নয়াগাঁওবাসীর ফরিয়াদ শুধু আল্লাহর কাছে - শ্যামল বাংলা ডট নেট

নয়াগাঁওবাসীর ফরিয়াদ শুধু আল্লাহর কাছে

সোনারগাঁ প্রতিনিধি :

শেয়ার করুন
  • 22
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    22
    Shares

দালাল আর দখলদারদের দৌড়াত্বে ক্রমেই ভূমিহীন মানুষের সংখ্যা বাড়ছে সোনারগাঁয়ের পিরোজপুর ইউনিয়নের নয়াগাঁও গ্রামে।

জানাযায়, প্রতিবন্ধি শাহাবুদ্দিন, মমতা, সেলিনা ও নুরুতুনসহ এই গ্রামের ভূমিহীনরা এক খন্ড ভূমি বরাদ্দের আবেদন করেছেন উপজেলা নির্বাহীকর্মকর্তা বরাবর। অপর দিকে ভূমিদস্যুরা কোম্পানির দালালি আর সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে রীতিমত অাঙ্গূল ফুলে কলাগাছ হয়েছেন।

দ্রুত শিল্পায়নের কারনে বদলে যাচ্ছে এই গ্রামের ভৌত অবকাঠামো। প্রধান পেশা ছেড়ে বেকার হচ্ছেন কৃষকরা। কেউবা বেছে নিচ্ছেন গার্মেন্টসের চাকরি অথবা খুচরা ব্যবসার পথ।

সেজন্য এই গ্রামের অনেক মানুষ আক্ষেপ করে বলছেন- নাজানি বাপ-দাদার ভিটা মাটি ছেড়ে পালাতে হয়।

কথায় অাছে, জঙ্গলেই মঙ্গল। সেই কথারই জ্বলন্ত উদাহরন পিরোজপুর ইউনিয়নের এই গ্রাম । একসময়ের চতুর্দিকে নদী বেস্টিত অনুন্নত চর এলাকা নয়াগাঁও গ্রাম এখন সোনার খনি। আর সেই সোনার খনিতে শকুনের চোখ পড়েছে। আর তাই প্রায়ই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটছে এই গ্রামে।

সরেজমিনে দেখাযায়, ইউনিক পাওয়ার প্লান্ট, চিটাগাং বিল্ডার্স, সনি এস আর, কনকর্ড, এ প্লাস এগ্রোফার্ম, হামদার্দসহ বহু বড় বড় শিল্প গড়ে উঠছে এ লাকার পিরোজপুর ও দুধঘটা মৌজায়। যার বেশিরভাগই গড়ে উঠেছে নদীর খাস জায়গা দখল করে এবং দরিদ্র কৃষকের জমি নাম মাত্র মুল্যে ক্রয় করে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই অনেকটা চাপের মুখে নিজেদের কৃষি জমি বা বসতবাড়ি কোম্পানির কাছে ছেড়ে দিয়েছেন এই গ্রামের মানুষ। অনেকের যায়গা না কিনেই বালি ভরাট করেছে ভূমিদস্যুরা। এ নিয়ে থানায় অভিযোগ আছে একাধিক। ভূমিদস্যুদের আতঙ্কে ভুক্তভোগীরা ভয়ে কাউকে বলতেও পারছেনা। এভাবেই দিন দিন ভুমিহীন হচ্ছেন অনেকেই। অনেকেই আবার প্রতিবাদ করতে গিয়ে হামলার শিকার হচ্ছেন, মাডার মামলার আসামি হচ্ছেন।

এভাবেই হাজার কোটিটাকার সম্পদের পাহাড় গড়েছেন কেউ কেউ। তবে স্থানীয় সাধারন মানুষের ভাগ্য বদলায়নি একটুকুও।

উপজেলা কৃষি ও ভূমি অফিসের দেয়া হিসেব মতে, গত ৫ বছরে এই এলাকার কৃষি জমি কমেছে অন্তত ৯০ ভাগ। বাকি ১০ ভাগ এখন অনাবাদি। এই গ্রামের মানুষদের অাদি পেশা কৃষি কাজ, মৎস্য শিকার বদলে গিয়ে অনেকেই প্রবাসী হয়েছেন।

বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানের নজর এখন পিরোজপুর মৌজার ছোট গ্রাম নয়াগাঁওয়ে। নদী দখল, শত শত বিঘা সাধারন মানুষের কৃষি জমি, বাড়িঘর দখলের মহোৎসব চলে এই গ্রামে।এইকাজে সহযোগিতা করে স্থানীয় দালাল আর রাজনৈতিক প্রভাবশালীরা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন গ্রামবাসী জানায়, ” আমাদের বাড়িঘর বাচাতে আমরা গ্রামবাসী প্রায় ৪০ জন গত কয়েকদিন রাতে এমপি সাবের কাছে গেছিলাম, গিয়া দেহি এমপিই আমাদেরকে হুমকি দেয় তারাতারি সব সরান না হয় ইউএনওকে দিয়া উচ্ছেদ অভিযান চালিয়ে সব গুড়িয়ে ফেলব।

তিনি অারও বলেন, আমরা কোন কুল-কিনার না পাইয়া জেলা প্রশাসক বরাবর দরখাস্ত করলাম ও প্রথম আলো পত্রিকায় নিউজ হলো। আমাদের ভাগ্যে কিছুই পেলামনা। এ জন্যই মানুষেরা কইতাছে আমগো গ্রামে হক্কুনের চোখ পড়ছে। চাইয়েন ভাই আমার নাম কইয়েন না।

সাধারন মানুষের বাড়ী ঘর, কৃষি জমি দখলের অভিযোগ নিয়ে নানা সময় সংবাদ প্রকাশ হয়েছে গণমাধ্যমে। তবে কাজের কাজ হয়নি কিছুই। তাদের দখলদারিত্ব মারামারি চলছে যথারীতি। তাদের এই অপকর্মের মদদদাতা স্থানীয় সাংসদই তাই সূর্যের মতো স্পষ্ট হলো স্থানীয়দের কাছে। তাই এখন তাদের ফরিয়াদ শুধু আল্লাহর কাছে।


শেয়ার করুন
  • 22
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    22
    Shares
  •  
    22
    Shares
  • 22
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.