বৃহস্পতিবার, ১৭ Jun ২০২১, ১১:৩৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
হত্যাকান্ডের ৯ দিন পর খুনিকে গ্রেপ্তার করেছে র্্যাব মাগুরা শ্রীপুরের জনপ্রিয় শিক্ষক আমিরুজ্জামান সেলিমের ইন্তেকাল বাকলিয়ার সন্ত্রাসী এয়াকুবসহ চিহ্নিত অস্ত্রধারীদের গ্রেফতার দাবি চট্টগ্রামে বায়েজিদ লিংক রোডে ঝুঁকিপূর্ণ ভাবে পাহাড়ের বসতিদের উচ্ছেদ অভিযান শুরু পরীমণিকে ধর্ষণচেষ্টায় নাসির উদ্দিন গ্রেফতার রাউজানের গণি পাড়ার মেয়ে কিংবদন্তি শাবানার গ্রামের বাড়িতে বছরে পর বছর ঝুলছে তালা র‌্যাব ক্যাম্পের অভিযান : দুই মাদক কারবারি আটক সদ্য নবনির্বাচিত দিনাজপুর চেম্বারের রেজা হুমায়ুন ফারুক চৌধুরী (শামীম) পরিষদের বিজয়ীদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানালো পরিবেশক সমিতি দিনাজপুর কোম্পানীগঞ্জে সিএনজি ধর্মঘটের ঘোষণা পৌর মেয়র কাদের মির্জা’র চট্টগ্রামের বাকলিয়ার এয়াকুব আলী বাহিনীর চিহ্নিত অস্ত্রধারীদের অস্ত্র উদ্ধারের দাবিতে সাংবাদিক সম্মেলন

যাত্রাবাড়ীতে ব্যবসায়ীর সাথে প্রতারণা, দোকান লুটপাটের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে ব্যবসায়ীর সাথে প্রতারণা করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ও লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় আদালতে মামলা দায়ের করেছেন ছনটেকের ৩৩১ নং প্লটের ব্যবসায়ী মো. নাছির।

মামলায় আসামিদের গ্রেফতার করে আদালতে হাজির করার নির্দেশ দিলেও আসামিদের ধরতে গড়িমসির অভিযোগ উঠেছে। এমনকি মামলার আয়ু এস আই নওশের আলীর সামনেই বাদীকে মারধরের অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগীরা।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, যাত্রাবাড়ীর বাসিন্দা মো. আব্দুল কুদ্দুসের কাছ থেকে ২০১৮ সালের ডিসেম্বর মাসের ২৯ তারিখে একটি দোকান ঘর ভাড়া নিয়ে ব্যবসা শুরু করেন মামলার বাদী মৃত নুরুল হকের ছেলে মো. নাছির। সে সময়ে চুক্তিতে ৪০ হাজার টাকা জামানত রেখেই দোকান ঘরটি ভাড়া নেন নাছির।

পরবর্তীতে মামলার ১ নম্বর আসামী আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে মো. কাইউম পূর্ববর্তী চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ায় তা বাতিল করেন। নতুন চুক্তিপত্র সম্পাদন করার জন্য ২০২১ সালের জানুয়ারি মাসের ২০ তারিখে বাদীর দোকান ঘরে এসে তার বাবার মৃত্যু ও পারিবারিক অসচ্ছলতার কথা বলেন। নতুন চুক্তিতে পূর্ববর্তী ৪০ হাজার টাকার সাথে আরও ১ লাখ ২০ হাজার টাকা বাড়িয়ে সর্বমোট ১ লাখ ৬০ হাজার টাকায় ঘরটি পুনরায় ভাড়া দেয়ার সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেন।

পরে মোঃ কাইউম একই মাসের ৩০ তারিখে মামলার (২,৩,৪,৫)নং আসামী স্থানীয় আকতার,রানা গার্মেন্টসের প্রোপাইটার মো. জনি,মোজাম্মেল ও তুহিনকে সাথে নিয়ে নাছিরের দোকান ঘরে এসে অগ্রিম জামানতের অতিরিক্ত ১ লাখ ২০ হাজার টাকা গ্রহণ করেন এবং নতুন চুক্তিনামা দলিল সম্পাদনা করবেন বলে জানান। কিন্তু জামানতের টাকা নেয়ার পর থেকেই চুক্তিতে স্বাক্ষর করতে কালক্ষেপণ করতে শুরু করেন মো. কাইউম।

পরবর্তীতে মামলার বাদী মোঃ নাছির স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গের সহায়তায় কাইউমকে লিখিত দলিল করার জন্য চাপ প্রয়োগ করলে গত ২৫ ই মার্চ রাত সাড়ে ৮ টায় কাইউম স্থানীয় গ্যাংয়ের লিডার আকতার, জনি, মোজাম্মেল, তুহিন ও শাকিল নাছিরের দোকান ঘরে প্রবেশ করে তাকে চর-থাপ্পর মেরে ক্যাশ বাক্সে থাকা টাকা ও মালামাল লুটপাট চালায়। এ সময়ে আকতার তার দোকানটি তালাবন্ধ করে দিয়ে তাকে এলাকা ছেড়ে চলে না গেলে গুলি করে হত্যার হুমকি প্রদান করে।

তারা অভিযোগ করেন, এ সময়ে ঘটনাস্থলে নাসিরের স্ত্রী উপস্থিত হলে তাকেও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে তার শ্লীলতাহানির চেষ্টা চালায় ভাড়াটে ক্যাডাররা। এ ঘটনায় আদালত মামলা গ্রহণ করেন এবং কাইউম,আকতার জনি সহ বাকী সদস্যদের গ্রেফতারের নির্দেশ দিলে ওই দিন সন্ধ্যায় আকতার তার দলবল নিয়ে এস আই নওশেরের সামনেই নাসিরকে এলোপাতাড়ি কিল ঘুষি মারে।

এদিকে ব্যবসায়ীকে নির্যাতন ও দোকান ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনায় পুলিশের এমন অসদাচরণে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে যা যে কোন সময়ে ভয়ংকর রূপ ধারণ করতে পারে স্থানীয়রা আশঙ্কা করছেন।

এ বিষয়ে মো. নাছির জানান, আমার জীবন ধারণের একমাত্র অবলম্বন এই দোকান। কাইউম আমার সরলতার সুযোগ নিয়ে আমার টাকা মেরে খেয়েছে। আমার দোকানে অবৈধ ভাবে তালা মেরে রেখেছে। দোকান ছেড়ে না দিলে আমাকে গুলি করে মেরে ফেলবে। আকতার প্রতিদিন আমাকে হুমকি দিচ্ছে। যেকোন সময়ে আমার বড় কোন ক্ষতি করবে। পুলিশের সামনেই আমাকে মারধর করেছে। পুলিশ ওদের সাথে মিলিত হয়েছে। আমি এর সুবিচার চাই।

যাত্রাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাজহারুল ইসলামকে গতকাল শুক্রবার (৯ এপ্রিল) মামলার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি ব্যস্ততার কথা বলে কলটি কেটে দেন। ঘটনার সত্যতা জানতে এস আই নওশেরের মুঠোফোনে একাধিকবার কল দিলেও তিনি কলটি রিসিভ করেননি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
Design & Developed BY TechPeon.Com