সোমবার, ১৪ Jun ২০২১, ০২:১৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
বিএফইউজে-ডিইউজে বিক্ষোভ সমাবেশে নেতৃবৃন্দ গণতন্ত্র ও গণমাধ্যমের স্বাধীনতা রক্ষায় বিচার বিভাগের নিরপেক্ষ ভূমিকা জরুরি আশুলিয়া শিল্পাঞ্চলে পুলিশের ধাওয়ায় এক নারী শ্রমিকের মৃত্যু তিতাস তাকওয়া ফাউন্ডেশনের সভাপতি শাহজালাল, সম্পাদক ফারুক ও সাংগঠনিক সজীব থানায় সাধারণ ডায়েরি বা মামলা গ্রহণ করেনি মাগুরায় ১৭ জন নতুন করোনা রোগী শনাক্ত! জেলা শহরে ও মহম্মদপুরে লকডাউন ঘোষনা উত্তরা আধুনিক মেডিকেলে ৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারিদের ইনজেকটিং ড্রাগ্সের রমরমা ব্যবসা স্বাস্থ্যবিধি মেনে কুবিতে সশরীরে পরীক্ষা শুরু খুটাখালীতে ইজিবাইক উল্টে গৃহবধুর মৃত্যু রংপুরে ঘাঘট নদীতে দুই ভাইবোনের মৃত্যু বাঁচতে চায় কাজল রেখা, কিন্তু পরিবারের সাধ্য নেই

স্ত্রীকে নির্যাতন করে হত্যার পর ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ

খলিল উদ্দিন ফরিদ।। ভোলা প্রতিনিধি।

ভোলা সদর উপজেলার ঘুইংগারহাট বাজার এলাকার একটি বাসায় স্ত্রীকে নির্যাতনের পরে গলায় ওড়না পেচিয়ে ঝুলিয়ে রেখে ঘাতক স্বামী পালিয়ে যাবার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে। এ ব্যাপারে নিহতের বাবা দিনমজুরবিল্লাল হোসেন ও তার পরিবারের লোকজন জানান, প্রায় আড়াই বছর আগে ভোলা সদর উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের কবির হোসেনের ছেলে আরিফুল ইসলামের সাথে চরসমাইয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের বিল্লালের মেয়ে নুপুরের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পার আরিফ ও নুপুর ঘুইংগারহাট বাজারের গজারিয়া রাস্তার মাথায় একটি বাড়ীতে ভাড়া থাকতো। বিয়ের পর উভয়ের দাম্পত্য জীবন কিছু দিন ভালো কাটলেও পরবর্তিতে ঘাতক স্বামী আরিফ ও তা বাবা মা মোটা অংকের যৌতুকের জন্য চাঁপ প্রয়োগ করে নুপুরের বাবা মার কাছে। মেয়ের সুখের জন্য দিনমজুর বাবা কয়েক ধাপে প্রায় ২লাখ টাকা যৌতুক প্রদান করলেও শেষ রক্ষা হয়নি গৃহবধু নুপুরের। কোন ভাবেই আরিফের সংসারে কোন প্রকার সুখ মেলেনি হতবাগী নুপুরের। কিছু দিন যেতে না যেতেই ফের যৌতুকের জন্য নপুরের পরিবারের উপর চাঁপ প্রয়োগ করে পরবিত্তু লোভী স্বামী আরিফ ও তার বাবা মা। বার বার এ অন্যায় আবদার মানতে রাজি হয়নি স্ত্রী নুপুর ও তার পরিবার। এর পর নুপুরের উপর নেমে আসে আরিফ ও তার বাবা-মার নির্মম অত্যাচার। সূত্রে আরো জানাগেছে, যৌতুকের টাকার জন্য কিছু দিন পর পরই ঘাতক স্বামী আরিফ নুপুরের উপর অমানুষিক নির্যাতন চালাতো। সর্বশেষ (০৯ এপ্রিল ২০২১) শুক্রবার দুপুরের দিকে যৌতুকের টাকাকে কেন্দ্র করে আরিফের সাথে বাক বিতন্ড হয় নুপুরের। এক পর্যায়ে ঘাতক আরিফ ক্ষিপ্ত হয়ে নুপুরকে আঘাত করলে তাৎক্ষনিক ভাবে তার মৃত্যু হয়।

পরে আরিফ লাশটিকে আত্মহত্যা হিসেবে চালিয়ে দেয়ার জন্য তার সাথে ডেকে আনে তার একান্ত বন্ধু হাসান নামক এক যুবককে। পরবর্র্তিতে এরা দুজন মিলে নিহত নুপুরের গলায় ওড়না পেচিয়ে তাকে ওই রুমের ফ্যানের রডের সাথে ঝুলিয়ে রেখে, রুমের দড়জা বন্ধ করে পেছনের একটি খোলা জানালা দিয়ে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। এ ব্যাপারে স্থানীয় অটো রিক্সা চালক ইব্রাহীম জানায়, আমি আরিফদের বাসার সামনে দিয়ে রিক্সা নিয়ে গজারিয়া যাবার সময় স্ব-জোড়ে আরিফ ও নুপুরের ঝগড়ার আওয়াজ শুনেছি। কিন্তু আমি গজারিয়া থেকে ঘুইংগার হাট এসে শুনতে পারলাম ওই বাসার একজন মহিলার ঝুলন্ত লাশ পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে ভোলা সদর থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) এনায়েত হোসেন জানান, লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। মেডিকেল রিপোর্ট পাওয়ার পর এ মৃত্যুর আসল রহস্য খুজে পাওয়া যাবে এবং মেয়েটিকে হত্যা করা হলে, ঘাতকদের জরুরী ভিত্তিতে গ্রেপ্তার করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

© All rights reserved © 2022 TechPeon.Com
Design & Developed BY TechPeon.Com