়ার জালিয়াপালং ইউনিয়নের চোয়াংখালী এলাকার ছৈয়দ কাশেমের ছেলে আকিল রানার (২১) নেতৃত্বে একদল যুবক রুবেলকে হত্যার উদ্দোশ্যে শাপলাপুর বাজার থেকে তুলে নিয়ে (শাপলাপুর হোয়াইক্যং) সড়কের উত্তর পাশে নির্মাণাধীন একটি ভবনের ভেতরে লোহার রড় দিয়ে পিটিয়ে ও চুরি দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে এনজিও MOAS হাসপাতালে ভর্তি করে। অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরণ হওয়ার কারনে হসপিটাল কর্তৃপক্ষ তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরন করে। সেখানে রোগীর অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় ডাক্তার তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। তাকে উদ্ধার করতে গিয়ে ইব্রাহীম নামে আরো একজন আহত হয়েছে। কিন্তু চমেকে নিয়ে যাওয়ার পথে বড় দূর্ঘটনার ভয়ে পরিবারের লোকজন রুবেলকে কক্সবাজারের বেসরকারি হাসপাতাল ফুয়াদ আল খতিবে ভর্তি করা হয়।

হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, রুবেলের পেট ফুটো হয়ে চুরিটি নাড়িভুড়িতে গিয়ে আঘাত করে। তাই দীর্ঘ সময় ধরে অপারেশন করতে হয়েছে। বর্তমানে রুবেল আশঙ্কামুক্ত বলে জানান তারা।

রুবেল’র বড়ভাই নুরুল হক জানান, সন্ধ্যা ছয়টার সময় আমরা খবর পেয়ে আহত ছোটভাইকে নিয়ে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসি। সেখানে প্রাথমিক সেবা দিয়ে চমেকে প্রেরণ করে। কিন্তু রুবেলের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় আমরা ভয় পেয়ে যায়। তাই চমেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত বাদ দিয়ে প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে অপারেশনের ব্যবস্থা করি।

তিনি ঘটনার সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন। এ ঘটনায় অভিযুক্ত সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলেও জানান তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম