1. nerobtuner@gmail.com : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
  2. info@shamolbangla.net : শ্যামল বাংলা : শ্যামল বাংলা
এস এম মহসীন আর নেই - দৈনিক শ্যামল বাংলা
সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ০২:৪৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম:
নবীনগরে কোটাপদ্ধতি সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল রাউজানে তিনদিন ব্যাপী বৃক্ষ মেলার উদ্বোধন রাউজানে ৬০ প্রজাতির ১ লাখ ৮০ হাজার ফলজ ও ঔষধি গাছের চারা রোপন কর্মসূচি উদ্বোধন মাগুরায় নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান শরিয়াতউল্লাহ হোসেন রাজনকে গণসংবর্ধনা প্রদান  *জরুরী রক্ত প্রয়োজন*রক্তের গ্রুপ: AB+ (এবি পজেটিভ) ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে চৌদ্দগ্রামে তিন ছাত্রলীগ নেতার পদত্যাগ কক্সবাজারে সাংবাদিকদের উপর আ’লীগ-ছাত্রলীগের হামলা সারাদেশে ছাত্রসমাজের উপর মর্মান্তিক হামলার প্রতিবাদ ও কোটা সংস্কারের এক দফা দাবিতে দোহাজারীতে বিক্ষোভ মিছিল  এমএসআর’র ১ কোটি ২৬ লক্ষ টাকা লুটপাট সমস্যায় জর্জরিত চট্টগ্রামের চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-অধিকাংশ চিকিৎসক অনুপস্থিত থাকেন নবীনগরে কুতুবিয়া দরবার শরীফে শাহাদাতে কারবালা মাহফিল অনুষ্ঠিত

এস এম মহসীন আর নেই

বাসির জামাল

রিপোর্টার নাম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২১
  • ১৩৬ বার

সকালে উঠেই জনাব এস এম মহসীন মারা যাওয়ার সংবাদটি শুনলাম। জাসদের সাংস্কৃতিক সম্পাদক, নাট্যাভিনেতা বন্ধু শহীদ আলমগীরের পোস্ট থেকে এই মর্মান্তিক খবরটি জানলাম। রাতে তুমুল জনপ্রিয় চিত্র নায়ক ওয়াসীমের মৃত্যু সংবাদ জেনে সেহরীর আগ পর‌্যন্ত আর ঘুমই আসেনি। কবরীর মৃত্যুর জের কাটতেই না কাটতেই আরো এ দুটি মৃত্যু আমাদের সাংস্কৃতিক অঙ্গন ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হলো বলে মনে হয়।

একুশে পদকপ্রাপ্ত বিশিষ্ট নাট্যজন এস এম মহসীন ছিলেন আমার শিক্ষাগুরো।এরশাদ আমলে ঢাকায় আসার পর প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার পাশাপাশি সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে বেশ তৎপর হয়ে ওঠি। তখন রাজধানীর পুরানা পল্টনে অবস্থিত সেবা জনকল্যাণ সংস্থা নামের একটি সাংস্কৃতিক সংগঠনের সঙ্গে কাজ করা শুরু করি। এই সংগঠনটির উদ্যোগে কবিতা আবৃত্তি প্রশিক্ষণ শুরু হলে আমিও সেই প্রশিক্ষণে অংশ নেই।এতে প্রশিক্ষক হিসেবে পাই এস এম মহসীনকে।তিনি তখনই বিখ্যাত একজন অভিনেতা।কবিতা আবৃত্তির প্রশিক্ষণ নিতে গিয়ে এখানেই জানি, আবৃত্তির জন্য মৌখিক ও শারীরীক ব্যায়াম জরুরি। তারপর শব্দের উচ্চারণ। এজন্য রীতিমত উচ্চারণ বিধি আমাদের শেখানো হয়।সঠিকভাবে উচ্চারণ করার জন্য ব্যায়ামের প্রয়োজন হয় বলে মহসীন ভাই আমাদের জানান।

আবৃত্তি প্রশিক্ষণ শেষ হলে জানতে পারি, তিনি আমাদেরই শায়েস্তগঞ্জ বহুমুখী হাইস্কুলের ছাত্র ছিলেন।বাড়ি সম্ভবত টাঙ্গাইলে হলেও বাবার চাকরিসূত্রে তারা থাকতেন আমাদের এলাকায়। সেজন্য ওই স্কুলে লেখাপড়া করেছেন এবং এসএসসি দিয়েছেন। গত বছর একুশে পদক পাওয়ার পর চিন্তা করেছিলাম, তার সঙ্গে দেখা করার। কিন্তু একদিকে ব্যস্ততা, অন্যদিকে করোনা মহামারীর কারণে আর দেখা করতে পারিনি।আর তো দেখা হবে না। আল্লাহ এস এম মহসীন ভাইয়ের সৎকর্মগুলোকে কবুল তাকে বেহেস্ত নসিব করুন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

মন্তব্য করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2023 TechPeon.Com
ডেভলপ ও কারিগরী সহায়তায় টেকপিয়ন.কম