মঙ্গলবার, ১৫ Jun ২০২১, ১২:৪৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
হত্যাকান্ডের ৯ দিন পর খুনিকে গ্রেপ্তার করেছে র্্যাব মাগুরা শ্রীপুরের জনপ্রিয় শিক্ষক আমিরুজ্জামান সেলিমের ইন্তেকাল বাকলিয়ার সন্ত্রাসী এয়াকুবসহ চিহ্নিত অস্ত্রধারীদের গ্রেফতার দাবি চট্টগ্রামে বায়েজিদ লিংক রোডে ঝুঁকিপূর্ণ ভাবে পাহাড়ের বসতিদের উচ্ছেদ অভিযান শুরু পরীমণিকে ধর্ষণচেষ্টায় নাসির উদ্দিন গ্রেফতার রাউজানের গণি পাড়ার মেয়ে কিংবদন্তি শাবানার গ্রামের বাড়িতে বছরে পর বছর ঝুলছে তালা র‌্যাব ক্যাম্পের অভিযান : দুই মাদক কারবারি আটক সদ্য নবনির্বাচিত দিনাজপুর চেম্বারের রেজা হুমায়ুন ফারুক চৌধুরী (শামীম) পরিষদের বিজয়ীদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানালো পরিবেশক সমিতি দিনাজপুর কোম্পানীগঞ্জে সিএনজি ধর্মঘটের ঘোষণা পৌর মেয়র কাদের মির্জা’র চট্টগ্রামের বাকলিয়ার এয়াকুব আলী বাহিনীর চিহ্নিত অস্ত্রধারীদের অস্ত্র উদ্ধারের দাবিতে সাংবাদিক সম্মেলন

টিসিবির লাইনে মধ্যবিত্তরাও দুর্নীতি ও বাজার নিয়ন্ত্রণ জরুরি

__ মোহাম্মদ অলিদ সিদ্দিকী তালুকদার

করোনার প্রথম ধাক্কায় কঠোর লকডাউন বিপর্যস্ত করে দিয়েছে মানুষের জীবন-জীবিকা। বিপুল মানুষের আয়-উপার্জন বন্ধ হয়ে যায়। সেই পরিস্থিতি কাটিয়ে ওঠার আগেই শুরু হয়ে গেল এ মহামারীর দ্বিতীয় ঢেউ। ফলে আবারো হুমকির মুখে পড়েছে সাধারণ মানুষ। তাদের জীবন ও জীবিকা এখন গুরুতর সঙ্কটে। হতদরিদ্র ও নিম্ন আয়ের মানুষ তো বটেই, মধ্যবিত্তরাও জীবনযাত্রার স্বাভাবিক গতি ধরে রাখতে হিমশিম খাচ্ছে। পরিস্থিতি আরো সঙ্কটাপন্ন করে তুলেছে নিত্যপণ্যের দাম লাগামহীন বেড়ে যাওয়া। রীতিমতো নাভিশ্বাস উঠছে স্বল্প ও মধ্য আয়ের মানুষের। এক দিকে করোনার কারণে বিধিনিষেধ, অন্য দিকে আসন্ন রোজা। দুই কারণেই জিনিসপত্রের দাম লাফিয়ে বাড়ছে। সরকার রমজানে পণ্যমূল্য নিয়ন্ত্রণের জন্য টিসিবির মাধ্যমে খোলাবাজারে কিছু পণ্যের বিক্রি বাড়িয়েছে। ট্রাকে করে বিক্রি করা হচ্ছে ভোজ্যতেল, চিনি, পেঁয়াজ, ছোলা, আলু, ডালের মতো কিছু পণ্য। সেই ট্রাকের পেছনে ক্রেতাদের দীর্ঘ সারি দিন দিন দীর্ঘতর হচ্ছে। পত্রিকান্তরের খবরে জানা যায়, এতদিন টিসিবির লাইনে সাধারণত স্বল্প আয়ের মানুষদেরই বেশি দেখা যেত। কিন্তু বাজারে অগ্নিমূল্যের কারণে এখন কেবল নিম্ন আয়ের মানুষ নয়, মধ্যবিত্ত পরিবারের লোকেরাও ট্রাকের লাইনে ভিড় করছেন। অনেক চাকরিজীবী কিংবা মধ্যবিত্ত শ্রেণীর মানুষ প্রচণ্ড রোদ-গরমের মধ্যে ট্রাকের লাইনে দাঁড়িয়ে দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করছেন। সামান্য কিছু অর্থ যদি সাশ্রয় করা যায়, তা-ই বা কম কি?

জানা যায়, চাহিদা বাড়ার কারণে টিসিবি সারা দেশে ৫০০টি ট্রাকে করে পণ্য বিক্রি করছে। এর মধ্যে শুধু রাজধানীতেই বরাদ্দ হয়েছে ১০০ ট্রাক। চট্টগ্রামে ২০টি। প্রতিটি ট্রাকে দৈনিক যে পরিমাণ পণ্য বিক্রি করা হতো সেই পরিমাণটাও বাড়ানো হয়েছে। বাজারে চাল, তেল, ডাল, চিনি, পেঁয়াজসহ বেশির ভাগ নিত্যপণ্যের দাম চড়া। এর মধ্যে রমজান ও লকডাউন ঘিরে নতুন করে বাজারে অস্থিরতা শুরু হয়েছে। সব ধরনের চাল, সয়াবিন তেল, মসুর ডাল, পেঁয়াজ, খেজুর, আলু, দেশী রসুন ও আদাসহ বেশ কয়েকটি পণ্যের দাম বাড়তি। বেশির ভাগ সবজির দামও মানুষের নাগালের বাইরে।

টিসিবির ট্রাকের লাইনে মধ্যবিত্তদের ভিড় বাড়ার মধ্য দিয়ে সমাজের দুরবস্থার চিত্র আমাদের সামনে উন্মোচিত হয়েছে। কতটা দুর্বিষহ পরিস্থিতিতে পড়লে মধ্যবিত্ত পরিবারের একজন মানুষ নিজের সামাজিক অবস্থান ভুলে গিয়ে ‘নিম্নতর’ শ্রেণীর কাতারে শামিল হতে পারে তা পরিস্থিতির নাজুকতা প্রমাণ করে।

কিন্তু একটি সত্য সবার জানা যে, টিসিবির ট্রাক সেল বাজারে পণ্যমূল্যের ওপর কোনো প্রভাব ফেলতে পারে না। বাজারে কোনো পণ্যেরই দাম কমে না। বাজারে প্রভাব সৃষ্টির জন্য যে পরিমাণে পণ্য বিক্রি করা দরকার, সেই সক্ষমতা টিসিবির নেই। টিসিবি সর্বসাকুল্যে বাজারের মোট চাহিদার মাত্র ৪ থেকে ৬ শতাংশ পূরণ করতে পারে। যথেষ্ট পণ্য কেনার মতো অর্থ এই সংস্থার নেই। সেই ব্যবস্থা সরকার করেনি। সরকারি সংস্থাটির তেমন জনবলও নেই। ১৯৭২ সালে এক হাজার ৪০৬টি পদ নিয়ে যে প্রতিষ্ঠানের যাত্রা শুরু হয়েছিল সেই টিসিবির কর্মীসংখ্যা এখন ১০৯ জন মাত্র। ফলে বাজারে পণ্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে এর ভূমিকা একেবারেই অনুল্লেøখ্য। প্রধানমন্ত্রী ২০১৪ সালে এই প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা বাড়িয়ে এটিকে পুরোপুরি সক্রিয় করার নির্দেশ দিয়েছিলেন। কিন্তু সরকারপ্রধানের অনেক নির্দেশের মতো এই প্রয়োজনীয় নির্দেশটিও বাস্তবে রূপায়িত হয়নি। অর্থ এবং জনবল সঙ্কটে নিষ্ক্রিয়ই থেকে গেছে টিসিবি। বাজারে পণ্যের সরবরাহ বাড়িয়ে দামের লাগাম টেনে ধরার সামর্থ্য তার হয়নি।

এক শ্রেণীর মানুষের ব্যাপকভিত্তিক দুর্নীতি ও মহামারীজনিত বর্তমান পরিস্থিতিতে সামাজিক একটি দুরবস্থার অশনি সঙ্কেত স্পষ্ট হতে শুরু করেছে। এই মুহূর্তে মানুষকে স্বস্তি ও সুরক্ষা দিতে দুর্নীতি এবং বাজারদরের ঊর্ধ্বগতির মুখে লাগাম পরানোর বিকল্প নেই। আর তা নিশ্চিত হতে পারে কেবল সরকারপ্রধানের প্রত্যক্ষ হস্তক্ষেপে।

লেখকঃ নির্বাহী সম্পাদক দৈনিক আপন আলো | বিশেষ প্রতিবেদক শ্যামল বাংলা ডট নেট | সদস্য ডিইউজে |

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
Design & Developed BY TechPeon.Com