সরকার ঘোষিত লকডাউনে রিকসা ডাউনে তাদেরকে খাবার কে দিবে?

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বর্তমান করোনা পরিস্থিতিকে সামাল দিতে সরকার ঘোষিত লকডাউনকে গরিবের একমাত্র রুজির বাহক রিকশাকে ডাউন বলে দেশের শহর নগরে চিত্র উঠে এসেছে সামাজিক যোগাযোগ মার্ধ্যমে।

করোনা মহামারী থেকে দেশের জনগনকে নিরাপদ আশ্রয়ে রাখার জন্য গত ১৪এপ্রিল থেকে ৭ দিনের লকডাউন ঘোষণা করা হয় সরকারের তরফ থেকে।

সরকার ঘোষিত লকডাউনকে মেনে চলার সরকারী দপ্তর থেকে প্রজ্ঞাপন জারী করা হয়।

এ দিকে লকডাউন ঘোষণার পরে শুরু হওয়া সার্বিক পরিস্থিতির চিত্র তুলে ধরেন গনমার্ধ্যম কর্মীরা।

প্রজ্ঞাপনে উল্লেখিত সকল নিয়ম কানুন মানাতে মাঠে নামে আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী। আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা নিরলসভাবে ভাবে তাদের উপর অর্পিত দায়ীত্ব পালনের দৃস্যও দেখা যায় গনমার্ধ্যমে। আবার কিছু কিছু আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের হাতে সাধারণ মানুষ ভোগান্তির শিকার ও লাঞ্চিত হওয়ার দৃশ্যও দেখা যায় সামাজিক যোগাযোগ মার্ধ্যমে।

এমনকি গনমার্ধ্যম কর্মীকেও হেনস্থা করা হয় পুলিশ প্রশাসনের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা দ্বারা, দেশের অনলাইন মিডিয়ায় অল্পকিছুদিন আগেই চালু করা আলোচিত নিউজ পোর্টাল ঢাকা পোস্টের এক সিনিয়র সাংবাদিকের মোবাইল কেরে নেওয়া হয় প্রেসক্লাবের অনুমোদন আছে কি না এমন প্রশ্নের সম্মুখীন হন সেই সাংবাদিক।

লকডাউনের প্রথম ও দ্বিতীয় দিনে টাংগাইলে মার্কেট খোলা রাখায় এবং রাস্তায় চলাফেরা করায় একজন ষাটোর্ধ বয়স্ক লোকের হাতে লাঠি দ্বারা পিঠানোর দৃশ্যও সামাজিক যোগাযোগ মার্ধ্যমে তোলপাড় শুরু হয়। এমন আচরণে দেশের সচেতন মহলেও আইন বহির্ভূত এ নির্যাতনের ঘটনা প্রশ্নবিদ্ধ করেছে দেশের সাধারণ মানুষের কাছে।

দেশের সচেতন নাগরিক সমাজ প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপও কামনা করেছেন আইন বহির্ভূত সোস্যাল মিডিয়ায় চাউর হওয়া অপরাধের দৃশ্য গুলোর।

অপরদিকে লকডাউন ঘোষণা করার পরেও মানছেনা সাধারণ মানুষ।

সোস্যাল মিডিয়ায় লকডাউন না মানার দৃশ্যও দেখা যায় চোখে পরারমত, অনেকেই মানছেননা স্বাস্থ্য বিধি মানছেনা নিরাপত্তা দূরত্ব বজায়।

দেশের খেটে খাওয়া শ্রমজীবী মানুষকে রাস্তায় শুয়ে থাকতেও দেখা যায় সরকারী অনুদান খাদ্য দ্রব্য সংগ্রহের জন্য অনেকে সরকার দলীয় নেতাকর্মীদের দ্বারে দ্বারে ঘুরতে।

অনেকেই পাচ্ছে আবার অনেকেই না পেয়ে অনাহারে অর্ধাহারে জীবন যাপন করছে।

দেশের শহর নগর গুলোতে গ্রামগঞ্জ থেকে আশা রিক্সা চালকরা তাদের পরিবারের একমাত্র উপার্জনখম ব্যাক্তি তারা জীবিকার তাগীতে শহর গুলোতে রিক্সা গ্যারেজ থেকে ভারা নিয়ে চালাচ্ছেন কেউবা আবার বিভিন্ন এনজিও থেকে লোন নিয়ে রিকসা কিনে চালাচ্ছেন। একদিকে পরিবারের খাবারের টাকা যোগান অন্যদিকে এনজিওর কিস্তি যোগানো, অপরদীকে লাকডাউন আসলে তারা যাবে কোন দিকে কোনো উপায় অন্তর না পেয়ে তাদের রিকশা নিয়ে রাস্তায় যাত্রীর অপেক্ষায় অন্যদিকে পুলিশের শক্ত অবস্হান। পুলিশও রাস্তায় নামতে দিচ্ছে না রিকশা চালকও রাস্তা ছারছেনা।

এমনি এক মুহুর্তে শুরু হয় পুলিশ আর রিকশা চালকের রিকশা নিয়ে টানাটানি এ দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মার্ধ্যমে আলোচনা সমালোচনার ঝর উঠেছে।

লেখক
মোহাম্মদ নুর আলম সিদ্দিকী মানু ,
সমাজকর্মী সাংবাদিক সংগঠক প্রকাশক ও সম্পাদক।

চলবে…….


শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.